আর একটু সহযোগীতায় বেঁচে যাবে ক্যান্সার আক্রান্ত প্রভা


205 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
আর একটু সহযোগীতায় বেঁচে যাবে ক্যান্সার আক্রান্ত প্রভা
ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০২১ তালা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

বি. এম. জুলফিকার রায়হান ::

ব্লাড ক্যান্সারে আক্রান্ত ৭ বছর বয়সী ফুটফুটে শিশু প্রভা আর একটু সাহায্য-সহযোগীতা পেলে হয়তো সুস্থ্য হয়ে উঠতো। ক্যান্সারের মতো ভয়ংকর অসুখের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে বেঁচে যেতো! ছোট্ট ফুটফুটে শিশু প্রভা বাঁচতে চায়। হেসে-খেলে অন্য শিশুদের মতো স্কুলে যেতে চায়। কিন্তু তার সকল চলার পথে বাঁধা হয়ে উঠেছে ব্লাড ক্যান্সার এবং দারিদ্রতা।
২০১৯ সালে প্রভার ব্লাড ক্যান্সার ধরা পড়ে। তাকে চিকিৎসা করাতে তার দরিদ্র পিতা সদয় দাশ ভিটে-বাড়ি, সহায়-সম্বল বিক্রি করে দেয়। কিন্তু তাতেও চিকিৎসা খরচ না হওয়ায় বিষয়টি ২০১৯ সালের নভেম্বর মাসে গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়। তৎকালিন তালা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. ইকবাল হোসেন প্রভার সাহার্য্যার্থে সহায়তার হাত বাড়িয়ে দেন। তিনি উদ্যোগ নিয়ে শিশু প্রভার জন্য অর্থ সংগ্রহ করেন। সমাজের দানশীল ও মানবিক মানুষরা সহযোগীতার হাত বাড়িয়ে দেন। সেই সহযোগীতায় হতদরিদ্র পরিবারের ফুটফুটে শিশু প্রভা ভারত থেকে উন্নত চিকিৎসা নিয়ে অনেকটাই সুস্থ্যতা লাভ করে।
সেজুতি দাশ প্রভা’র পিতা উপজেলার বারাত গ্রামের হতদরিদ্র সদয় দাশ জানান, ২০১৯ সালে প্রভা অসুস্থ হলে তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। সেখানে প্রয়োজনীয় পরীক্ষায় ব্লাড ক্যান্সার ধরা পড়ে। পরে, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. ইকবাল হোসেন সহ সমাজের দানশীলদের সহযোগীতায় ওই বছরের ১নভেম্বর ভারতের ভেলরের সি.এম.সি হাসপাতালে প্রভাকে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসা নিয়ে প্রভা বেশ সুস্থ্য হয়ে উঠেছিল।
সদয় দাশ বলেন, ভেলরের অভিজ্ঞ ডাক্তারদের কাছ থেকে প্রথম পর্যায়ে চিকিৎসা করিয়ে প্রভা দীর্ঘদিন সুস্থ্য সুস্থ্য ছিল। কিন্তু চিকিৎসার ২ বছর হওয়ায় প্রভা আবারও অসুস্থ্য হয়ে পড়েছে। প্রভাকে পুরোপুরি সুস্থ্য করে তুলতে ২ বছর ডাক্তররা রক্ষনাবেক্ষন করবেন এবং ৭/৮ বছর পর্যবেক্ষন করবেন। এভাবে দীর্ঘ মেয়াদী চিকিৎসা করাতে পারলে প্রভা সুস্থ্য হয়ে যাবে বলে ভেলরের বিশেষজ্ঞ ডাক্তার জানিয়েছিলেন। কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতিতে প্রভাকে চিকিৎসা করিয়ে সুস্থ্য করে তুলতে আরও প্রায় ৮লক্ষ টাকার প্রয়োজন। যা যোগাড় করার সাধ্য প্রভার হতদরিদ্র পিতা-মাতার নেই। তাই বাধ্য হয়ে হতভাগ্য পিতা সদয় দাশ সমাজের বিত্তবান ও দানশীল ব্যক্তিদের নিকট আবারও সহযোগিতার হাত পেতেছেন। সকলে আর একটু সহযোগীতা করলে প্রভা সম্পূর্ন ভাবে সুস্থ্য হয়ে যেতে পারে। নিষ্পাপ প্রভা’র জন্য সহযোগিতা পাঠাতে ০১৭৩৬১২৭১৬৪ (বিকাশ) অথবা সোনালী ব্যাংক লি. তালা শাখার হিসাব নং : ২৮২০৯০১০২৩৪৪৮ ব্যবহার করা যাবে।

#