আশাশুনি সংবাদ ॥ ইটভাটায় মোবাইল কোর্টে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা


337 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
আশাশুনি সংবাদ ॥ ইটভাটায় মোবাইল কোর্টে  ৩০ হাজার টাকা জরিমানা
ফেব্রুয়ারি ৬, ২০১৯ আশাশুনি ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

এস,কে হাসান ::

আশাশুনি উপজেলার বড়দলে একটি ইট ভাটায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে জরিমানা ও ইট পানি দিয়ে ভিজিয়ে নষ্ট করা হয়েছে। বুধবার দুপুরে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে কোর্ট পরিচালনা করা হয়।
বড়দল ইউনিয়নের ভরাট হয়ে যাওয়া কপোতাক্ষ নদের চরে চাঁদখালী গ্রামের সোবহান সরদার ও শাহাদাৎ হোসেন “আর এস ডি ব্রীক্স” নামে একটি ইট ভাটা স্থাপন করে কয়েক বছর যাব্ৎ ইটের ব্যবসা করে আসছেন। পাশে বড়দল গ্রামের রবিউল ইসলাম “এ এস এস” ব্রীকস ও চাঁদখালী গ্রামের নজরুল ইসলাম “এ কে এস” ব্রীক্স নামে আরও দু’টি ভাটা স্থাপন করেছেন। এসব ভাটায় টিন দিয়ে সাধারণ চিমনী ব্যবহার করা হয়ে আসছে। ইতিপূর্বে কয়েক বার মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে কয়েকবার জরিমানা করা হলেও তারা কেউ নিয়ম মেনে ভাটা পরিচালনা করছেন না। বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সজল মোল্যার নেতৃত্বে ফায়ার সার্ভিসের একটি টিম ও পুলিশ দল নিয়ে বুধবার আরএসডি ব্রিক্সে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হয়। এসময় পরিবেশ বান্ধব ফিট চিমনির পরিবর্তে টিনের চিমনী ব্যবহার করার অপরাধে ভাটা মালিককে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করা ও চিমনি ভেঙ্গে দেওয়া হয়। একই সাথে ২ লক্ষাধিক কাচা ইট ফায়ার সার্ভিসের দম কলের সাহায্যে পাানি ছুড়ে বিনষ্ট করা হয়। পাশের ‘এএসএস’ ব্রীক্স ও ‘একেএস’ ব্রীক্স-এ মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হয়নি। পরবর্তীতে সেখানে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হবে বলে জানাগেছে। এসময় এলাকার বহু মানুষ, জন প্রতিনিধি, সাংবাদিক সেখানে উপস্থিত ছিলেন।

#

খরিয়াটি হাই স্কুলে ১৫ জনের মনোনয়নপত্র দাখিল

এস,কে হাসান ::

আশাশুনি উপজেলার দরগাহপুর ইউনিয়নের খরিয়াটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে এসএমসি নির্বাচনে ১৫ জন মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। মঙ্গলবার মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিনে মনোনয়নপত্র দাখিল করেন প্রার্থীরা।
অভিভাবক সদস্য (সাধারণ) পদে ডাঃ মতিয়ার রহমান, মাসুদ রানা, সাবান আলি জোয়ার্দ্দার, আঃ রাজ্জাক মলঙ্গী, আবু তাহের, আঃ সালাম জোয়ার্দ্দার, নজরুল ইসলাম মোড়ল, মেহদী হাসান ও ইনামুল হক মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। শিক্ষক প্রতিনিধি পদে মোস্তাফিজুর রহমান, সরদার মুজিবুর রহমান, তারাপদ সরকার ও মাহফুজা খাতুন এবং সংরক্ষিত মহিলা অভিভাবক সদস্য পদে মনিরা পারভিন মনি ও আকলিমা খাতুন মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন। আগামী ১৯ ফেব্রুয়ারি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

#

তালাক দেওয়া স্ত্রীর নাজেহালে উদ্বিগ্ন প্রবাসী স্বামী

এস,কে হাসান ::

আশাশুনি উপজেলার এক প্রবাসী তার স্ত্রীকে তালাক দেওয়ার পরও স্ত্রীর ষড়যন্ত্রে নাজেহালের শিকার হচ্ছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
আশাশুনি উপজেলার বুধহাটা গ্রামের মৃত আঃ ছাত্তারের কন্যা সালমা খাতুনের সাথে ২০১৪ সালে বাহাদুরপুর গ্রামের মাহমুদ আলির বিয়ে হয়েছিল। বিয়ের পর স্বামী মাহমুদ ওমানে চলে যায়। স্বামীর অনুপস্থিতিতে স্ত্রী শিক্ষক সালমা পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়ে এবং তাদের বিয়ের কাগজপত্র সরিয়ে ফেলে মাহমুদ আলিকে স্বামী হিসাবে মানতে রাজী ছিলনা। এছাড়া সালমা সন্তান প্রসবের পর মিথ্যা তারিখের কাগজপত্র দেখিয়ে ছুটি ভোগের অভিযোগ উঠলে সহকারী শিক্ষা অফিসার তখন তদন্ত করেছিলেন। তদন্তে তঞ্চকতা প্রমানিত হয়। পরবর্তীতে ঝালকাটি জেলার কাঠালিয়া উপজেলার দঃ চেচরী গ্রামের ফেরদাউস হোসেনের সাথে সালমার বিয়ে হয়েছিল। বিয়ের পর বনিবনা না হওয়ায় ম্যারিজ রেজিস্ট্রার মাওঃ মোঃ আঃ হাই এর মাধ্যমে ২৩/০৮/১৭ তাং বাংলাদেশ ডাক বিভাগ রেজিস্ট্রি রশিদ নং ৩৫৩ ও ৩৫৪ নং রেজিঃ ডাকযোগে ফেরদাউস হোসেন তার স্ত্রী সালমা খাতুনকে ও ইউপি চেয়ারম্যান বুধহাটা ইউনিয়ন পরিষদ বরাবর পৃথক দুটি তালাকের নোটিশ প্রেরণ করেন। স্ত্রী ও সন্তানের ভরণপোষন খরচ বাবদ তিনি ৪১৪২ নং মনি অর্ডার মারফৎ ২১/৯/১৭ তারিখে ২ হাজার টাকা এবং ২৮৮১ মানি অর্ডার মারফৎ ৭/১১/১৮ তাং ১ হাজার টাকা ও মনিঃ নং ৪২১৫ তাং ২১/১১/১৭ মারফৎ এক হাজার টাকা প্রেরন করেন। কিন্তু সালমা টাকা গ্রহন করেননি বলে তিনি জানান। এতকিছুর পরও সালমা সম্প্রতি স্বামীর অনুপস্থিতিতে তাদের বাড়িতে গিয়ে স্ত্রী দাবী করে স্বামীর সম্মান হানি ও নাজেহাল করার চেষ্টা করছেন বলে তিনি অভিযোগ করেন। এব্যাপারে সালমার সাথে ০১৭২৭০৩৯৫৮৪ নং মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে তিনি প্রশ্নের জবাব না দিয়ে এড়িয়ে যান। বুধহাটা ইউপি সদস্য রেজওয়ান আলির সাথে যোগাযোগ করলে তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন।

#

শোভনালী মরিচ্চাপ নদীর বেহাল দশা পুনঃ খননের দাবী

এস,কে হাসান ::

আশাশুনি উপজেলার দীর্ঘকালে খর¯্রােতা মরিচ্চাপ নদী এখন নাব্যতা হারিয়ে ছোট খালে পরিণত হয়েছে। জাহাজ-লঞ্চ চলাচলে ব্যস্ত নদীটি এখন নৌকা চলাচল করতেও পারেনা।
আশাশুনি উপজেলা সদরের বুক চিরে শোভনালী উপর দিয়ে নদীটির একটি শাখা ইছামতি নদীতে এবং আরেকটি শাখা ব্যংদহা বাজার হয়ে সাতক্ষীরা শহরের প্রাণ সায়ের খালে গিয়ে মিশে ছিল। কয়েকযুগ পূর্বেও এ নদীতে স্টিমার-লঞ্চ চলাচল করত। নদীটি বর্তমানে তার সৌদর্য হারিয়ে ফেলেছে। বিষেশ করে শোভনালী ব্রীজ হতে কামালকাটি পর্যন্ত খুবই বেহাল দশা। সামনে ব্যাংদহা হয়ে প্রাণ সায়ের মুখী নদী পুনঃ খনন করা হলেও এখনও ততটা কার্যকর হয়নি। শোভনালীর দিকে অবৈধ দখল, ইচ্ছেমত পানি রোধ, ইট ভাটায় মাটি কেটে নদী শাসনের ফলে শোভনালী ওয়াপদা গেট দিয়ে পানি নিস্কাসন ব্যহত হচ্ছে। পশ্চিম বিলে সহ¯্রাধিক হেক্টর জমির বাগদা চিংড়ী ঘেরে পানি উঠানো-নামানো কষ্টকর হচ্ছে। অবৈধ ছোপ পাটা দিয়ে জোয়ারের পানি প্রতিবন্ধতা সৃষ্টির ফলে নদী ভরাটের সৃষ্টি হচ্ছে। এলাকা ও এলাকার মানুষের জীবন-জীবিকার স্বার্থে অতি দ্রুত নদীটি খনন করে নদীর জীবন ফিরিয়ে আনা অতীব জরুর। পানি নিস্কাসন ব্যবস্থার পথ দিন দিন যে ভাবে সংকুচিত হয়ে আসছে তা রোধ করাসহ এলাকার সার্বিক স্বার্থে নদীটি পুনঃ খননের জন্য উর্দ্ধতন কতৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন এলাকাবাসি।

#

গোয়ালডাঙ্গায় ওয়াজ মাহফিল অনুষ্ঠিত

এস,কে হাসান ::

আশাশুনি উপজেলার বড়দল ইউনিয়নের গোয়ালডাঙ্গা মধ্যম পাড়া বায়তুল নূর জামে মসজিদে বার্ষিক ওয়াজ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার রাতে মসজিদ চত্বরে এ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।
বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ¦ মোক্তার হোসেনের সভাপতিত্বে মাহফিলে প্রধান বক্তা ছিলেন, আগারগাঁও (ঢাকা) কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের খতীব আলহাজ¦ হাফেজ মাওঃ ক্বারী গোলাম মোস্তফা। দ্বিতীয় বক্তা ছিলেন কয়রা উত্তর চক কামিল মাদরাসার আরবী প্রভাষক মাওঃ হাবিবুর রহমান। হাফেজ রুহুল আমিনের পরিচালনায় মাহফিলে বিশেষ অতিথি ছিলেন, বড়দল ইউপি চেয়ারম্যান আঃ আলিম মোল্যা।

#