অবশেষে দ্বীপ ইউনিয়ন গাবুরা পানিমুক্ত


81 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
অবশেষে দ্বীপ ইউনিয়ন গাবুরা পানিমুক্ত
জুন ২, ২০২১ ফটো গ্যালারি শ্যামনগর
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::

২৬ মে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাবে উপকূলীয় নদীর পানি স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে অন্তত ৫-৬ ফুট বৃদ্ধি পায়। ফলে কপোতাক্ষ নদের জলোচ্ছ্বাসে ২টি পয়েন্ট দিয়ে পানি প্রবেশ করে প্লাবিত হয় দ্বীপ ইউনিয়ন গাবুরা। দীর্ঘ ৬ দিনের নিরলস পরিশ্রমের ফলে রবিবার ৩নং ক্লোজার নামক স্থানে ও মঙ্গলবার নেবুবুনিয়া ক্লোজারের বেড়িবাঁধ বাঁধা সম্পন্ন হলো। বাঁধের কাজে স্বেচ্ছায় অংশগ্রহণ করেন গাবুরার হাজারো মানুষ।
এলাকার বাসিন্দাদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, গত ২০০৯ সালের ২৫ মে ঘূর্ণিঝড় আইলার পর থেকে গাবুরাবাসি প্রায় প্রতি বছরই দুর্যোগের সম্মুখীন হয়েছেন। বিভিন্ন সময় সরকারের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এ অঞ্চল পরিদর্শন করে বারবার টেকসই বেড়িবাঁধের কথা বললেও এখনো পর্যন্ত তার নির্মাণ কাজ শুরু হয়নি। এ বিষয়ে পানি উন্নয়ন বোর্ডের সেকশন অফিসার (এসও) সাজ্জাদ হোসেন জানান, পানি উন্নয়ন বোর্ড টেকসই বেড়িবাঁধের ডিজাইন করে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়েছে। সেটা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।
এদিকে বাঁধ সংস্কারে স্বেচ্ছায় কাজে আসা আবু তালেব নামের এক বৃদ্ধ আক্ষেপ করে বলেন, আর কতকাল আমারা এভাবে ভয় নিয়ে বসবাস করবো? এই মৌসুমে সারারাত আতংক নিয়ে ঘুমাতে হয়। আমরা এর থেকে পরিত্রাণ চাই। নেবুবুনিয়ার বাঁধে জন সাধারণের সাথে কাজে অংশগ্রহণ করেন সাবেক এমপি গাজী নজরুল ইসলাম, গাবুরার ইউপি চেয়ারম্যান জিএম মাসুদুল আলম, ইউপি সদস্য বীরমুক্তিযোদ্ধা মীর আব্দুর রাজ্জাক, ইউপি সদস্য আবিয়ার রহমান, ইউপি সদস্য গোলাম মোস্তফা, ইউপি সদস্য মাষ্টার আব্দুর রহিম, ইউপি সদস্য আব্দুল মান্নান খোকা, ইউপি সদস্য পীযুষ কুমার মৃধা ও বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। এসময় উপস্থিত ছিলেন পানি উন্নয়ন বোর্ডের সেকশন অফিসার (এসও) সাজ্জাদ হোসেন ও মাসুদ রানা।