আশাশুনির বেকার যুবকদের চোখে কর্মসংস্থানের স্বপ্ন


412 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
আশাশুনির বেকার যুবকদের চোখে কর্মসংস্থানের স্বপ্ন
মার্চ ১৪, ২০১৭ আশাশুনি
Print Friendly, PDF & Email

মাসুদুর রহমান মাসুদ, আশাশুনি ::
বাংলাদেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের একটি পশ্চাৎপদ উপজেলা আশাশুনি। এখানে কর্মসংস্থানের জন্য নেই কোন কলকারখানা বা বড় ধরনের শিল্প প্রতিষ্ঠান। মৎস্য চাষী এলাকা প্রধান আয়ের উৎস্য হলেও গরীব ও মধ্যবিত্ত পরিবারের যুবক যুবতীরা অর্থাভাবে সে পেশায় নিয়জিত হতে পারে না।

ফলে বেকারত্ব যেন তাদের জীবনে অভিশাপ হয়ে দেখা দিতে বসেছিল। কেউ কেউ স্বীয় প্রচেষ্টায় বিভিন্ন উপায়ে স্বাবলম্বী হওয়ার চেষ্টা করলেও তাদের বেশিরভাগই মাঝ পথে নানা সংকটে মুখ থুবড়ে পড়ে। আর চাকরী যেন তাদের কাছে সোনার হরিণ।

বাংলাদেশ সরকারের ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মসূচীর (৫ম পর্যায়ের) আওতায় আশাশুনি উপজেলা অন্তর্ভূক্ত হওয়ায় উপজেলার বেকার যুবক-যুবতীদের মুখে হাসি ফুটতে শুরু করেছে।

কর্মসংস্থানের আশায় ইতোমধ্যে ২০১১ জন যুবক-যুবতী ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মসূচীতে অন্তর্ভূক্তির আবেদন করেছে। উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা এসএম আজিজুল হক জানান, আবেদনকারীদের এ কর্মসূচীতে অন্তর্ভূক্ত করতে ইতোমধ্যে আবেদনপত্র যাচাই বাছাই সম্পন্ন হয়েছে।

আগামী ১৯/০৩/১৭ তারিখ থেকে ২৩/০৩/১৭ তারিখ পর্যন্ত ৫ ধাপে আবেদনকারীদের মৌখিক পরীক্ষা গ্রহণ করা হবে। এর মধ্যে ০১ থেকে ৩০০ সিরিয়ালধারীদের ১৯/০৩/১৭ তারিখ, ৩০১ থেকে ৭০০ সিরিয়ালধারীদের ২০/০৩/১৭ তারিখ, ৭০১ থেকে

১১০০ সিরিয়ালধারীদের ২১/০৩/১৭ তারিখ, ১১০১ থেকে ১৫০০ সিরিয়ালধারীদের ২২/০৩/১৭ তারিখ এবং ১৫০১ থেকে ২০১১ সিরিয়াধারী আবেদনকারীদের ২৩/০৩/১৭ তারিখে মৌখিক পরীক্ষা গ্রহন করা হবে। পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের উপজেলার বিভিন্ন সরকারি দপ্তরে ২ বছরের জন্য অস্থায়ীভাবে নিয়োগ দেয়া হবে।

এ ক্ষেত্রে নিয়োগপ্রাপ্তদের ৩ মাসের মৌলিক প্রশিক্ষণ গ্রহণ করতে হবে। আবেদনকারী কয়েকজন বেকার যুবকের সাথে এ প্রতিবেদকের কথা হলে তারা জানান, ন্যাশনাল সার্ভিক কর্মসূচীর কার্যক্রম এ উপজেলায় চালু হওয়ায় তারা অনেক খুশি।

বর্তমান সরকারের এ কর্মসূচীকে সাধুবাদ জানিয়ে তারা বলেন স্বল্প সময়ের জন্য হলেও তারা বেকারত্বের অভিশাপ থেকে মুক্ত হতে পারবে। তাই কর্মসংস্থানের স্বপ্নে তারা দিন গুনতে শুরু করেছে।
##
এড. আরিফ আর নেই
আশাশুনির সাংবাদিক শেখ বাদশার খালাত ভাই কুল্যা ইউনিয়নের আগরদাড়ী গ্রামের মৃতঃ আব্দুল খালেকের পুত্র এড. আরিফুল হক ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহি …… রাজিউন)। সাতক্ষীরা জজ কোর্টের আইনজীবি আরিফুল প্যারালাইসিস এ আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

মঙ্গলবার দুপুর ২টার দিকে তিনি ইন্তেকাল করেন। মৃতকালে তার বয়স হয়েছিল ৫৫ বছর। মৃতকালে তিনি মা, স্ত্রী ও ২ কন্যা রেখে গেছেন। বুধবার সকাল ১০টায় মরহুমের নিজ বাড়ী আগরদাড়ীতে জানাযা নামাজ অনুষ্ঠিত হবে।
##