অপকর্মকারীরা যুবলীগে থাকতে পারবেন না : চয়ন


154 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
অপকর্মকারীরা যুবলীগে থাকতে পারবেন না : চয়ন
অক্টোবর ২২, ২০১৯ জাতীয় ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::

অপকর্মকারীদের যুবলীগের আগামী জাতীয় কংগ্রেসে থাকতে দেওয়া হবে না বলে জানিয়েছেন সংগঠনের কংগ্রেস প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক চয়ন ইসলাম।

মঙ্গলবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে যুবলীগ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে একথা জানান তিনি। পরে কংগ্রেসের প্রস্তুতি নিয়ে সভা করেন প্রস্তুতি কমিটির নেতারা।

চয়ন ইসলাম বলেন, আগামী কংগ্রেসে অপকর্মকারীদের সঙ্গে নেই আমরা। অপকর্মকারীরা যুবলীগের সঙ্গে থাকতে পারবেন না। মাদক, দুর্নীতি ও চাঁদাবাজির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতিতে অটল থাকব। অনুপ্রবেশকারীর ক্ষেত্রেও জিরো টলারেন্স অবস্থান অব্যাহত থাকবে।

কংগ্রেসের প্রস্তুতি বিষয়ে তিনি বলেন, ইতোমধ্যে এই প্রস্তুতি শুরু করেছেন তারা। অনেকগুলো উপ-কমিটি করা হয়েছে। তবে এত বড় কংগ্রেস, কিন্তু সময় খুব কম। এত কম সময়ের মধ্যে এটির আয়োজন দুঃসাধ্য ব্যাপার। প্রতিটি নেতাকর্মীকে কংগ্রেস বাস্তবায়ন করতে দৃঢ়চেতা মনোভাব নিয়ে কাজ করতে হবে।

নেতাকর্মীরা অপকর্মে জড়ালে তার দায়ভার নেবেন কি-না- জানতে চাইলে যুবলীগের এই প্রেসিডিয়াম সদস্য বলেন, অন্যায়কারীদের প্রতিহত করেছেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। সুতরাং অপকর্মকারীদের যুবলীগে ঠাঁই নেই।

যুবলীগের নানা অপকর্মে জড়ানোর পেছনে আওয়ামী লীগের শীর্ষনেতাদের নিয়ন্ত্রণের অভিযোগ রয়েছে। কংগ্রেসের নেতৃত্বও কী সেই নিয়ন্ত্রকদের হাত দিয়েই আসবে- জানতে চাইলে চয়ন ইসলাম বলেন, যুবলীগ এটা বিশ্বাস করে না। যুবলীগ নিয়ন্ত্রণ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এর বাইরে কোনো নিয়ন্ত্রক নেই। সুতরাং তিনিই সিদ্ধান্ত নেবেন আগামী নেতৃত্ব কেমন হবে।

যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ও কংগ্রেস প্রস্তুতি কমিটির সদস্য সচিব হারুনুর রশিদ বলেন, ঐক্যবদ্ধভাবে নতুন দিনের জন্য একটি সুন্দর কংগ্রেস করে কমিটি দেওয়াই তাদের প্রধান কাজ। নেত্রীর (শেখ হাসিনা) সঙ্গে পরামর্শ করে নিয়ে সেটিই করবেন তারা।

এ সময় সংগঠনের কেন্দ্রীয় নেতাদের মধ্যে শহীদ সেরনিয়াবাত, আতাউর রহমান, ফারুক হোসেন, মজিবুর রহমান চৌধুরী, আনোয়ারুল ইসলাম, অ্যাডভোকেট বেলাল হোসাইন, মহিউদ্দীন আহমেদ মহি, সুব্রত পাল, ফজলুল হক আতিক, এস এম জাহিদ, ইকবাল মাহমুদ বাবলু, হেলালুদ্দিন, মাইনুল হোসেন খান নিখিল, ইসমাইল হোসেন, রেজাউল করিম রেজা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।