আর কত দরিদ্র হলে সরকারি সহযোগিতা পাবে রোকেয়া ?


235 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
আর কত দরিদ্র হলে সরকারি সহযোগিতা পাবে রোকেয়া ?
অক্টোবর ১৫, ২০১৯ তালা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অমিত কুমার ::

ভিক্ষুক মুক্ত বাংলাদেশ, ক্ষুদা হবে নিরুদ্দেশ। জমি আছে ঘর নেই সহ নানান সামাজিক প্রকল্প বর্তমান সরকার হাতে নিলেও তার আওতায় এর একটুও প্রভাব পড়েনি সাতক্ষীরার তালা উপজেলার সরুলিয়া ইউনিয়নে। ভিক্ষুক মুক্ত ইউনিয়ন। সকাল হলেই যেন ভিক্ষুকের বাজার। সামাজিক সুরক্ষায় বয়স্ক ভাতা,বিধবা ভাতা,ভি জি ডি,ভিজি এফ সহ বিভিন্ন সুবিধা প্রদান করা হলেও তার বেশির ভাগ ভোগ করছে বৃত্তশালী ও অর্থ যোগানদাতারা।জমি আছে ঘর নেই প্রকল্পের আওতায় এই ইউনিয়নে যারা সুবিধা ভোগ করছে তারা অবৈধ অর্থ যোগান দিয়ে জনপ্রতিনিধি সহ সরকারের সংশ্লিষ্ট কর্তাদের তুষ্ট করেছে।ফলে বাদ পড়েছে প্রকৃত অসহায়, দরিদ্র,হতদরিদরা। এমন অভিযোগ এ ইউনিয়নে বিভিন্ন মহলের মহল্লা মহল্লায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে। ভুক্তভুগিদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে এক অনুসন্ধানে এমন চাঞ্চল্যকর তথ্য বেরিয়ে এসেছে। অনুসন্ধানে দেখা গেছে অত্র ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা ছিলেন পাটকেলঘাটা বাজারের সবার পরিচিত মুখ ভিক্ষুক বাবর আলী। গত বছর খানিক পূর্বে বাবর আলীর মৃত্য হয়। তার কোন সন্তানাদি ছিলোনা ভিক্ষা করে এক মাত্র স্ত্রী রোকোয়া বেগম (৫৫) কে নিয়ে ছিলো তার জীবন সংগ্রাম। সরকারের সামাজিক সুরক্ষা বলতে একটি বয়ষ্ক ভাতার কার্ড পেয়েছিলেন বাবর আলী।তার মৃত্যুর পরে ঔ কার্ডের প্রাপ্ত টাকা দিয়ে কোন মতেই নুন পান্তা খেয়ে জীবন যাপন করছিল তার বিধবা স্ত্রী রোকেয়া বেগম।কিন্তু অসহয় ও দরিদ্র হওয়ায় বিধি-বাম। তার স্বামীর রেখে যাওয়া একমাত্র সম্বল বলতে বয়ষ্ক ভাতার কার্ডটির উপর নজর পড়ে স্থানিয়ও এক সদস্যের । গত ১০- ১০-১৯ ইং তাং বৃহঃবার দুপুর দু টায় বাইগুনী গ্রামের ভিক্ষুক বাবর আলী স্ত্রীর বাড়িতে গেলে এ প্রতিবেদকের সাথে কান্না জড়িত কণ্ঠে কথা গুলা জানাই।এ সময় অনুসন্ধানিচোখে ধরা পড়ে ছিন্ন কুঠিরে জিন্ন শরীরে কোন ভাবে বেচে আছে রোকেয়া বেগম।শুকনা তাল পাতার বেড়ায় কোন ভাবে মাথা গোজার ঠাই করেছে সে। বর্তমান সরকার হত দরিদ্র গৃহহীনদের বাসস্থানের ব্যাবস্থা করলেও অসহয় ভিক্ষুক বাবর আলীর বিধবা স্ত্রীর গৃহ এমন কি সামাজিক সুরক্ষা কোথায়!!
এ বিষয়ে ৫ নং ওয়ার্ডের সদস্য পরিতোষ দাশের কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, এক কুচক্রীমহল আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালাচ্ছে।
বিষটি সরুলিয়া ইউপি চেয়ারম্যান মতিয়ার রহমানের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, বাবর আলীর স্ত্রী রোকায়ার মত হতদরিদ্র সরুলিয়া ইউনিয়নে আর কেহ আছে বলে আমার জানা নাই, আমি ওয়ার্ডের মেম্বরকে বলেছি তাকে সবধরনের সরকারি সহযোগিতা করতে।এমন অবস্থায় রোকেয়ার দুর্দশার জীবন থেকে মুক্তি পেতে তালা উপজেলা নির্বাহী অফিসারে সহযোগিতার প্রয়োজন বলে মনে করে এলাকাবাসী।