আইনের প্রয়োগ সবার জন্য সমান : চৌধুরী মঞ্জুরুল কবির


342 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
আইনের প্রয়োগ সবার জন্য সমান : চৌধুরী মঞ্জুরুল কবির
অক্টোবর ৮, ২০১৫ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

বিশেষ প্রতিনিধি :
জেলার আইন শৃংখলা পরিস্থিতির উন্নতি ধরে রাখার লক্ষ্যে সংবাদকর্মী ও জনগনের সার্বিক সহায়তা প্রয়োজন উল্লেখ করে সাতক্ষীরার পুলিশ সুপার চৌধুরী মঞ্জুরুল কবির বলেন ‘ সাতক্ষীরা এখন বাংলাদেশের মডেল ’ । এখানকার আইন শৃংখলা  পরিস্থিতি ভালো এই মন্তব্য করে তিনি বলেন   ‘এটা  পুলিশ ও জনগনের  যৌথ অর্জন’ । ‘ সবার জন্য আইন এবং আইনের প্রয়োগও সবার জন্য সমান ’ একথা উল্লেখ করে তিনি আরও  বলেন সাতক্ষীরার মানুষ শান্তি চায়। তারা কোনো ধরনের সংঘাত সংঘর্ষ পছন্দ করেন না বরং শান্তিতে জীবন যাত্রা নির্বাহ করতে চান। এরপরও সমাজের কিছু মানুষের মাঝে আইন লংঘনের প্রবনতা আছে বলেই আইন প্রয়োগে সব সময় সতর্ক থাকতে হয়।

বুধবার দুপুরে সাতক্ষীরা পুলিশ লাইন্স মিলনায়তনে সাংবাদিকদের সাথে মাসিক মত বিনিময়কালে পুলিশ সুপার এসব  কথা বলেন।  তিনি বলেন চলমান  রেজিস্ট্রেশন বিহীন  মোটর সাইকেল আটক অভিযানে কেউ কেউ ক্ষুব্ধ  হলেও ট্রাফিক আইনে শৃংখলা ফিরিয়ে আনতেই এ অভিযান। সবার জন্যই এ আইন প্রযোজ্য উল্লেখ করে তিনি বলেন নিজের নিরাপত্তার পাশাপাশি অন্যের নিরাপত্তার বিষয়টিও এর সাথে জড়িত রয়েছে। এ প্রসঙ্গে তিনি সড়কে সাম্প্রতিক সময়ের কয়েকটি দুর্ঘটনার উল্লেখ করে বলেন প্রত্যেকে যদি ট্রাফিক আইন মেনে চলেন তাহলে সড়কে এ ধরনের অনাকাংখিত ঘটনা এড়ানো সম্ভব । তিনি বলেন এখন থেকে গাড়ির রেজিস্ট্রেশন না থাকলে গাড়ি জব্দ  করে মামলা দেওয়া হবে ।  এ ছাড়া রেজিস্ট্রেশন থাকলেও অন্যান্য ক্ষেত্রে বিশেষ করে হেলমেট না থাকা ও ড্রাইভিং লাইসেন্সে না থাকায় তারাও মামলার আওতায় আসবেন ।তবে তাদের গাড়ি জব্দ করার ব্যাপারে কিছুটা শিথিলতা দেখানো হবে।

মত বিনিময় সভায় সাংবাদিকরা  বিভিন্ন প্রসঙ্গ তুলে ধরেন।  তারা এবং এর সমাধান দাবি করেন । সাংবাদিকদের আলোচনায় সুন্দরবনে জলদস্যুদের চাঁদাবাজি, মুক্তিপণ আদায়ের লক্ষ্যে সাধারন জেলে বাওয়ালিদের জিম্মি করে রাখা, বেসরকারি সংস্থা লীডার্স নির্বাহী পরিচালক মোহন কুমার মন্ডলকে গ্রেফতার পরবর্তী একটি মহলের অস্থিরতা সৃষ্টির লক্ষ্যে মিছিল , জামায়াতের অর্থ যোগানদাতা  প্রতিষ্ঠান হিসাবে বুশরার জাল বিস্তার এবং তাতে একজন সংসদ সদস্যের পিতার নেতৃত্ব দান, কলারোয়ায় চোরাচালানিদের মধ্যে সংঘর্ষ , শহরের মধ্য দিয়ে মোটর সাইকেলে ভারতীয় পণ্য পাচার , ফিটনেসবিহীন গাড়ি ও  ইঞ্জিন ভ্যান চলাচল বন্ধ না হওয়াসহ নানা বিষয় উঠে আসে।  পুলিশ সুপার প্রতিটি বিষয়ে তার মতামত দিয়ে বলেন সংবাদকর্মীরা এসব বিষয় পত্র পত্রিকায় তুলে আনলে এ ব্যাপারে সচেতনতা সৃষ্টির পাশাপাশি তার  সমাধান আরও সহজ হতে পারে ।

আসন্ন দুর্গোৎসব অত্যন্ত শান্তিপূর্ন পরিবেশে উদযাপিত হবে এই আশাবাদ ব্যক্ত করে তিনি বলেন ‘ শারদীয় দুর্গাপূজা বাঙ্গালি সংস্কৃতির অংশ এবং একটি সার্বজনীন সামাজিক অনুষ্ঠান ’। তিনি সকলকে শারদীয় শুভেচ্ছা জানান।আশাশুনির প্রতাপনগরে একটি মন্ডপে প্রতিমা ভাংচুরের বিষয়টিকে তিনি বিচ্ছিন্ন ঘটনা উল্লেখ করে বলেন ‘এ ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে’।

মতবিনিময় সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন সাতক্ষীরা সদর সার্কেল সহকারি পুলিশ সুপার আনোয়ার সাঈদ , সহকারি পুলিশ সুপার বিশেষ শাখা মেহেদী হাসান , সদর থানার ওসি এমদাদ শেখ , গোয়েন্দা পুলিশ পরিদর্শক মোস্তাফিজুর রহমান ,  বিশেষ শাখার এসআই এমদাদুল হক , জেলা পুলিশের তথ্য কর্মকর্তা এস আই কামাল হোসেনসহ  পদস্থ পুলিশ কর্মকর্তারা ।

মত বিনিময় সভায় আরও বক্তৃতা করেন সাতক্ষীরা প্রেসক্লাব সভাপতি অধ্যক্ষ আবু আহমেদ , সাবেক সভাপতি সুভাষ চৌধুরী , সাবেক সভাপতি আবুল কালাম আজাদ, সাধারন সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান উজ্জ্বল , প্রথম আলোর কল্যাণ ব্যানার্জি, ভয়েস  অব সাতক্ষীরার এম কামরুজ্জামান,  দৈনিক সাতনদী সম্পাদক হাবিবুর রহমান , দিনকালের আবদুল বারী , সময় টিভির মমতাজ আহমেদ বাপী , এশিয়ান টিভির আবদুস সামাদ, যমুনা টিভির আহসানুর রহমান রাজীব, চ্যানেল টুয়েন্টি ফোর এর মনিরুল ইসলাম মনি,একাত্তর টিভির বরুন ব্যানার্জি প্রমুখ সাংবাদিক।  তারা বর্তমান সময়ের  বিভিন্ন সমস্যার কথা তুলে ধরেন।

আলোচনায় উঠে আসে  সাংবাদিক না হয়েও মোটর সাইকেলে প্রেস লিখে সাংবাদিকতার নামে প্রতারনা, মোটর সাইকেলের রেজিস্ট্রেশন , ড্রাইভিং লাইসেন্স ,ব্র্যাক ব্যাংকে টাকা জমা দেওয়া সংক্রান্ত জটিলতা ও শম্ভুক গতির  বিষয় , কালিগঞ্জের বৈরাগির চকে পাঁচ খুন পরবর্তী অস্থিরতা, আগামি মার্চে অনুষ্ঠেয় ইউপি নির্বাচন, শ্যামনগর উপজেলা পরিষদ উপ নির্বাচনসহ নানা বিষয়। পুলিশ সুপার এসব বিষয়ে তার মতামত প্রদান করেন । এসময় তিনি বলেন প্রতিটি বিষয়ে তিনি মনোযোগ দেবেন এবং তা  সমাধানের আশ্বাস  দেন।

তিনি বলেন সম্প্রতি ঢাকায় ও রংপুরে দুইজন সম্মানিত বিদেশী নাগরিক খুন হয়েছেন।  সরকারকে বিব্রত করতে এবং বেকায়দায় ফেলতে এসব বিচ্ছিন্ন ঘটনা ঘটেছে মন্তব্য করে পুলিশ সুপার বলেন এ নিয়ে আতংকিত হবার কিছু নেই । তিনি বলেন সাতক্ষীরায় কর্মরত সকল বিদেশি নাগরিকের নিরাপত্তা প্রদানে সাতক্ষীরা পুলিশ যথেষ্ট সতর্ক রয়েছে ।

পুলিশ সুপার আরও বলেন শহরের স্পীড ব্রেকারগুলিতে রং লাগানোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে ।  এ ছাড়া ট্রাক স্ট্যান্ডের নামে সড়ক ধারের যেখানে সেখানে ট্রাক রেখে জনচলাচলে বিঘœ সৃষ্টিরোধ এবং ফিটনেসবিহীন যানবাহন চলাচল রোধ করারও ব্যবস্থা নেওয়া হবে।