আশাশুনিতে টিসিবির পণ্য পেতে ভোগান্তি


123 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
আশাশুনিতে টিসিবির পণ্য পেতে ভোগান্তি
মে ১৩, ২০২০ আশাশুনি ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

এস,কে হাসান ::

আশাশুনি উপজেলায় টিসিবি’র ন্যায্যা মূল্যে পণ্য বিক্রয় কার্যক্রম শুরু হয়েছে, শত শত মানুষ ঘন্টার পর ঘন্টা লাইনে দাঁড়িয়ে মাল না পেয়ে খালি হাতে ফিরতে বাধ্য হওয়ার বেদনা দায়ক ঘটনা ঘটেছে।
করোনা ভাইরাসের কারনে কর্মহীন শ্রমিক, সাধারণ মানুষ ও অসহায় গরীব মানুষের ন্যায্য মূল্যে খাদ্য চাহিদা পুরনের লক্ষ্যে সরকার টিসিবি পণ্য বিক্রয় কার্যক্রম শুরু করেছেন। সংস্থাপন মন্ত্রণালয়ের মাননীয় সচিব শেখ ইউসুফ হারুনের বিশেষ নির্দেশনা সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক এস এম মোস্তফা কামাল মহোদয় জেলার বাইরে উপজেলা গুলোতে টিসিবির মালাামল বিক্রয়ের উদ্যোগ গ্রহন করেন। যাতে তৃণমূল পর্যায়ের মানুষের কাছে সরকারি সুবিধা পৌছান সম্ভব হয়। বুধবার বুধহাটায় বিক্রয় কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন করেন, ইউপি চেয়ারম্যান ইঞ্জিঃ আব মোছাদ্দেক। উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ রাজিবুল হাসান পণ্য বিক্রয় পর্যবেক্ষন করেন। এরই আওতায় আশাশুনি উপজেলার মানুষের মধ্যে ডিলার সুভাষ চন্দ্র ঘোষের বৈশাখী এন্টারপ্রাইজ দু’দিন আশাশুনি সদরে ৩০০ জন করে ৬০০ জনকে এবং বুধবার বুধহাটা ইউনিয়ন পরিষদ চত্বরে ২০০ জনকে ৫ কেজি সোয়াবিন তেল, ৩ কেজি চিনি ও এক কেজি করে মশুর ডাল ৬০০ টাকা মূল্যে বিক্রয় করে। পণ্য কিনতে আসা শত শত মানুষ দীর্ঘ সময় লাইনে দাড়িয়ে থেকে মাল ফুরিয়ে যাওয়ায় মালা না পেয়ে বিফল মনোরফ হয়ে বাড়ি ফিরতে বাধ্য হন।
আশাশুনির সকল এলাকায় পণ্যের চাহিদা ব্যাপক, কিন্তু সরবরাহ নগন্য হওয়ায় ক্রেতাদের ফিরে যাওয়ার ঘটনা ঘটছে। এতে মানুষ চরম ভাবে হয়রানির স্বীকার হচ্ছে। প্রতিদিনি প্রত্যেক ইউনিয়নে অন্ততঃ দুটি স্পটে দ্বিগুণ পরিমাণ পণ্য বিক্রয়ের ব্যবস্থা করার জন্য অবিজ্ঞ মহল দাবী জানিয়েছেন। এব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যান ইঞ্জিঃ আ ব ম মোছাদ্দেক জানান, চাহদিার তুলনায় মালামাল কম থাকায় মানুষকে ফিরে যেতে হয়েছে। খুবই খারাপ লেগেছে। জেলা প্রশাসক মহোদয়কে বিষয়টি আমলে নিয়ে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য তিনি জোর দাবী জানান।