আম্পানে ক্ষতিগ্রস্থ প্রতিবন্ধী জনগোষ্ঠীকে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে সকল ধরণের সেবা প্রদানের আহ্বান


265 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
আম্পানে ক্ষতিগ্রস্থ প্রতিবন্ধী জনগোষ্ঠীকে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে সকল ধরণের সেবা প্রদানের আহ্বান
মে ২২, ২০২০ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

ঘূর্ণিঝড় আম্পানের আঘাতে সাতক্ষীরা জেলার সাতটি উপজেলায় ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। গতকাল ২০ মে, ২০২০ তারিখ রাতে সাতক্ষীরা জেলায় তীব্র বাতাস, ভারী বৃষ্টিপাত ও উঁচু জলোচ্ছ্বাস নিয়ে উপকূলজুড়ে তান্ডব চালিয়েছে ঘূর্ণিঝড় আম্পান। সাতক্ষীরা থেকে পটুয়াখালী উপকূল পর্যন্ত ঘূর্ণিঝড়টির প্রভাব ছিল সবচেয়ে বেশি। প্রাপ্ত তথ্যমতে শ্যামনগর, কালীগঞ্জ, আশাশুনি ও সদর উপজেলার ২৩টি স্থানে পানি উন্নয়ন বোর্ডের বাঁধ ভেঙে ৫০টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। এর মধ্যে শুধু শ্যামনগরে প্লাবিত হয়েছে ২৫টি গ্রাম। শ্যামনগরের সঙ্গে সাতক্ষীরা জেলা শহরের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন রয়েছে। রাস্তায় পড়ে আছে অসংখ্য গাছ। বিধ্বস্ত হয়েছে ৫০০-৭০০ কাঁচা ঘরবাড়ি । অনেক বিদ্যুতের খুঁটি ও গাছপালা উপড়ে পড়েছে। অনেক টিনচালার ঘর উড়ে গেছে।
এ অবস্থায় সাতক্ষীরা জেলার সবচেয়ে পিছিয়ে পড়া হত দরিদ্র প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের অবস্থা আরও শোচনীয়। আমাদের স্থানীয় প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের সংগঠনের দেয়া তথ্যমতে শ্যামনগর, কালীগঞ্জ উপজেলার প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের অবস্থা বেশি খারাপ। শ্যামনগর উপজেলার পদ্মপুকুর ইউনিয়ন, শ্যামনগর, রমজান ইউনিয়ন এবং কালীগঞ্জ উপজেলার মথুরেশপুর, মৌচালা, কুশুলিয়া ইউনিয়নসহ অন্যান্য ইউনিয়নে বেশিরভাগ প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের ঘর বাড়ীর চাল উড়িয়ে নিয়ে গেছে। কিছু এলাকা প্লাবিত হয়েেেছ এবং তাদের ফসল, গাছপালা ও গবাদি পশুর ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। এ সকল এলাকার প্রতিবন্ধী ব্যাক্তিরা এখন দিশেহারা। ক্ষতিগ্রস্ত প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের প্রয়োজনীয় সহযোগিতা দিতে সরকারের সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলোকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানায় প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের সংগঠনগুলো।