আশাশুনি সংবাদ ॥ চাম্পাফুল বাজার টু বদরতলা সড়কের বেহাল দশা


400 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
আশাশুনি সংবাদ ॥ চাম্পাফুল বাজার টু বদরতলা সড়কের বেহাল দশা
ডিসেম্বর ১, ২০১৮ আশাশুনি ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

এস,কে হাসান ::
আশাশুনি উপজেলার চাম্পাফুল বাজার টু বদরতলা বাজার সড়কের বেহাল দশা জন জীবনে চরম ভোগান্তি সৃষ্টি করেছে।
জন সাধারণের চলাচলের একমাত্র রাস্তা এটি। সংস্কারের অভাবে দীর্ঘ ১২ কিলোমিটার রাস্তায় যানবাহন চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। রাস্তার অধিকাংশ স্থানে ইট খোঁয়া কার্পেটিং উঠে বড় বড় গর্তে পরিনত হয়েছে। এ অবস্থায় চলাচল করতে গিয়ে যানবাহন ও পথচারিরা দুর্ঘটনা কবলিত হয়ে ক্ষয় ক্ষতির মুখে পড়ছে। রাস্তা দিয়ে প্রতিনিয়ত ভারী ও হালকা যানবাহন চলাচল করে থাকে। এলাকার পথচারী, স্কুল কলেজ পড়–য়া ছাত্র/ছাত্রী সহ হাজার হাজার মানুষ চলাচল করে থাকে। স্থানীয়রা জানান, দীর্ঘ দিন যাবত সংস্কারের অভাবে রাস্তার অস্তিত্ব নষ্ট হতে বসেছে। রাজনৈতিক নেতা ও কর্মকর্তারা আশ্বাস দিয়ে যান বটে কিন্তু কাজের কাজ কিছুই হয়না। সুধিজন বলেন, আমরা বাড়ি থেকে বিভিন্ন কাজ কর্মের জন্য বের হই কিন্তু জীবনের নিরাপত্তা থাকেনা। ৮ নং ওর্য়াডের ইউপি সদস্য মো: আব্দুল হান্নান পাড়ের সাথে কথা বলে তিনি জানান, শোভনালী ইউনিয়নের গোদাড়া সরকারি প্রথমিক বিদ্যলয়ের সামনের রাস্তাটি একেবারে চলাচলের অনুপযোগি হয়ে পড়েছে। যার কারনে প্রতিনিয়ত অঘটন ঘটে চলেছে। ইতিমধ্যে আমি আমার নিজ উদ্যোগে নিজের অর্থ খরচ করে বিদ্যালয়ের সামনের রাস্তাটি সংষ্কার করছি। কারন এ রাস্তার মধ্যে অনেকগুলো প্রতিষ্ঠান রয়েছে। একটি সরকারি প্রথমিক বিদ্যালয়, একটি দাখিল মাদ্রাসা, একটি এতিমখানা এবং একটি জমে মসজিদ রয়েছে। রাস্তাটি সংষ্কার করা অতিব জরুরি। এলাকাবাসী উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করছেন।
##

আশাশুনিতে মুক্তিযোদ্ধা দিবসে আলোচনা সভা

নিজস্ব প্রতিনিধি ::
আশাশুনিতে মুক্তিযোদ্ধা দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। শনিবার বিকালে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কার্যালয়ে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।
উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার আঃ হান্নানের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন, উপজেলা সহকারী কমান্ডার এস এম গাউছুল হক, ভারপ্রাপ্ত ডেপুটি কমান্ডার এস এম লিয়াকত আলি, সহকারী কমান্ডার আহম্মদ আলি, জেলা কমান্ডের সদস্য আঃ করিম, ইউনিয়ন কমান্ডার শোভনালী আঃ গফফার, বুধহাটা আঃ হক, কুল্যা আহাদ আলি, দরগাহপুর ডাঃ শেখ আরব আলি, বড়দল আকের আলি, আশাশুনি শাহারুজ্জামান, খাজরা ইবাদুল মোল্যা, ডেপুটি কমান্ডার আবুল হোসেন গাইন, আঃ কুদ্দুছ, মোফাজ্জেল হোসেন, সাহেদ আলি ফকির, সহকারী কমান্ডার আব্দুল্লাহ, ইউনিয়ন কমান্ডের সদস্য রফিকুল ইসলাম, আজিজুর রহমান প্রমুখ। এছাড়া সভায় মহান বিজয় দিবস ও আশাশুনি মুক্ত দিবস পালন নিয়ে আলোচনা করা হয়।
##


আশাশুনিতে যুবলীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত
নিজস্ব প্রতিনিধি ::
আশাশুনি উপজেলা যুবলীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার সকালে সদর ইউনিয়ন পরিষদের হলরুমে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।
উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ও সদর ইউপি চেয়ারম্যান স ম সেলিম রেজা মিলনের সভাপতিত্বে ও উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের সদস্য মহিতুর রহমানের পরিচালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন, উপজেলা যুবলীগ নেতা আহসান উল্লাহ আছু, মিজানুর রহমান মিজান, স ম শাহীন রেজা, মোর্শেদ মাহবুব লিপ্টন, আব্দুল কুদ্দুস, আছাদুজ্জামান খোকন, আনিছুর রহমান আনিছ, এমএম সাহেব আলী, পরেশ অধিকারী, আনিছুর রহমান বাবলা, দিপন কুমার মন্ডল, সাহিনুর আলম সাহিন, সন্তোশ মন্ডল, তারক মন্ডল, গোপাল কুমার, তুলসী, তৈবার রহমান, উজ্জল, শহীদুল ইসলাম, হাবিব, দরগাহপুর ইউনিয়ন যুবলীগ সভপতি মনিরুল ইসলাম, সেক্রেটারী আবুল হাসান, বড়দল সভপতি আলমগীর হোসেন, সেক্রেটারী কামরুজ্জামান মিঠু, কাদাকাটি সভাপতি আছিব ইকবাল রিপন, সেক্রেটারী মিজানুর রহমান, প্রতাপনগর সভাপতি আঃ সামাদ, সেক্রেটারী বাবুল হোসেন, বুধহাটা যুবলীগ নেতা এজদান আলী, বাপ্পী, কুল্যা আলগীর হোসেন আঙ্গুর, শাহীনুর রহমান, খাজরা রমজান আলী, শোভনালী নাজমুস সাকিব লিটন, আজমির হোসেন, শ্রীউলা শাহীনুর ইসলাম প্রমুখ। সভায় বক্তারা আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জননেত্রী শেখ হাসিনার মনোনীত প্রার্থীর পক্ষে একনিষ্ঠভাবে কাজ করে নৌকা প্রতিককে জয়যুক্ত করার জন্য যুবলীগ লীগের সকল নেতা কর্মীকে মাঠে থাকার আহ্বান জানান হয়। নির্বাচনকে সামনে রেখে উপজেলা যুবলীগের বিভিন্ন ইউনিয়নের কমিটি গঠন পূর্বক সংগঠনকে আরও শক্তিশালী করাসহ বিভিন্ন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।
##

আশাশুনিতে মুক্তিযোদ্ধার ছবি নিয়ে ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

নিজস্ব প্রতিনিধি ::
বীর মুক্তিযোদ্ধার ছবি নিয়ে ষড়যন্ত্র ও ফায়দা লোটার হীন চক্রান্তের প্রতিবাদে আশাশুনি প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করা হয়েছে। শনিবার প্রেসক্লাব কার্যালয়ে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।
লিখিত বক্তব্য ও সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে প্রতাপনগর ইউনিয়নের মৃত মোমিন উদ্দিন গাজীর পুত্র বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল মোমেন গাজী জানান, তিনি স্বাধীনতা যুদ্ধের একজন ভারতীয় ট্রেনিংপ্রাপ্ত বীর মুক্তিযোদ্ধা। দীর্ঘ ২২ বছর তিনি প্রতাপনগর ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার হিসেবে সুনামের সাথে দায়িত্ব পালন করে এসেছেন। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্য নিবেদিত প্রাণ হিসেবে শুধু দেশকে স্বাধীন করা কালীন সময় নয় বরং সাথে সাথে জাতির জনকের হাতে গড়া দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের পতাকা উত্তোলন করে ছিলেন এবং বর্তমানে সেই আদর্শ বুকে ধারণ করে কাজ করে যাচ্ছেন এবং আমরণ সেই দায়িত্ব পালনে অঙ্গীকারাবদ্ধ। কিন্তু পরিতাপের বিষয় স্বাধীনতা বিরোধী শক্তির সাথে যোগাযোগের ধোয়া তুলে তাকে হেনস্তা করতে একটি মহল অপতৎপরতা চালাচ্ছে। তারই জের ধরে গত ২৮ নভেম্বর তিনি ব্যক্তিগত কাজে ডিসি অফিসে গেলে তার সম্পূর্ণ অজ্ঞাতসারে জামাতে ইসলামী দলের পক্ষে মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার সময় তাকে উৎসুক দৃষ্টি সম্বলিত ছবি উঠানো হয়। ব্যক্তিগতভাবে তিনি হার্ট বাই পাসের রোগী। দৃষ্টিশক্তিও হীনপ্রায়। নিয়মিত বহু ঔষধ সেবনের কারণে মাঝে মাঝে কিছুটা মস্তিষ্ক অবসন্ন হওয়ার কারনে তিনি তাৎক্ষণিক ভাবে বুঝতে পারেননা, এমন পরিস্থিতিতে রয়েছেন। তবে এটা স্পষ্ট যে, তারা বীর মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে তার ছবি উদ্দেশ্যমূলক ভাবে ব্যবহার করতে চেয়েছে। তিনি উক্ত অপচেষ্টার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, তিনি বাকি জীবনে একজন মুক্তিযোদ্ধা ও দেশের ত্বরে জীবনবাজি রাখা সৈনিক হিসেবে গর্বিত ভাবে মৃতবরণ করতে চান। এসময় ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ড সভাপদি নূরে আজম ছিদ্দিকী, ৫নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ সভাপতি জিয়াউর রহমান পিন্টু ও তার কন্যা আছমা নুরী উপস্থিত ছিলেন।
##