আশাশুনিতে মিথ্যা মামলা থেকে রক্ষা পেতে সংবাদ সম্মেলন


166 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
আশাশুনিতে মিথ্যা মামলা থেকে রক্ষা পেতে সংবাদ সম্মেলন
মার্চ ১০, ২০২০ আশাশুনি ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

এস কে হাসান ::

আশাশুনিতে প্রতিপক্ষ কর্তৃক মিথ্যা মামলা দিয়ে কোনঠাষা করা ও অহেতুক হয়রানীর হাত থেকে রক্ষা পেতে হয়রানীর শিকার ব্যক্তিবর্গ সংবাদ সম্মেলন করেছেন। মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টায় আশাশুনি প্রেসক্লাবে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।
লিখিত বক্তব্য ও সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে বুধহাটা গ্রামের মৃত আলি বক্স সরদারের ছেলে লিয়াকত আলি বলেন, তিনি দীর্ঘ ১৬/১৭ বছর যাবত বুধহাটা বাজারের হাইস্কুল সড়কের পাশে জেলা পরিষদের জায়গা ডিসিআর নিয়ে শান্তিপূর্ণ ভাবে ভোগ দখল ও ব্যবসা পরিচালনা করে আসছেন। কিন্তু উক্ত সরকারী সম্পত্তি বে-আইনী জবর দখল নিতে তার আপন ভাই আবুল কাসেম সরদার ও তার সঙ্গীরা মরিয়া হয়ে উঠেছেন। তারা বিগত দিনে তার (লিয়াকত) দোকান ঘরের মালামাল লুট করে তাকে সর্বশান্ত করে। এব্যাপারে তিনি (লিয়াকত) বাদী হয়ে দ্রুত বিচার আইনে একটি মামলা দায়ের করেন। যা বর্তমানে বিচারাধীন রয়েছে। এতে উক্ত আবুল কাসেম সরদার ক্ষিপ্ত হয়ে সাতক্ষীরা এডিএম কোর্টে পি-১৪১৯/১৮, মানী-০১/১৬, এডিসি কোর্টে মিস আফিল ০২/১৯ ও ৮৪/১৮ দেওয়ানী মামলা দায়ের করেন। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত বুধহাটা গ্রামের মোসেল উদ্দীন সরদারের ছেলে মোস্তাক সরদার, জহুরুল ইসলাম, মোজাম সরদার, তোফায়েল সরদার, আলেখ গাজীর ছেলে ইলিয়াছ হোসেন, এখলেছুর রহমান সাংবাদিকদের বলেন, তারা এলাকার নিরীহ সাধারণ মানুষ। তারা প্রত্যেকে বিভিন্ন সৎ কর্মের সাথে জড়িত। উক্ত আবুল কাসেম ও তাদের সহযোগি রফিকুল ইসলাম ঢালীর যন্ত্রনায় তারা অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে। অত্যাচারের প্রতিবাদ করায় তারা কৌশলে মোস্তাক সরদারকে ৫টি পৃথক পৃথক মামলায় ফাঁসিয়ে দেয়। এছাড়া জহুরুল ইসলামের নামে ২টি, মোজাম হোসেনের নামে ১টি, তোফায়েল হোসেনের নামে ১টি পৃথক পৃথক মামলায় ফাঁসিয়েছে। অত্যাচারীদের মিথ্যা মামলা থেকে পরিত্রান পেতে সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন ভুক্তভোগীরা।

#