আশাশুনি সংবাদ ॥ বখাটেদের অত্যাচারে দু’বোনের বিষপান !


450 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
আশাশুনি সংবাদ ॥ বখাটেদের অত্যাচারে দু’বোনের বিষপান !
নভেম্বর ২, ২০১৮ আশাশুনি ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

 

এস,কে হাসান,নিজস্ব প্রতিনিধি ঃ

আশাশুনি উপজেলার সীমান্তবর্তী সদর উপজেলার রুদ্রপুর গ্রামে বখাটেদের অত্যাচারে অতিষ্ট হয়ে দুই বোন বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছে। গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় তাদেরকে বুধহাটার একটি ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনা ঘটেছে বৃহস্পতিবার রাতে।
ক্লিনিকে মেয়েদের সাথে থাকা বাকরুদ্ধ পিতা রুদ্রপুর গ্রামের আঃ খালেক জানান, তার এক মেয়ের সাথে (নাম প্রকাশ করা হলোনা) দু’বছর আগে স্কুলে পড়ার সময় মাটিয়াডাঙ্গা গ্রামের আনছার আলীর পুত্র ইমনের সাথে জানাশুনা ছিল। কিন্তু পরবর্তীতে তার লেখাপড়া বন্দ হয়ে যায়। সেই সম্পর্কের সুত্র ধরে বুধবার বিকালে ইমন তার দু’বন্ধু ফিরোজ ও ইয়াছিনকে নিয়ে দু’টি বাই সাইকেলে মেয়েদের বাড়িতে যায়। এসময় তাদের পিতা বাড়িতে ছিলনা। সেখানে ঐ মেয়েকে বিয়ে করবে বলে চাপ দিতে থাকে। মেয়ে ও বাড়ির অন্যরা না করে দিলে তারা ব্যাপক জবরদস্তি ও বাড়ির শিশুদের হত্যার হুমকী দিতে থাকে। এসময় তার পিতা বাড়িতে আসলে তারা ঘরের মধ্যে পালালে ঘরের দরজা আটকে দেওয়া হয়। পাশের লোকজন এগিয়ে গেলে তারা ঘরের দেওয়াল টপকে সাইকেল ফেলে বাড়ির পিছন দিয়ে পালিয়ে যায়। পরদিন সকালে ইমন একই গ্রামের সেলিমসহ তাদের লোকজন নিয়ে পুনরায় মেয়েদের বাড়িতে গিয়ে সাইকেল নিয়ে আসে। এদিন (বৃহস্পতিবার) রাতে বখাটেদের অত্যাচার ও অপমান সইতে না পেরে দু’বোন একসাথে বিষপান করে। জানতে পেরে রাতেই তাদেরকে বুধহাটা ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়। ক্লিনিকে চিকিৎসাধীন মেয়ে দু’টিও ঘটনার বর্ণনা প্রদান করেন। সেলিমের সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করলে তিনি ঘটনার কথা স্বীকার করে বলেন ছেলে ও মেয়ে নাবালক। তাদেরকে বিষয়টি সম্পর্কে সতর্ক করে দিয়ে আর না এগুতে পরামর্শ দিয়ে আসি। কিন্তু পরে বিষপানের ঘটনা ঘটেছে বলে শুনেছি। অভিযুক্ত ইমন জানান, মেয়ের সাথে তার সাড়ে বছরের সম্পর্ক। তাদের বাড়িতে যাওয়ার পর মেয়ের বাপ বাড়িতে আসলে আমি ঘরের খাটের নীচে পালাই। দরজা আটকে দিলে আমরা দেওয়ালের উপর দিয়ে পালিয়ে আসি। পরের দিন সাইকেল নিয়ে আসি। মেয়ে ও তার বোনের বিষপান করেছে বলে শুনেছি বলে ইমনা জানায়।

বুধহাটা বায়তুর নুর মসজিদে
টাইলস এর কাজ উদ্বোধন

নিজস্ব প্রতিনিধি ঃ আশাশুনি উপজেলার বুধহাটা দক্ষিণপাড়া বায়তুন নুর জামে মসজিদে টাইলস স্থাপনের কাজ উদ্বোধন করা হয়েছে। শুক্রবার বাদ জুম্মা এ কাজের উদ্বোধন করা হয়।
মসজিদ পরিচালনা কমিটির সভাপতি মাষ্টার আবুল হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে টাইলস স্থাপনের মাধ্যমে কাজের শুভ উদ্বোধন করেন, জেলা পরিষদের সদস্য আওয়ামীলীগ নেতা এস এম দেলোয়ার হোসাইন। বুধহাটা ইউপি চেয়ারম্যান ইঞ্জিঃ আ ব ম মোছাদ্দেককে উপস্থিত থাকার কথা থাকলেও বিশেষ কারণে উপস্থিত থাকতে না পারায় তার অনুমতিক্রমে কাজের শুভ উদ্বোধন করা হয়। এসময় চাঁদপুর দাখিল মাদরাসার সুপার আলহাজ¦ মহসিনুল ইসলাম, গোবরদাড়ি দাখিল মাদরাসার সুপার মাওঃ সিদ্দিকুর রহমান, খলিলুর রহমান, ডাঃ শাহিনুর ইসলাম, শ্রমিকলীগ নেতা হাতেম আলি, যুবলীগ নেতা এজদান আলি, মসজিদ কমিটির সহ-সভাপতি আবু সাইদ, সাধারণ সম্পাদক আনারুল ইসলামসহ এলাকার বহু গন্যমান্য ব্যক্তি ও মুসল্লিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন মসজিদের ইমাম জিয়াউর রহমান। জেলা পরিষদের পক্ষ থেকে ২ লক্ষ টাকার প্রদানের ঘোষণা প্রদান করে প্রধান অতিথি ব্যক্তিগত তহবিল হতে নগদ ২০০০ টাকা প্রদান করেন। এছাড়া খলিলুর রহমান ২৫ হাজার টাকাসহ এলাকার বহু ব্যক্তি অর্থ সহায়তা প্রদান করেন।

 

আশাশুনির কমলাপুরে নাচ-গান ও যাত্রা অনুষ্ঠান
জেলা প্রশাসক বরাবর অভিযোগ
নিজস্ব প্রতিনিধি : আশাশুনি উপজেলার কমলাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষার সময় যাত্রা,নাচ গানের অনুষ্ঠান চলছে। বিষয়টি নিয়ে এলাকাবাসির পক্ষ থেকে সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক বরাবর অভিযোগ করা হয়েছে। অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, কমলাপুর গ্রামে প্রায় ৪-৫ হাজার লোকের বসবাস। কমলাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রায় ৭-৮ শত ছাত্র/ছাত্রী পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করবে। কিন্তু ০১/১১/১৮ হইতে এলাকার একমাত্র শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নাচ গান এবং যাত্রা চলছে যে কারণে ছাত্র/ছাত্রী পড়াশুনার ব্যাপক ক্ষতি হচ্ছে । স্থানিয়রা জানান,গতকাল বুধবার নবাগত আশাশুনি উপজেলা নির্বাহী অফিসার সেখনে পারিদর্শন করেন এবং মাইক বন্ধ রেখে অনুষ্ঠান করতে নির্দেশ দেন। তখন আয়োজক কমিটি সেটাই করে। কিন্ত তিনি সেখান থেকে চলে আসার পর আবাও সেখানে উচ্চসরে গান বাজনা চলছে। আর এ জন্য জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষার্থীদের পড়াশুনার ব্যাপক ভাবে ক্ষতি হচ্ছে ।

আশাশুনিতে প্রতিপক্ষের
হামলায় আহত-৩

নিজস্ব প্রতিনিধি ঃ আশাশুনি উপজেলার চেচুয়ায় জমাজমি সংক্রান্ত পূর্ব শত্রুতার জের ধরে প্রতিপক্ষের হামলায় ৩ জন আহত হয়েছে। আহতদের আশাশুনি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
থানায় লিখিত এজাহারে জানাগেছে, চেচুয়া গ্রামের মৃত জনাব আলী গাজীর পুত্র আসাদুল ইসলামের সাথে তার ভাই ছাত্তার গাজী ও শফিকুল গাজীর পুর্ব থেকে জমাজমির বিরোধ চলে আসছিল। বুধবার বিকালে স্থানীয় মেম্বর এনামুল সরদারের উপস্থিতিতে কথা কাটাকাটির এক পর্যায় মারপিটের ঘটনা ঘটে। মারপিটে মৃত জনাব আলী গাজীর পুত্র আসাদুল ইসলাম, রুহুল আমিন ও কন্যা নাসিমা খাতুন আহত হয়। এ ঘটনায় আসাদুল ইসলাম বাদি হয়ে আব্দুস ছাত্তার গাজী, শফিকুল ইসলাম ও তার পুত্র ইব্রাহিমের বিরুদ্ধে আশাশুনি থানায় লিখিত এজাহার দাখিল করেছেন।

শোভনালী ব্রীজের বিকল্প সড়কের দৈন্যদশায়
পরীক্ষার্থীদের নাভিশ^াস
নিজস্ব প্রতিনিধি ঃ আশাশুনি উপজেলার শোভনালীতে মরিচ্চাপ নদীর উপর নির্মানাধীন ব্রীজের বিকল্প সড়কের দৈন্যদশায় পথচারীসহ জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষার্তীদের নাভিশ^াস উঠতে শুরু করেছে। বিপাকে পড়ে অনেককে আশাশুনি সদর হয়ে কেন্দ্রে যেতে বাধ্য হচ্ছে।
শোভনালী ব্রীজের নির্মান কাজ শেষ হয়েছে ২ বছর আগে। এরপর থেকে এ্যাপ্রোজ সড়ক নির্মানের নামে দীর্ঘ সূত্রিতায় পড়ে আশাশুনি, কালিগঞ্জ ও দেবহাটার হাজার হাজার মানুষ চরম বিপাকে পড়ে আছে। ব্রীজ নির্মানের সময় ব্রীজের পূর্ব পাশে কাঠের সেতু দিয়ে বিকল্প যাতয়াতের ব্যবস্থা করা হয়। তখন থেকে কোন রকমে পথচারীরা যাতয়াত করে আসছে। কিন্তু এ্যাপ্রোজ সড়ক নির্মানের নামে খামখেয়ালীপনায় দীর্ঘ ২ বছর কেটে গেছে। বাধ্য হয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান এবিএম মোস্তাকিম ও তৎকালীন উপজেলা নির্বাহী অফিসারের হস্তক্ষেপে বুধহাটা ও শোভনালী ইউপি চেয়ারম্যানের উপর উভয় পারের সড়কে মাটি ও ইটের কাজ করিয়ে পথচারী ও যানবাহন চলাচলের ঝুঁকি কমিয়ে আপাতত চলাচলের ব্যবস্থা করান। এক বছর আগে থেকে ঠিকাদার এ্যাপ্রোজ সড়কে মাটি/বালি দিয়ে কাজ শুরু করেন। কিন্তু না কাজে যেমন গতি ছিলনা, তেমনি সরকারি নিয়ম কানুনকে তুয়াক্কা না করে ভূগর্ভের বালি উত্তোলন করে কাজ করার মহড়া চালিয়ে আসছেন। একদিন কাজ করা হয়তো, দশদিন কাজ বন্দ রাখা হচ্ছে। এসময় যানবাহন চলাচল ও পথচারীদের চলাচলের ক্ষেত্রে যথাযথ ব্যবস্থা রাখা হয়নি। ফলে ব্যপব অসুবিধা মাথায় নিয়ে মাঝে মধ্যে পথচারী ও যানবাহন চলাচল করঔের অধিকাংশ সময় বিশেষ করে বৃষ্টি হলেই কিংবা বালু দেওয়ার নামে ভূগর্ভ থেকে বালু-পানি উত্তোলনের মাধ্য সড়কে দেওয়ার ফলে বিকল্প সড়ক পানিতে তলিয়ে বা কর্দমাক্ত হয়ে পথ চলাচল বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। বৃহস্পতিবার চাম্পাফুল হাই স্কুল কেন্দ্রে জেএসসি পরীক্ষায় অংশ নিতে যাওয়া পরীক্ষার্থীরা কর্দমাক্ত পথে পার হতে গিয়ে চরম বিপাকে পড়ে যায়। এসময় বাধ্য হয়ে অনেককে আশাশুনি সদর হয়ে দীর্ঘ পথ পাড়ি দিয়ে কেন্দ্রে যেতে হয়। অভিভাবক, স্কুল কর্তৃপক্ষ ও কেন্দ্র কর্তৃপক্ষ বিষয়টি জানতে পেরে হতাশ হয়ে পড়েন। এব্যাপারে জেলা প্রশাসনের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন পরীক্ষার্থী, অভিভাবক, শিক্ষকমহলসহ এলাকার সর্বস্তরের মানুষ। ॥

 

পূর্ব কাদাকাটি শুশীলা পাঠাগারের এজিএম অনুষ্ঠিত
নিজস্ব প্রতিনিধি ঃ আশাশুনি উপজেলার কাদাকাটি ইউনিয়নের পূর্ব কাদাকাটি শুশীলা পাঠাগার ও অনন্ত যুব সংঘের বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার বিকালে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।
আমেরিকা প্রবাসী জয়দেব কুমার গাইনের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন, কাদাকাটি ইউপি চেয়ারম্যান দীপংকর কুমার সরকার দিপ। বিশেষ অতিথি ছিলেন প্রফেসর রামাকান্ত সরকার, ভবেন্দ্র নাথ মন্ডল, যুব সংঘের সভাপতি নেতাই চন্দ্র গাইন, সেক্রেটারী মহেষ চন্দ্র মন্ডল, পাঠাগারের সভাপতি বাসুদেব মন্ডল, সেক্রেটারী মাষ্টার তারক চন্দ্র মন্ডল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

মহিষাডাঙ্গা মিনি ফুটবল টুর্ণামেন্টে খরিয়াটি চ্যাম্পিয়ন
নিজস্ব প্রতিনিধি ঃ আশাশুনি উপজেলার কুল্যা ইউনিয়নের মহিষাডাঙ্গা ফুটবল মাঠে অজয় স্মৃতি ১৬ দলীয় মিনি ফুটবল টুর্ণামেন্টের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার সন্ধ্যায় এ খেলা অনুষ্ঠিত হয়।
বলাকা যুব সংঘের আয়োজনে খেলায় খরিয়াটি ফুটবল দল ২-০ গোলের ব্যবধানে দাদপুর ফুটবল দলকে পরাজিত করে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করে। খেলায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী অধ্যাপক ডাঃ আ ফ ম রুহুল হক এমপি। প্রাক্তন জেলা শিক্ষা অফিসার কিশোরী মোহন সরকারের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন পুলিশ পরিদর্শক (ওসি) বিপ্লব কুমার নাথ, ইউপি চেয়ারম্যান আলমগীর আলম লিটন, আলহাজ¦ শাহ নেওয়াজ ডালিম, শেখ মিরাজ আলি, আঃ আলিম মোল্যা, দীপংকর কুমার সরকার, খেশরা ইউপি চেয়ারম্যান রাজু আহমেদ, পুজা উদযাপন পরিষদ সভাপতি নীলকণ্ঠ সোম, এমপি প্রতিনিধি শম্ভুজিৎ মন্ডল, শ্রমিকলীগ সভাপতি ঢালী মোঃ সামছুল আলম, স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি এস এম সাহেব আলি, মেম্বার আঙ্গুর হোসেন, প্যানেল চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম পান্না, প্রধান শিক্ষক শংকর গাইন, জি এম আক্তারুজ্জামান, নগেন্দ্র নাথ বিশ^াস প্রমুখ। অনুষ্ঠানের সার্বিক ব্যবস্থাপনায় ছিলেন প্রফেসর হিরুলাল বিশ^াস, নিমাই বিশ^াস ও দেবব্রত বিশ^াস।

কাদাকাটিতে মিনি ফুটবল টুর্ণামেন্ট অনুষ্ঠিত
নিজস্ব প্রতিনিধি ঃ আশাশুনি উপজেলার পূর্ব কাদাকাটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে ১৬ দলীয় মিনি ফুটবল টুর্ণামেন্ট এর ২য় সেমি ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার বিকালে এ খেলা অনুষ্ঠিত হয়।
খেলায় খরিয়াটি ফুটবল দল ও টেংরাখালী ফুটবল দল মুখোমুখি হয়। নির্ধারিত সময়ে গোলশূন্য ভাবে শেষ হলে খেলা টাইব্রেকারে গড়ায়। টাইব্রেকারে টেংরাখালী ৫-৪ গোলের ব্যবধানে জয়লাভ করে। খেলা পরিচালনা করেন টিপু ব্যানার্জী। সহকারী ছিলেন বিপ্লব ও বিক্রম। প্রধান অতিথি ছিলেন ইউপি চেয়ারম্যান দিপংকর কুমরা সরকার। বিশেষ অতিথি ছিলেন ডাঃ ভবেন্দ্র নাথ, মেম্বার সঞ্জয় কুমার সরকার, ভবনাথ মন্ডল, গৌতম গাইন, সাবেক মেম্বার সুভাস মন্ডণ, অভিমান্য সরকার, অমল রায়। মেঘমালা ক্লাব এ খেলার আয়োজন করে।