আগামী ৫০ বছরের মহাপরিকল্পনার দাবীতে প্রধানমন্ত্রীর বরাবর স্মারকলিপি প্রদান


282 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
আগামী ৫০ বছরের মহাপরিকল্পনার দাবীতে প্রধানমন্ত্রীর বরাবর স্মারকলিপি প্রদান
সেপ্টেম্বর ৩, ২০১৫ খুলনা বিভাগ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

 

ওয়াহেদ-উজ-জামান, খুলনা :

পাইপ লাইনে গ্যাস সরবরাহ, সুন্দরবন উন্নয়ন বোর্ড গঠন, খুলনাসহ দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের উন্নয়নের মহাপরিকল্পনা গ্রহণ, খুলনা মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়, ভোমরা-মংলা-মাওয়া-ঢাকা চার লেন করার পাশাপাশি এশিয়ান হাইওয়ের সাথে সংযুক্ত করার দাবিতে- বৃহস্পতিবার বেলা ১ টায় জেলা প্রশাসক মোঃ মোস্তফা কামালের মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। স্মারকলিপিতে উল্লেখ করা হয়- খুলনায় গ্যাস সরবরাহের সুনির্দিষ্ট ঘোষণা, পাশাপাশি গ্যাসক্ষেত্র অনুসন্ধানে নতুন কূপ খননের জন্য পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনায় গ্যাস ক্ষেত্র আবিষ্কারের লক্ষ্যে ত্রি-মাত্রিক ও দ্বিমাত্রিক ভূ-কম্পন জরিপে খুলনা ও গোপালগঞ্জকে ২০১৯ সাল নির্ধারন করা হয়েছে। যেহেতু এ অঞ্চলে আবিষ্কৃত গ্যাস ক্ষেত্র নেই সেহেতু আমাদের দাবি ভূ-কম্পন জরিপে খুলনা-গোপালগঞ্জ অঞ্চলকে অগ্রাধিকার দেয়া অর্থাৎ ২০১৬ সাল থেকে দ্বি-মাত্রিক ভূ-কম্পন জরিপের কাজ শুরুর করার জোর দাবি জানানো হয়। সুন্দরবনকে ঘিরে এ অঞ্চলে যে পর্যটন শিল্প গড়ে উঠবে এজন্য সুন্দরবনকে রক্ষা করতে সব ধরনের আহরন বন্ধ রেখে সুন্দরবনকে সুরক্ষিত করতে যা যা করা দরকার সে ধরনের পদক্ষেপ গ্রহণ এবং সুন্দরবন উন্নয়ন বোর্ড গঠনের দাবি জানানো হয়। পদ্মা সেতু নির্মিত হওয়ার পর খুলনাসহ দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের সকল সুযোগ-সুবিধা কাজে লাগিয়ে আগামী ৫০ বছরের জন্য এ অঞ্চলের পরিকল্পিত উন্নয়নের মহাপরিকল্পনা গ্রহনেরও দাবি জানানো হয়। ভোমরা বন্দরকে আন্তর্জাতিক মানে উন্নীতকরণসহ ভোমরা-মংলা-মাওয়া-ঢাকা চার লেন করার পাশাপাশি এশিয়ান হাইওয়ের সাথে সংযুক্ত করতে হবে। প্রতিশ্রুত আই টি পার্ক স্থাপন ও খুলনা মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের দাবি জানানো হয়।

স্মারকলিপিতে আরো বলা হয় খুলনাসহ দক্ষিণ-পশ্চিম অঞ্চলের জনগণের প্রত্যাশা খুলনা-মংলা রেললাইন দ্রুত বাস্তবায়ন, শহীদ শেখ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতাল পূর্ণাঙ্গরূপে চালু, খুলনা বিমান বন্দরের কাজ দ্রুত সম্পন্ন করা, আধুনিক রেল ষ্টেশন নির্মান কাজ দ্রুত সম্পন্ন, খুলনা-দর্শনা ডাবল রেল লাইন নির্মান কাজ শুরু, খুলনা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন, দৌলতপুর মহসীন মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও ফুলতলা রি-ইউনিয়ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়সহ ঘোষিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো বাস্তবে সরকারীকরণসহ যেসব প্রকল্প প্রক্রিয়াধীন আছে তা দ্রুত বাস্তবায়ন ও একই সাথে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ঘোষিত বন্ধ মিল কল কারখানা চালুর দাবি জানানো হয়।

। স্মারকলিপি প্রদান কালে উপস্থিত ছিলেন বৃহত্তর খুলনা উন্নয়ন সংগ্রাম সমন্বয় কমিটির সভাপতি শেখ আশরাফ উজ জামান, মহাসচিব শেখ মোশাররফ হোসেন, শাহিন জামাল পন,  এ্যাড. শেখ আবুল কাশেম, মোঃ নিজাম উর রহমান লালু, এ্যাড. শেখ হাফিজুর রহমান হাফিজ, মনিরুজ্জামান রহিম, মোঃ ফজলুর রহমান, জয়নাল আবেদীন বাবলু, মিজানুর রহমান জিয়া, মোল্লা মারুফ রশিদ, এস এম আকতার উদ্দিন পান্নু, শিকদার আব্দুল খালেক, আল জামাল ভূইয়া, শেখ আবু আরিফ টিটো, , মোঃ ইদ্রিস আলী খান, আব্দুল আলিম, , কাজী মিরাজ হোসেন প্রমূখ।