আনন্দঘন পরিবেশে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের নতুন কমিটির দায়িত্ব গ্রহণ


333 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
আনন্দঘন পরিবেশে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের নতুন কমিটির দায়িত্ব গ্রহণ
ডিসেম্বর ১১, ২০১৫ জাতীয় ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

স্টাফ রিপোর্টার :
টানা দুই বছরের দায়িত্ব পালন শেষে  নব নির্বাচিত কমিটির কাছে দায়িত্ব হস্তান্তর করলো সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের বিদায়ী কমিটি। শুক্রবার সন্ধ্যায় প্রেসক্লাব মিলনায়তনে আনন্দঘন পরিবেশে প্রেসক্লাবের বিপুল সংখ্যক সদস্যের উপস্থিতিতে এই হস্তান্তর প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়।
এ উপলক্ষে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাব মিলনায়তনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক নাজমুল আহসান বলেন ‘ সাতক্ষীরার ঐক্যবদ্ধ সাংবাদিকরা তাদের বিভেদ ও দ্বিধাদ্বন্দ্ব ভুলে একই পতাকা তলে সমবেত হয়ে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবভুক্ত সাংবাদিকদের পেশাগত উৎকর্ষ সাধনে কাজ করে যাচ্ছে।  আজকের এই অনুষ্ঠান তার স্পষ্ট প্রমান উল্লেখ করে জেলা প্রশাসক বলেন ‘আমার ২২ বছরের চাকুরি জীবনে সাতক্ষীরায় সাংবাদিকদের এমন মিলন মেলা এই প্রথম দেখলাম। বিভিন্ন স্থানে সাংবাদিকদের মধ্যে বিভাজন থাকলেও সাতক্ষীরার সাংবাদিক সমাজ এমন বিভেদের উর্ধে উঠে কাজ করছে। তিনি প্রেসক্লাবের উন্নয়ন সূচনায় দুই মেট্রিক টন খাদ্য শস্য প্রদানের ঘোষনা দেন। গত দুই বছর যাবত সাতক্ষীরায় প্রশাসনিক দায়িত্ব পালনকালে সাংবাদিকদের সহযোগিতার উল্লেখ করে তিনি বলেন তিনি সারা জীবন এর সাক্ষী হয়ে থাকতে চান। জেলা প্রশাসক বিদায়ী কমিটিকে বিদায়ের মাধ্যমে নব নির্বাচিত কমিটিকে স্বাগত জানিয়ে আরও বলেন নতুন কমিটির সভাপতি ও সাধারন সম্পাদক প্রশাসনের সাথে সুসম্পর্ক রেখে আগের মতোই কাজ চালিয়ে যাবেন ।  একই সাথে তারা সাতক্ষীরার ২২ লাখ মানুষের ঠিকানা হিসাবে জনকল্যানে ভূমিকা রাখতে সক্ষম হবেন।
প্রেসক্লাবের বিদায়ী সভাপতি অধ্যক্ষ আবু আহমেদের সভাপতিত্বে দায়িত্ব হস্তান্তর অনুষ্ঠানে আরও বক্তৃতা করেন প্রেসক্লাব নির্বাচন পরিচালনাকারী জেলা নির্বাচন অফিসার মো. আবুল হোসেন,  জেলা তথ্য অফিসার সিরাজুল ইসলাম মল্লিক, নব নির্বাচিত সভাপতি এড. আবুল কালাম আজাদ, বিদায়ী সাধারন সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান উজ্জল, নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক এম কামরুজ্জামান প্রমুখ।
প্রধান অতিথি হিসেবে জেলা প্রশাসক দুই কমিটির সভাপতি সম্পাদক সহ অন্যান্য কর্মকর্তা ও সদস্যদের ফুলেল শুভেচ্ছা জানান। এসময় তিনি বলেন, আজকের এই মিলন মেলা সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের আগামী দিনের ইতিহাস হয়ে থাকবে। এমন একটি অনন্দঘন অনুষ্ঠানে যোগ দিতে পেরে ‘নিজেকে ধন্য মনে করছি’ মন্তব্য করে জেলা প্রশাসক আরও বলেন, সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের এই ধারা অব্যহত থাকবে। এর উন্নয়নে প্রশাসন সর্বাত্মক সহায়তা দিয়ে যাবে বলে জানান তিনি।
বিদায়ী সভাপতি অধ্যক্ষ আবু আহমেদ বলেন, গত দুই বছরের দায়িত্ব পালনকালে আমরা সবার সহয়তা পেয়েছি। দুই ধারায় বিভক্ত সাংবাদিকদের একীভূত করে নিজেকে ধন্য মনে করছি উল্লেখ করে তিনি বলেন সাতক্ষীরার সাংবাদিকরা আর কখনো বিভাজিত হবেন না। প্রেসক্লাব বিভাজন দূরীকরণে জেলা প্রশাসক নাজমুল আহসান ও পুলিশ সুপার চৌধুরী মঞ্জুরুল কবিরের সদিচ্ছা ও প্রচেষ্টার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে তিনি বলেন, তারা আন্তরিকভাবে কাজ করে আমাদের মিলন ঘটিয়ে দিয়েছেন। সাংবাদিকরা এখন থেকে এক ও অভিন্ন লক্ষ্যে প্রেসক্লাবের উন্নয়নের পাশাপাশি সাংবাদিকদের পেশাগত উৎকর্ষ সাধনে কাজ করে যাবেন। তিনি আবেগ আপ্লুত হয়ে আরো বলেন, কর্মযজ্ঞের সময় অনেক ভূল ভ্রান্তি হতেই পারে। কারো মনে কোনভাবে কষ্ট দিয়ে থাকলে সে জন্য দু:খ প্রকাশ করেন তিনি। তিনি নবাগত সভাপতি এড. আবুল কালাম আজাদের হাতে প্রেসক্লাবের যাবতীয় রেকর্ডপত্র এবং স্থাবর অস্থাবর সম্পদ তুলে দিয়ে বলেন, সাংবাদিকদের কল্যাণে যে সঞ্চয় তহবিল গঠন করা হয়েছে তা দিন দিন আরো সম্প্রসারিত হবে।
সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সদ্য নির্বাচিত সভাপতি এড. আবুল কালাম আজাদ দায়িত্বভার গ্রহণ করে বলেন, তিনি তার চলার পথে সকল সংবাদকর্মীর সহযোগিতা চান। তিনি বলেন, বিভাজিত প্রেসক্লাব জন মানুষের কল্যাণ আনতে পারে না। সেটি বিবেচনায় এনে সাংবাদিক সমাজকে ঐক্যবদ্ধ করা হয়েছে। আমরা একে অন্যের সুখ ও দু:খের সাথী মন্তব্য করে আবুল কালাম আজাদ আরো বলেন, সাংবাদিকদের জন্য যে কল্যাণ তহবিল গঠন করা হয়েছে তার কলেবর আরো বৃদ্ধি পাবে এবং প্রেসক্লাবে বহুতল ভবন নিমাণে আমরা কাজ করে যাবো। নির্বাচনের মাধ্যমে নতুন কমিটির দায়িত্ব গ্রহণ একটি গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া উল্লেখ করে তিনি আরো বলেন, সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবকে আমরা সাংবাদিকতা, সংস্কৃতি, শিল্প ও সাহিত্য চর্চার কেন্দ্র বিন্দু হিসেবে গতে তুলতে চাই। তিনি এব্যাপারে সকলের সহায়তা কামনা করেন।
বিদায়ী সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান উজ্জল বলেন, দুই বছরের দায়িত্ব পালন কালে প্রেসক্লাবের সকল আকাংখাকে শতভাগ বাস্তবায়িত করা যায়নি। আরো অনেক পরিকল্পনার উল্লেখ করে তিনি বলেন, নবাগত কমিটি  এসব পরিকল্পনা ও কর্মসূচী বাস্তবায়নে কাজ করে যাবে বলে আমি বিশ্বাস করি। দীর্ঘ দিনের দায়িত্ব পালনে জ্ঞাত অথবা অজ্ঞাতসারে কোন ভূল ভ্রান্তি হয়ে থাকলে তার জন্য দু:খ প্রকাশ করে মোস্তাফিজুর রহমান উজ্জল আরো বলেন, পারস্পারিক সহায়তার মধ্য দিয়ে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাব একটি মুক্ত বুদ্ধির চর্চার কেন্দ্র হিসেবে গড়ে উঠবে। তিনি প্রেসক্লাবের চাবি নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদকের হাতে তুলে দেন।
সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক এম কামরুজ্জামান সাংবাদিকদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করে বলেন, এই প্রতিষ্ঠানকে সকল আশা আকাংখার কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তোলার দায়িত্ব সকল সংবাদকর্মীর। তিনি বলেন, নির্বাহী দায়িত্ব হিসেবে আমি আগের মতই আপনাদের সহযোগিতা নিয়ে কাজ করে যেতে চাই। নিজেদের মধ্যে সব ধরনের বিভেদ ভুলে আগামী দিনগুলিকে আরো সুন্দর করে গড়ে তোলার আহ্বান জানিয়ে এম. কামরুজ্জামান আরো বলেন, বিদায়ী কমিটির সভাপতি অধ্যক্ষ আবু আহমেদ ও সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান উজ্জলসহ সবার সহযোগিতা চাই।
এর আগে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের অন্যতম সদস্য ভোরের কাগজের স্টাফ রিপোর্টার এড. ড. দিলীপ কুমার দেবকে পিএইচডি অর্জনের সম্মানজনক স্বীকৃতি হিসেবে তার হাতে ক্রেস্ট ও পুস্পস্তবক তুলে দেন জেলা প্রশাসক নাজমুল আহসান ও দুই কমিটির সভাপতি ও সম্পাদকবৃন্দ। এসময় সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের তিন প্রবীণ সাংবাদিক ও সাবেক সভাপতি এড. একেএম শহীদউল্লাহ, সুভাষ চৌধুরী ও অধ্যক্ষ আনিসুর রহিমকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয়।
অনুষ্ঠানে বিদায়ী ও নতুন কমিটির সকল কর্মকর্তাকেও ফুল দিয়ে স্বাগত জানানো হয়। তাদের হাতে তুলে দেওয়া হয় এক একটি উপহার। নৈশ ভোজের মধ্য দিয়ে প্রেসক্লাবের দুই কমিটির মহামিলন ঘটে।