আশাশুনি সংবাদ ॥ চেয়ারম্যান প্রার্থী পলাশের নির্বাচনী মতবিনিময় সভা


164 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
আশাশুনি সংবাদ ॥ চেয়ারম্যান প্রার্থী পলাশের নির্বাচনী মতবিনিময় সভা
জুন ২৮, ২০১৯ আশাশুনি ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

এস কে হাসান ::

আশাশুনি উপজেলার কুল্যা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী এস এম ওমর সাকি পলাশের পক্ষে এক নির্বাচনী মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার (২৮ জুন) সন্ধ্যায় প্রার্থীর কচুয়াস্থ বাস ভবনে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।
আলহাজ¦ আশরাফ উদ্দিন সরদারের সভাপতিত্বে বিশাল মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন, সাতক্ষীরা সিটি কলেজের অধ্যক্ষ আবু সাঈদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন ও অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, দরগাহপুর কলেজিয়েট স্কুলের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ গৌরপদ মন্ডল, আরার এর ডাঃ লিটু আনাম, এনজিও কর্মকর্তা খলিলুর রহমান, ব্যাংক কর্মকর্তা আলী মোর্তজা বাবুসহ বিভিন্ন ওয়ার্ডের নেতৃবৃন্দ। কুল্যা ইউনিয়ন পরিষদের সফল ও স্বনামধন্য চেয়ারম্যান প্রয়াত রফিকুল ইসলামের ভাইপো ওমর সাকি পলাশ তার উত্তরসুরী হিসাবে এলাকার মানুষের সমর্থন নিয়ে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হয়েছেন। দীর্ঘদিন যাবৎ এলাকার মানুষের সুখ-দুঃখের সাথী হিসাবে সার্বক্ষণিকভাবে মানুষের পাশে থাকা, সকলের কাছে পরিচিতজন ও কর্মঠ সাংগঠনিক নেতা পলাশ বিজয়ী হতে পারলে এলাকাবাসীর কল্যাণে জীবন বিলিয়ে দেওয়ার ওয়াদা ব্যক্ত করে সকলের কাছে দোওয়া ও সমর্থন কামনা করেন। অতিথিবর্গ দীর্ঘদিনের পরীক্ষিত নেতা হিসাবে ওমর সাকি পলাশকে চেয়ারম্যান নির্বাচিত করে এলাকার অন্যায়, অবিচার দূর করতে এবং ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠার সাথে সাথে মানুষের অধিকার ও কল্যণে কাজ করার সুযোগ দানের আহবান জানান।

#

বুধহাটা ও বড়দলে পল্লী বিদ্যুতের লোডশেডিং এর উন্নতি হয়নি

এস,কে হাসান ::

আশাশুনি উপজেলা বিশেষ করে বুধহাটা ফেডার ও বড়দল ফেডারে পল্লী বিদ্যুতের গ্রাহকরা সীমানাহীন লোডশেডিং-এর যাতাকলে পড়ে চরম বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। দিবারাত্র অসংখ্যবার বিদ্যুতের আসাযাওয়ার কবলে পড়ে মানুষ কষ্টকর জীবন যাপনে বাধ্য হচ্ছে।
সাতক্ষীরা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির আওতায় আশাশুনি উপজেলার সকল এলাকাসহ পাশ^বর্তী এলাকায় বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হয়ে থাকে আশাশুনি সাব-স্টেশনের মাধ্যমে। সম্প্রতি এই স্টেশনের আওতায় থাকা লাইনগুলোর গ্রাহকরা ভোগান্তিতে রয়েছে। দিবারাত্র অসংখ্যবার বিদ্যুতের আনাগোনায় জর্জরিত ও বিপর্যস্ত হচ্ছে গ্রাহকরা। বিশেষ করে বুধহাটা ও বড়দল ফেডারের গ্রাহকরা চরম বিপত্তিতে রয়েছে। অন্য ফেডারে বিদ্যুতের সরবরাহ কিছুটা সহনীয় থাকলেও বুধহাটা ও বড়দল ফেডারের গ্রাহকরা অনেক বেশী বঞ্চিত হয়ে আসছে। এলাকার গ্রাহকদের বলতে শোনা যায়, বুধহাটা ফেডারের লোডশেডিং এর পরিমান অন্য ফেডারগুলোর তুলনায় অনেক বেশী। সংগত কারনে গ্রাহকরা বুধহাটা ফেডারের প্রতি বিমাতা সুলভ আচরণের অভিযোগ করে থাকে। ফজরের আজানের সময় থেকে দিনের লোডশেডিং শুরু হয় বুধহাটা ফেডারে। এরপর সকাল, দুপুর, বিকালে অসংখ্যবার বিদ্যুতের নিয়মিত আগমন প্রস্থানের ঘটনা নিত্যদিনের ঘটনায় পরিণত হয়েছে। এরপর সন্ধ্যার শুরুতে রাতের লোডশেডিং শুরু হয়। আর গভীর রাত পর্যন্ত নিয়মিত এ অবস্থা চলতে থাকে। কোন কোন দিন রাত্র ১২ টার পরও লোডশের্ডির দুর্ভাগ্যবান হতে দেখা যায় বুধহাটা ফেডারের গ্রাহকদের। এছাড়া মেঘ উঠলে, বৃষ্টি নামলে, ঝড় শুরু হলে বিদ্যুতের প্রস্থান চিরচেনা বিষয়। এনিয়ে প্রশ্ন করার কোন সুযোগ নেই গ্রাহকদের। একবার বিদ্যুৎ গেলে এবং কোন রকমে ঝড় উঠলে আর কখন বিদ্যুতের আগমন ঘটবে বলা মুশকিল।
বিদ্যুতের অত্যাচারে কেবল আবাসিক গ্রাহকদেরকে ভোগাচ্ছে তা নয়, বরং ব্যবসা বাণিজ্য ডগে উঠার উপক্রম হয়েছে। কল কারখানা, বিদ্যুৎ চালিত খুবই প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি, মেশিন বন্ধ থাকায় সংশ্লিষ্ট কাজের সাথে জড়িতরা এবং বিশেষ করে কাজে আসা লোকজনের ভোগান্তির অন্ত থাকেনা। বুধহাটা ফেডারে উপজেলার বৃহত্তর মোকাম বুধহাটা বাজারসহ অনেকগুলো বাজার ও মোকাম রয়েছে। বড়দলেও রয়েছে অনেকগুলো দোকানপাট ও বাজার। রয়েছে বহু কলেজ, স্কুল, মাদরাসা, ব্যাংক-বীমা, এনজিওসহ অনেক অফিস ও প্রতিষ্ঠান। এসব প্রতিষ্ঠানকে বিদ্যুতের অভাবে চরম বিপাকে পড়তে হয়। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর পাঠদানের সাথে জড়িত শিক্ষার্থীরা ও শিক্ষকবৃন্দ গরমে ঘর্মাক্ত হয়ে কঠিন বাস্তবতায় পড়ে থাকেন। বিদ্যুতের লোডশেডিং থাকবে, তাতে কারো প্রশ্ন নেই, কিন্তু বিদ্যুতের ভেল্কিবাজি ও বিমাতা সুলভ আচরণের অভিযোগ সত্যি ভাববার বিষয়। তাছাড়া দিবারাত্র এভাবে এক নাগাড়ে বিদ্যুতের প্রস্থান, ঘন ঘন বিদ্যুতের যাওয়া-আসা, বিশেষ করে দীর্ঘ সময় প্রস্থান গ্রাহকদেরকে অশান্তিতে ফেলে থাকে। পল্লী বিদ্যুতের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ বিষয়টি খতিয়ে দেখে গ্রাহক ভোগান্তির হাত থেকে আশাশুনিবাসী, বিশেষ করে বুধহাটা ও বড়দল ফেডারের গ্রাহকদেরকে নিস্কৃতিদানে সদয় হবেন এদাবী ভুক্তভোগি সকলের।

#

বাঁকড়ায় ৮ দলীয় ফুটবল টুর্ণামেন্ট উদ্বোধন

এস,কে হাসান ::

আশাশুনি উপজেলার শোভনালী ইউনিয়নের বাঁকড়া ফুটবল মাঠে ৮দলীয় নক আউট ফুটবল টৃর্নামেন্ট উদ্বোধন করা হয়েছে। শুক্রবার (২৮ জুন) বিকালে খেলা অনুষ্ঠিত হয়।
বাঁকড়া যুব কমিটির আয়োজনে প্রথম রাউন্ডের প্রথম খেলায় ধুলিহর ফুটবল একাদশ ৭-০ গোলে হাজিপুর ফুটবল একাদশকে পরাজিত করে সেমিফাইনালে উঠার সৌভাগ্য অর্জন করে। যশোর ডিএসবি মোফাকুরুজ্জান (ভুলু) এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন শোভনালী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সঞ্জয় কুমার দাশ। বিশেষ অতিথি ছিলেন বাঁকড়া ইউনাইটেড ক্লাবের সভাপতি সাজ্জাত হোসেন, বাঁকড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি মোঃ গাউছুল আজম (উজ্জ্বল), প্রধান শিক্ষক রবীন্দ্র নাথ পাঁড়, বাঁকড়া ইউনাইটেড ক্লাবের সহ-সভাপতি মোশারাফ হোসেন, মোস্তাফিজুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক রব্বানী, সাংস্কৃতিক সম্পাদক রবিউল ইসলাম, অর্থ সম্পাদক সামছুল আলম টুকু, জাকির হোসেন, তাহমিদ, অমল সানা প্রমুখ। খেলা পরিচালনা করেন রবিউল ইসলাম, সাইফুল্লাহ ও তরিকুল ইসলাম। ধারাভাষ্যে ছিলেন আলিম, সজল ও সাইফুল্লাহ। আগামী রবিবার জিফুলবাড়ী ও বুধহাটা ফুটবল একাদশ মুখোমুখি হবে।

#