আকাশ সুরক্ষা ইস্যুতে বৈঠকে বসছে যুক্তরাষ্ট্র-রাশিয়ায়


317 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
আকাশ সুরক্ষা ইস্যুতে বৈঠকে বসছে যুক্তরাষ্ট্র-রাশিয়ায়
অক্টোবর ১০, ২০১৫ প্রবাস ভাবনা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

ভয়েস অব সাতক্ষীরা ডটকম ডেস্ক :
সিরিয়ায় ইসলামিক স্টেট (আইএস) জঙ্গি গোষ্ঠীর ওপর একযোগে হামলা চালানো যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়া আকাশ সুরক্ষা ইস্যুতে ফের আলোচনায় বসছে। দু’দেশের বিমান বাহিনী একইসঙ্গে ‍অভিযান চালাতে থাকায় যেকোনো মুহূর্তে দুর্ঘটনাবশতঃ সংঘর্ষ হতে পারে- এমন আশঙ্কা থেকে এ আলোচনার ডাক দেওয়া হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা বিভাগের সদরদফতর পেন্টাগনের প্রেস সেক্রেটারি পিটার কুকের বরাত দিয়ে শনিবার (১০ অক্টোবর) আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম এ খবর দিয়েছে। পিটার কুক বলছেন, চলতি সপ্তাহের শেষ দিকেই (রোব অথবা সোমবার) এ আলোচনা হতে পারে।

পেন্টাগনের এ মুখপাত্র বলেন, আইএস জঙ্গি নির্মূলে ওয়াশিংটন-মস্কো একসঙ্গে অভিযানে নেমেছে। এক্ষেত্রে সিরিয়ার আকাশসীমায় দু’দেশের বিমান বাহিনীর মধ্যে দুর্ঘটনাবশতঃ সংঘর্ষ হয়ে যেতে পারে বলে শঙ্কা বাড়ছে। এই শঙ্কা থেকেই করণীয় নির্ধারণে আলোচনার ডাক দেওয়া হয়েছে।

সংবাদমাধ্যম জানাচ্ছে, কতো দূরত্বে থেকে দু’দেশের যুদ্ধবিমান অভিযান চালাবে এবং যোগাযোগের ক্ষেত্রে দু’পক্ষের বাহিনী কী ভাষা ও কতো রেডিও ফ্রেকোয়েন্সি ব্যবহার করবে সে বিষয়গুলো ‍আলোচনায় নির্ধারিত হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

অবশ্য এ আলোচনায় বসার আগেই সিরিয়ার পার্শ্ববর্তী দেশ, বিশেষ করে তুরস্কের আকাশসীমা লঙ্ঘনের ব্যাপারে রাশিয়াকে সতর্ক করে দিয়েছে পশ্চিমা সামরিক জোট ন্যাটো।

৩০ সেপ্টেম্বর আইএস দমনে রাশিয়ার অভিযান শুরু হওয়ার পর ১ অক্টোবর আকাশ সুরক্ষা ইস্যুতে প্রথমবার আলোচনা করে যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়া। ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে হওয়া ওই আলোচনার পর মস্কো নতুন করে কিছু জানায়নি বলে ওয়াশিংটনের অভিযোগ রয়েছে।

এ সপ্তাহের শুরুতে পেন্টাগনের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়, সিরিয়ার আকাশসীমায় রাশিয়ার একটি যুদ্ধবিমান মার্কিন একটি যুদ্ধবিমানের অনেক কাছাকাছি চলে আসে। এসময় সংঘর্ষ এড়াতে রণকৌশল পাল্টাতে হয় রাশিয়াকে। ঘটনাটি ১ অক্টোবরের পরই ঘটে।

গত বছরের মাঝামাঝি সময়ে ইরাক ও সিরিয়ার কিছু অঞ্চল দখলে নিয়ে খেলাফত ঘোষণা করে আইএস। এরপর জঙ্গিরা বিদেশি নাগরিকদের জিম্মি করে গলা কেটে ও আগুনে পুড়িয়ে মারতে শুরু করলে তাদের বর্বরতার বিরুদ্ধে বিশ্বব্যাপী নিন্দার ঝড় ওঠে। এই প্রেক্ষিতে যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বে পশ্চিমারা আইএস দমনে বিমান হামলা শুরু করে। সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদকে ক্ষমতায় ধরে রাখতে আইএস নির্মূলে গত ৩০ সেপ্টেম্বর বিমান হামলা শুরু করে রাশিয়াও। ৪ অক্টোবর থেকে হামলা জোরদারের ঘোষণা দেয় মস্কো।—সুত্র:-বাংলা নিউজ ।