আশাশুনির চেচুয়ায় প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে নিজের রান্না ঘর নিজেই জ্বালিয়ে দিল !


342 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
আশাশুনির চেচুয়ায় প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে নিজের রান্না ঘর নিজেই জ্বালিয়ে দিল !
ডিসেম্বর ১৮, ২০১৫ আশাশুনি ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

গোপাল কুমার, আশাশুনি ব্যুরো :
আশাশুনির চেচুয়ায় প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে নিজের রান্না ঘর আগুন জ্বালিয়ে পুড়িয়ে দিল মামলাবাজ ইকবাল হোসেন নিজেই। ঘটনাটি ঘটেছে, শুক্রবার দুপুরে উপজেলার আনুলিয়া ইউনিয়নে চেচুয়া গ্রামে। সরেজমিনে ঘুরে ও প্রত্যক্ষদশি সূত্রে জানাগেছে, চেচুয়া গ্রামের আব্দুল মজিদ সরদারের সঙ্গে একই গ্রামের ইকবাল হোসের এর কিছুদিন যাপন জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছিল। এই বিরোধ নিষ্পত্তির জন্য কয়েকদিন আগে স্থানীরা মিলে সরকারি আমিন দ্বারা মাপজরীপ করে সীমানা নিন্ধারণ করা হয়। সে মোতাবেক আব্দুল মজিদ সরদার সীমা বরাবর বাঁশদ্বারা ঘেরা বেড়াদেন। কিন্তু ইকবাল হোসেন ও তার পক্ষীয় লোকজন সেটি না মেনে প্রতিপক্ষ মজিদকে ঘায়েল করতে নিজের রান্না ঘর তার বড় পুত্র জাহিদকে দিয়ে ধরিয়ে দেয়। প্রকৃত জমির মালিক আবু দাউদ আমাদের এ প্রতিবেদনকে জানায় বিগত ২০ বছরাধিক আগে তিনি এওয়াজ সূত্রে জমিটি আব্দুল মজিদ বরাবর হস্তান্তর করেন। সেই ধরে তিনি ভোগ ও দখল করে আসছেন। ইকবালের ছোট ছেলে  জাকারিয়াকে রান্না ঘর পুড়ে যাওয়ার ব্যাপারে জানতে চাইলে উপস্থিত সকলের সামনে বলেন, আমি জানিনা, আমি ঘরে ভাত খাচ্ছিলাম। বাহিরে তাকিয়ে দেখি আমার ভাইয়া দাড়িয়ে আছে রান্না ঘর জ্বলছে। অন্য কোন ব্যক্তি সেখানে ছিল কিনা প্রশ্ন জবাবে বলেন আমি আর কাউকে দেখিনি। এ ঘটনায় ইকবালকে বাড়ী না পেয়ে মোবাইলে তার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান প্রতিপক্ষ মজিদ সরদার জ্বালিয়ে দিয়েছে। মজিদ সরদারের পরিবার সূত্রে জানা যায় তার সামাজিকভাবে হেয় পতিপন্ন করার জন্য রাজাকারের বংশধর নিজেরাই ঘর জ্বালিয়ে আমাদের দোষারুপ করছে।