আশাশুনিতে চাঁদাবাজদের হাত থেকে রেহায় পেতে বৃদ্ধ’র সংবাদ সম্মেলন


375 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
আশাশুনিতে চাঁদাবাজদের হাত থেকে রেহায় পেতে বৃদ্ধ’র সংবাদ সম্মেলন
নভেম্বর ১৩, ২০১৮ আশাশুনি ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

 

আশাশুনি ব্যুরো :
বুধহাটা ইউনিয়ন বাস্তহারা লীগের সভাপতি বৃদ্ধ আব্দুর রহিম চাদাবাদদের হাত হতে রেহাই পেতে সংবাদ সম্মেলেনের মাধ্যমে পুলিশ প্রসাশনের সুদৃষ্টি কামনা করেছেন। পাইথালী বাজারাস্থ আব্দুর রহমানের তার নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে লিখিত বক্তব্য পাঠ ও সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান একই এলাকার পাইথালী গ্রামের গোপাল সানার পুত্র আলতাফ সানা, নওশের সানার পুত্র রহিম গাজী তার দলবল নিয়ে পাইথালী বাস্তহারা অফিসে বসে থাকা অবস্থায় আমার নিকট ৪ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবী করে। চাঁদা দিতে অস্বীকার করিলে আমাকে খুন করিবার উদ্দেশ্যে জোরপূর্বক অপহরন করার চেষ্টা করে। এসময় আমার সাথে থাকা লোক জন বাধা দেয়। বাধা না মানিয়া আমাকে ধরিয়া নিয়াযাইতে থাকে তখন আমার ডাকচিৎকারে লোকজন এসে পড়ে বিভিন্ন মহলে ফোন করে। তখন আসামীরা আমাকে মারপিট করিয়া চলিয়া যায়। তখন আমার স্বাক্ষীরা আমাকে নিয়া ডাক্তারের নিকট নিয়ে যায়। আেলতাফ সানা, পিতা- মৃতঃ গোপাল সানা, আঃ রহিম গাজী, পিতা- মৃতঃ নওশের গাজী, সর্ব সাং পাইথালী, মোঃ আব্দুল্লা মোড়ল , পিতা- মোঃ আরশাদ মোড়ল, গ্রাম- পদ্মবেউলা, সর্ব থানা- আশাশুনি, জেলা- সাতক্ষীরা ১০/১২জন ছিল। সে বর্তমানে আবারও হুমকি ধামকি ও চাদা দাবি করে আসছে। মোঃ আলতাফ সানা সহ তার বাহিনীর বিরুদ্ধে বিভিন্ন চাঁদাবাজী, হত্যা ও মারপিট মামলা রহিয়াছে। যাহা কিছু কেস নং দেওয়া হল। থানায় হত্যা মামলা নং ৪ তাং ১১/০২/৯৭, সি.আর.পি. ১২৪৫/২০০০ চাঁদাবাজী মামলা সি. আর. সি. ১৬৫৭/২০০১ মারামারী বিস্ফোরক দ্রব্য নন. এফ. আর ১০, তাং ৩০/১/২০০২ ডায়েরী নং- ১১৭৪ , তাং ২৫/১২/২০০১, ডায়েরী নং- ৭৫৯, তাং ১৮/১/২০০৩ চাঁদাবাজী মামলা নং ১৬, তাং ১৭/৫/২০০৪ খুন করার উদ্দেশ্যে সি.আর.পি. ১৪৮০/২০০১ চাঁদাবাজী ও বোমাবাজী মামলা নং- ৭, তাং ২৩/৬/২০০২, চাঁদাবাজী মামলা নং ১০/১৭৯, তাং ২১/১০/২০০৪ পথ রোধ করিয়া হত্যার উদ্দেশ্যে গুরুতর জখম মামলা নং ৪/১৯২, তাং ৭/১০/২০১৭ হত্যার উদ্দেশ্যে মারধর ও গুরুতর জকম মামলা ১৫/১৫৮ তাং ১৩/৭/২০১৫সহ আরও একাধিক মামলা রয়েছে। আফতাফ বাহিনীর বিরুদ্ধে আইনুনগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য প্রশাসনের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করছি।