আশাশুনিতে আমে মেশানো হচ্ছে বিষাক্ত কেমিক্যাল !


610 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
আশাশুনিতে আমে মেশানো হচ্ছে বিষাক্ত কেমিক্যাল !
মে ২৪, ২০১৮ আশাশুনি ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

এস,কে হাসান ::
আশাশুনি উপজেলার বাজারগুলো কেমিক্যাল মিশানো আমে সয়লাব হয়ে গেছে। ব্যবসায়ীরা কেমিক্যাল মিশানো আম ক্যারেটে ভরে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে সরবরাহ করে অবৈধ মুনাফার কারবারে ব্যস্ত সময় পার করছেন।
আশাশুনি উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে গাছে গাছে এখনও আম ঝুলছে। বিশেষ করে বুধহাটা, কুল্যা, দরগাহপুর, আশাশুনি, শোভনালী, শ্রীউলাসহ অন্যান্য ইউনিয়ন এবং পাশ্ববর্তী চাম্পাফুল ও ফিংড়ী ইউনিয়নে আমের বাগানে এখন আম পাড়ার ধুম চলছে। ব্যবসায়ীরা গাছ থেকে অপক্ক ও আধা পক্ত আম পেড়ে নির্দিষ্ট স্থানে বিছিয়ে এক ধরনের কেমিক্যাল স্প্রে করে থাকেন। এতে একই সাথে আম পেকে যায়, আমের রং খুব লোভনীয় হয়ে থাকে এবং আমের স্থায়ীত্ব দীর্ঘ হয়ে থাকে। স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর এসব কেমিক্যালের মধ্যে বেশি কদর রয়েছে ইথানল, ইথোফেন, রাইজার, ক্যালসিয়াম কার্বাইড এর প্রতি। এলাকার ঔষধের দোকান এবং সার ও কীট নাশকের দোকানে এসব কেমিক্যাল গোপনে বিক্রয় করা হয়ে থাকে। প্রতিদিন শত শত মন আম এসব ক্ষতিকর কেমিক্যাল মিশিয়ে ট্রাকে ভরে বাইরে চালান করা হচ্ছে। স্থানীয় বাজারগুলোতেও এসব আম বিক্রয় হচ্ছে। এলাকায় খোঁজ খবর নিয়ে জানাগেছে, আরিফুল, আহাদ, মজিদ, কবির, রুহুল আমিন, জিয়ারুল, আজহারুল, রিপন, জিয়াদ, গফফার, সিরাজুল, আমজেদ, কেসমত, মিলন, নজরুল, তায়জুল, রমজান, ইনতাজসহ বিভিন্ন এলাকায় অসংখ্য ব্যবসায়ী এসব কারবারের সাথে জড়িত রয়েছেন। সরকার যখন বিদেশে আম রপ্তানির বাজারকে ব্যাপক ভাবে সমৃদ্ধ করতে তৎপরতা চালাচ্ছেন। কৃষি বিভাগ কোন প্রকার কেমিক্যাল মিশ্রন ছাড়াই বিষমুক্ত আম রপ্তানিতে প্রশিক্ষণ, প্রচার ও মত বিনিময় করে যাচ্ছেন, সেখানে কিছু অসাধু ব্যবসায়ী সরকারের অর্জনকে ম্লান করে দিতে অবলিলাক্রমে অবৈধ কারবার করে যাচ্ছে।
উপজেলা সেনেটারী ইন্সপেক্টর জি এম গোলাম মোস্তফার সাথে কথা বললে তিনি জানান, আমে কেমিক্যাল মিশ্রন ঠেকাতে কঠোর ভাবে কাজ করা হচ্ছে। আমে কেমিক্যাল মিশ্রিত কিনা তা পরীক্ষার জন্য তাদের কাছে কোন যন্ত্র না থাকায় বিষয়টি নিয়ন্ত্রনে সমস্যা সৃষ্টি হচ্ছে বলে তিনি অভিমত ব্যক্ত করেন।
এব্যাপারে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহনের জন্য এলাকাবাসী উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
##