আশাশুনির জামায়াত নেতা রফিকুলের অত্যাচারে এলাকাবাসি অতিষ্ঠ


326 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
আশাশুনির জামায়াত নেতা রফিকুলের অত্যাচারে এলাকাবাসি অতিষ্ঠ
সেপ্টেম্বর ৭, ২০১৮ আশাশুনি ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

ইব্রাহিম খলিল ::
জামায়াত নেতা ও ভুমিদস্যু রফিকুল হাসানের অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে সাতক্ষীরাবাসি। একাধিক নাশকতার মামলা থাকলেও বহাল তবিয়াতে রয়েছে এই জামায়াত নেত। এলাকার সাধরণ মানুষের জমি দখল থেকে শুরু করে এহেন কোন অপকর্ম নেই তিনি করেন না।
এলাকাবাসি জানান, আশাশুনি উপজেলার শ্রীউলা ইউনিয়নের শ্রীউলা গ্রামের মৃত ফজলুর রহমান সরদারের ছেলে রফিকুল হাসান দীর্ঘদিন পলাতক থাকার পর এলাকায় এসে হিন্দুদের জমি দখল থেকে শুরু করে সমস্ত অপকর্ম পুনরায় শুরু করেছে। সে বিগত আশাশুনি উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে জামায়াত মনোনীত ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ছিল।
তার নামে সাতক্ষীর জুডিশিয়াল আদালতে সি আর ২৪১/০৮নং মামলা রয়েছে ধারা ৪৪৭/৪৪৮/৩৮০,সিনিয়র জুডিশিয়াল আদালতে সিআর ৬১/০৮ নং মামলা রয়েছে এছাড়া জিআর ১০৮/ ০৭ মামলা রয়েছে।

শ্রীউলা গ্রামের কার্তিক দাশ জানান, তার বাপ দাদার পৈত্রিক সম্পত্তি দীর্ঘদিন ভোগদখল করে আসাছে। হঠাত করে জামায়াত নেতা রফিকুল হাসান গোপনে জাল কাগজ পত্র তৈরি করে আমার জমি দখল করতে যায়। স্থানীয় পর্যায়ে না পেরে আমার নামে আদালতে ভুয়া মামলা করে আমাকে হয়রানি করছে। শুধু আমি না এলাকায় বহু লোকের মিথ্যা ও হয়রানি মুলক মামলা দিয়ে অতিষ্ঠ করে তুলছে।

আশাশুনি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বিপ্লব কুমা নাথ জানান, জামায়াত করে কেউ ছাড় পাবেন। সাধারন মানুষকে হয়রানি কারি জামায়াত নেতা রফিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যাবস্থা গ্রহন করা হবে বলে তিনি জানান।