আশাশুনি সংবাদ ॥ অসহায় নাজমা পরিবারের সংবাদ সম্মেলন


300 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
আশাশুনি সংবাদ ॥ অসহায় নাজমা পরিবারের সংবাদ সম্মেলন
ফেব্রুয়ারি ৩, ২০১৯ আশাশুনি ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

এস,কে হাসান ::

আশাশুনি উপজেলা সদরের ধান্যহাটি গ্রামের অসহায় নাজমা বেগম এর পরিবারের পক্ষ থেকে হয়রানী থেকে মুক্তি ও শান্তিপূর্ণ জীবন যাপনে সহায়তা প্রার্থনা করে সংবাদ সম্মেলন করা হয়েছে। রবিবার সকালে কুল্যা ইউনিয়নের বাহাদুরপুর গ্রামে নাজমার খালাত ভাই পলাশ হোসেনের বাসভবনে এ সংবাদ সম্মেলন করা হয়।
লিখিত বক্তব্য ও সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে পলাশ হোসেন, নাজমা বেগম ও তার স্বামী আঃ রশিদ জানান, তারা কৃষিজীবি সাধারণ পরিবারের মানুষ। নাজমার পিতা মহান স্বাধীনতা যুদ্ধের গর্বিত সৈনিক মৃত নূর মোহাম্মদ গাইন। তার মুক্তিবার্তা নং ০৪০৪০৭০২০৫। ধান্যহাটি গ্রামের মৃত ধর্মদাশ চক্রবর্তীর পুত্র দেবব্রত ও তাপস চাকরির জন্য টাকার প্রয়োজন হওয়ায় তাদের কাছ থেকে জমি বিক্রয় করার জন্য ব্যাংকের চেক জমা রেখে মোট ৩৩ লক্ষ ৭১ হাজার টাকা গ্রহণ করেন। পরবর্তীতে জমি লিখে না দেওয়ায় এবং টাকা ফেরৎ না দেওয়ায় চেক ব্যাংক থেকে ডিজঅনার হলে লিগ্যাল নোটিশ করা হয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে এবং টাকা পরিশোধ না করার উদ্দেশ্যে তারা ষড়যন্ত্র শুরু করেন। তারাসহ তাদের সহযোগি গোপাল অধিকারীর পুত্র বাবলু, তারক চন্দ্র সরকারের পুত্র আশু, সুখলাল সরকার, কালিপদ সরকারের পুত্র বিজন দলবদ্ধ হয়ে মিথ্যা অভিযোগ ও তথ্য প্রকাশ করিয়ে হয়রাণি শুরু করেন। তাদের অত্যাচারে তারা বাড়ি ছাড়া হয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছেন। এ সুযোগে তারা তাদের ঘরে আগুন দিয়ে লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি করেছেন অভিযোগ করে তারা বলেন, তাদেরকে মাদক দ্রব্য দিয়ে কিংবা অন্য কিছু মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে জেলের ঘানি টানানোসহ বিভিন্ন ভাবে হুমকী ধামকী দেওয়া হচ্ছে। তারা প্রাণের ভয়ে বাড়িতে বসবাস করতে পারছেন না। এব্যাপারে আইন প্রয়োগকারী সংস্থাসহ উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করা হয়েছে।

#

আশাশুনিতে নিরাপদ খাদ্য দিবস পালন

এস,কে হাসান ::

আশাশুনিতে নিরাপদ খাদ্য দিবস উপলক্ষে র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার সকালে উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা খাদ্য অধিদপ্তরের আয়োজনে দিবসটি পালন করা হয়।
সকাল ৯ টায় উপজেলা পরিষদ চত্বর থেকে র‌্যালী বের করা হয়। “সুস্থ সবল জাতি চাই, পুষ্টি সম্মত নিরাপদ খাদ্যের বিকল্প নাই” প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে র‌্যালীটি বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে পুনরায় উপজেলা পরিষদ চত্বরে গিয়ে শেষ হয়। পরে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মীর আলিফ রেজার সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন, উপজেলা খাদ্য কর্মকর্তা আবু হেনা মোস্তফা কামাল, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা সোহাগ খান, মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ বাকী বিল্লাহ ও সদর ইউপি চেয়ারম্যান স ম সেলিম রেজা মিলন।

#

কুল্যায় হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্দ হয়ে শ্রমিকের মৃত্যু

এস,কে হাসান ::

আশাশুনি উপজেলার কুল্যা ইউনিয়নের বাহাদুরপুর গ্রামে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে ইমারত নির্মান শ্রমিক ইন্তেকাল করেছেন। (ইন্নালিল্লাহি অইন্না ইলায়হি রাজেউন)।
বাহাদুরপুর গ্রামের মৃত আফিল উদ্দিন গাজীর পুত্র ছলেমান গাজী, আমিন উদ্দিন নামে এক ইমারত নির্মান মিস্ত্রীর সহযোগি হিসাবে কাজ করতেন। শনিবার বিকালে কাজ করাবস্থায় তিনি অসুস্থ হয়ে পড়লে স্থানীয় চিকিৎসকের কাছে চিকিৎসা দেওয়া হয়। পরে তার বাড়িতে নিয়ে পুনরায় স্থানীয় চিকিৎসকের কাছে চিকিৎসা নেওয়ার এক পর্যায়ে হাসপাতালে নেওয়ার পথে রাত্র ১০ টার দিকে তিনি ইন্তেকাল করেন। রবিবার বাদ আসর নামাজে জানাযা শেষে মরহুমের দাফন সম্পন্ন করা হয়।

#

আশাশুনির সকল স্কুল-মাদরাসায় বঙ্গবন্ধু
ও বাংলাদেশ কর্ণার উদ্বোধন

এস,কে হাসান ::

আশাশুনি উপজেলার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ কর্ণার এবং এসডিজি কর্ণার উদ্বোধন করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার আনুষ্ঠানিক ভাবে উদ্বোধন করা হয় এবং রবিবার সকল প্রতিষ্ঠানে উদ্বোধন কাজ সম্পন্ন হয়েছে।
জেলা প্রশাসক এস এম মোস্তফা কামালের নির্দেশনা মোতাবেক উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা শিক্ষা দপ্তর উপজেলার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কর্ণার উদ্বোধনের ব্যবস্থা করেন। উপজেলার ১৬৭টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ৭টি বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ৫টি কিন্ডার গার্টেন স্কুল এবং ৭০ টি মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও উপজেলার সকল মাদরাসায় দৃশ্যমান স্থানে ব্যানার স্থাপন করে সামঞ্জস্যপূর্ণ দ্রব্য, ছবি ইত্যাদি প্রদর্শণের ব্যবস্থা করে কর্ণার উদ্বোধন করা হয়। আশাশুনি সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে কর্ণারের শুভ উদ্বোধন করেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মীর আলিফ রেজা। এসময় উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ বাকী বিল্লাহ ও প্রধান শিক্ষক আশরাফুন নাহার নার্গিসসহ সকল শিক্ষকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। আশাশুনি মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কর্ণারের উদ্বোধন করেন ইউআরসি ইন্সট্রাক্টর।

#