আশাশুনিতে সাংবাদিক মুজিবরের ভাই রেজাউলের দাফন সম্পন্ন


154 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
আশাশুনিতে সাংবাদিক মুজিবরের ভাই রেজাউলের দাফন সম্পন্ন
আগস্ট ৭, ২০১৯ আশাশুনি ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

এস,কে হাসান ::

আশাশুনি প্রেস ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি জি এম মুজিবুর রহমানের ভাই রেজাউল ইসলাম গাজী (৪৮) ইন্তেকাল করেছেন। (ইন্নালিল্লাহি অইন্না ইলায়হি রাজেউন)। মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১০ টার দিকে তিনি সড়ক দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হয়ে ইন্তেকাল করেন।
উপজেলার বুধহাটা ইউনিয়নের নওয়াপাড়া গ্রামের মৃত আতিয়ার রহমান গাজীর ৫ম পুত্র রেজাউল ইসলাম গ্রামের মসজিদে এশার নামাজ আদায় করে গ্রামের দক্ষিণ পাড়ায় তার মৎস্য ঘেরে যাচ্ছিলেন। এসময় দ্রুত গতির মটর সাইকেলে তাকে প্রচন্ড বেগে ধাক্কা দিলে মুমূর্ষূ অবস্থায় এ্যাম্বুলেন্স যোগে তাকে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত্যু ঘোষণা করেন। রাতেই তাকে বাড়িতে ফিরিয়ে আনা হয়। বুধবার বাদ জোহর নওয়াপাড়া আহলে হাদীছ জামে মসজিদ চত্বরে নামাজে জানাযা শেষে পারিবারকি কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়। জানাযাপূর্ব আলোচনায় অংশ নেন, সাতক্ষীরা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক আলহাজ¦ নজরুল ইসলাম, সাতক্ষীরা জেলা আহলে হাদীছ যুব সংঘের সভাপতি মাওঃ মুজাহিদুর রহমান, আশাশুনি উপজেলা আহলে হাদীছ আন্দোলনের সভাপতি অধ্যাপক হাবিবুল্লাহ বাহার, মসজিদের ইমাম প্রমুখ। জানাযা নামাজে ইমামতি করেন, জেলা জমঈয়তে আহলে হাদীছের সভাপতি অধ্যাপক ওবায়দুল্লাহ গযনফর। নামাজে জানাযায় সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান এড. শহিদুল ইসলাম, ফিংড়ী ইউপি চেয়ারম্যান মরহুমের ভগ্নিপতি শামসুর রহমান, কুল্যা ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল বাছেত আল হারুন চৌধুরী, সাবেক চেয়ারম্যান আলহাজ¦ আব্দুল হান্নান, আ’লীগ নেতা অধ্যাপক মাহবুবুল হক ডাবলু, জলিল উদ্দিন ঢালী, আলহাজ¦ ডাঃ গাউসুল হক, আহলে হাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ কর্মকর্তা আলহাজ¦ কেরামত হোসেন, মরহুমের ভ্রাতা আলহাজ¦ আজিজুর রহমান, আলহাজ¦ হাবিবুর রহমান, মাওঃ মুজিবুর রহমান, আলহাজ¦ আব্দুল কুদ্দুছ, এনামুল হক, আশাশুনি প্রেস ক্লাব ও সাংবাদিক নেতৃবৃন্দের মধ্যে জি এম আল-ফারুক,সমীর রায়, এস কে হাসান, মাসুদুর রহমান, আকাশ হোসেন,সোহরাব হোসেন, গোলাম মোস্তফা, সাংবাদিক সোহরাব হোসেন, ফায়জুল কবির, শেখ আরাফাতসহ বিভিন্ন এলাকার বহু আলেম, হাজী, শিক্ষক, জন প্রতিনিধি, রাজরীতিবিদ এবং সর্বস্তরের মানুষ অংশ নেন। মৃতকালে তিনি স্ত্রী, ১ পুত্র ও ১ কন্যাসহ বহু আত্মীয়-স্বজন রেখে গেছেন।