আশাশুনির শ্রীউলায় আ’লীগের দলীয় মনোনয়নকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের সংঘর্ষে ১২ জন জখম


398 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
আশাশুনির শ্রীউলায় আ’লীগের দলীয় মনোনয়নকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের সংঘর্ষে ১২ জন জখম
ফেব্রুয়ারি ২০, ২০১৬ আশাশুনি ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

আসাদুজ্জামান :
সাতক্ষীরা জেলার আশাশুনি উপজেলার শ্রীউলা ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের দলীয় মনোনয়ন কে কেন্দ্র করে উভয় পক্ষের সংঘর্ষে ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবু হেনা সাকিলসহ কমপক্ষে ১২ জন জখম হয়েছে। এদের মধ্যে ৬ জনের অবস্থা আশংকাজনক বলে জানাগেছে।

শনিবার সকাল ৯ টার দিকে আশাশুনি উপজেলার শ্রীউলা ইউনিয়নের মহিষকুড়  নামকস্থানে এ ঘটনাটি ঘটে।

এ ঘটনায় আরিছ, ইয়াছিনসহ ৩ জনকে আটক করা হয়েছে।

আহতরা হলেন চেয়ারম্যান আবু হেনা মো.সাকিলুর রহমান, তার শিশু পুত্র সৌরভ রায়হান, সিরাজুল ইসলাম, শামীম হোসেন ও রবিউল ইসলামসহ ১২ জন।

চেয়ারম্যান আবু হেনা মো.সাকিলুর রহমান জানান, তিনি সকালে মহিষকুড় মুক্তিযোদ্ধা অফিসে বসে তার সমর্থকদের নিয়ে গল্প করছিলেন। এ সময় ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান নুর মোহাম্মাদের নেতৃত্বে তার বাহিনী রামদা চাপাতি জিআইপাইপ দিয়ে কুপিয়ে মারাত্মক জখম করে। তিনি আরও বলেন শ্রীউলা ইউনিয়ন পরিষদে আওয়ামীলীগের দলীয় মনোনয়ন পাওয়ায় নুর মোহাম্মাদ গ্রুপের লোকজন তার উপর ক্ষিপ্ত ছিল। এ কারনে তারা  দলীয় সমার্থদের উপর হামলা করা হয়েছে। এ ঘটনায় তিনি নিজেসহ ছয় জনের অবস্থা আশংকাজনক। বর্তমানে আহতরা আশাশুনি ও সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েে ছন।

ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান নূর মোহাম্মদ জানান, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের নীতিমালা ও তৃণমূলের পূর্ণ সমর্থনে তিনি আওয়ামী লীগের একক দলীয় প্রার্থী। কিন্তু ঢাকাতে যাওয়ার পর তাকে বাদ দিয়ে আবু হেনা মো: সাকিলুর রহমানের নাম চুড়ান্ত করা হয়েছে। শনিবার সকালে আমার সমর্থকদের ওপর হামলা চালায় সাকিলের সমর্থকরা।

আশাশুনি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি আসাদুজ্জামান জানান, ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।