অধ্যক্ষ আখতারুজ্জামানের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের দাবীতে সাতক্ষীরায় গণ জমায়েত


384 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
অধ্যক্ষ আখতারুজ্জামানের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের দাবীতে সাতক্ষীরায় গণ জমায়েত
নভেম্বর ৪, ২০১৫ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

স্টাফ রিপোর্টার :
সাতক্ষীরা সদরের বিনেরপোতা এ্যাড. আব্দুর রহমান কলেজের অধ্যক্ষ আখতারুজ্জামানের দুর্নীতি এবং ৫জন শিক্ষকের বেতন বন্ধ করণ ও উত্তোলিত বেতন ভাতাদি রাষ্ট্রীয় কোষাগারে ফেরতসহ আখতারুজ্জামানের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের দাবীতে সাতক্ষীরায় গণ জমায়েত অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সাতক্ষীরা জেলা ন্যাপ, ওয়ার্কাসপার্টি এবং জাসদের যৌথ উদ্যোগে বুধবার বিকাল সাড়ে ৪টায় শহরের নিউ মার্কেটস্থ শহীদ স.ম আলাউদ্দীন চত্তরে গণ জমায়েত অনুষ্ঠিত হয়।

ন্যাশনাল আওয়ামীপার্টি (ন্যাপ) সাতক্ষীরা জেলার সভাপতি এ্যাড. জিএম আব্দুর রহমানের সভাপতিত্বে গণ জমায়েতে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা ন্যাপের সাধারণ সম্পাদক কাজী সাইদুর রহমান।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা ওয়ার্কার্সপার্টির সম্পাদক এ্যাড. ফাহিমুল হক কিসলু, জাতীয় শ্রমিক ফেডারেশনের সহ সভাপতি মিজানুর রহমান, স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদের সভাপতি প্রভাষক এম সুশান্ত।

এছাড়া বক্তব্য রাখেন জেলা ভূমিহীন নেতা আব্দুস সাত্তার, প্রভাষক আবু সুফিয়ান, জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সম্পাদক আরিফুল ইসলাম, জাতীয় শ্রমিক জোটের যুগ্ম সম্পাদক আবু সেলিম প্রমুখ।

গণ জমায়েতে বক্তারা সাতক্ষীরা আব্দুর রহমান কলেজের দূর্নীতিবাজ শিক্ষা দস্যু অধ্যক্ষ  ১৮টি কারিগরি কলেজের অবৈধ সভাপতি আখতারুজামান এবং তার স্ত্রী সেলিনা সুলতানার বিরুদ্ধে বিভিন্ন দূর্নীতি ও জালজালিয়াতির  বর্ণনা তুলে ধরে বলেন, বিএনপি নেতা অধ্যক্ষ আখতারুজ্জামান সাতক্ষীরাসহ বিভিন্ন উপজেলায় ১৮টি কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলে নিজ আত্তীয় স্বজনদের নাম উল্লেখ করে ভূয়া কমিটি করে, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলি পরিচালনা করছে। এবং লাখ লাখ টাকার বিনিময়ে ওই সমস্ত প্রতিষ্ঠানে শিক্ষক নিয়োগ দিয়ে সরকারী কোষাগার থেকে প্রতি বছর কোটি টাকা উত্তোলন করছে স্বামী-স্ত্রী। অবৈধ ভাবে সরকারি উত্তলিত টাকা ফেরত দেওয়ার আহবান জানান বক্তারা ।

অবিলম্বে দূর্নীতিবাজ শিক্ষা দস্যু আখতারুজ্জামানের দূর্নীতির সঠিক তদন্ত পূর্বক তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য যথাযত কর্তৃপক্ষের প্রতি আবেদন জানান বক্তারা।