আশাশুনি সংবাদ ॥ বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে এক জনের মৃত্যু


131 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
আশাশুনি সংবাদ ॥ বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে এক জনের মৃত্যু
জুলাই ২৯, ২০১৯ আশাশুনি ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

এস কে হাসান ::

আশাশুনি উপজেলার বড়দলে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে দু’দিন চিকিৎসাধীন থাকাবস্থায় একজনা মৃত্যুবরণ করেছেন। মৃত ব্যক্তির নাম দিলীডপ মন্ডল (৬২)। তিনি বড়দল ইউনিয়নের গোয়ালডাঙ্গা গ্রামের মৃত ভদ্রকান্ত মন্ডলের পুত্র।
দিলীপ মন্ডল শুক্রবার (২৭ জুলাই) বিকাল ৪ টার দিকে বাড়ি থেকে বিলে গরু আনতে যাচ্ছিলেন। গোয়ালডাঙ্গা গ্রামের মৃত লক্ষীকান্ত ওঝার বাড়ির পাশে পল্লী বিদ্যুতের ৪৪০ ভোল্টেজ ক্ষমতা সম্পন্ন লাইনের বৈদ্যুতিক খুটির একটি ঝুলে থাকা তার স্পর্শ করলে রাস্তার উপর ছিটকে পড়েন। জনৈক ভ্যান চালক তাকে দেখতে পেয়ে খবর দিলে বাড়ির লোকজন দ্রুত তাকে স্থানীয় চিকিৎসককে দেখিয়ে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করান। অবস্থান অবনতি ঘটায় রাতেই তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে রবিবার দিবাগত রাত্র ১১ টার দিকে তিনি মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন। সোমবার তার মৃতদেহ এলাকায় আনার পর শেষকৃত্য সম্পন্ন করা হয়

#

আশাশুনিতে সড়ক দুর্ঘটনায় বৃদ্ধ নিহত

এস কে হাসান ::

আশাশুনিতে মটর সাইকেলের ধাক্কায় এক বৃদ্ধ ভ্যান চালক নিহত হয়েছেন। সোমবার বিকালে উপজেলার বড়দল ইউনিয়নে এ দুর্ঘটনা ঘটে।
বড়দল ইউনিয়নের ফকরাবাদ গ্রামের মৃত পুটে গাজীর পুত্র বাক্কার গাজী (৭৫) পা ভ্যান চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করতেন। সোমবার তিনি ভ্যান চালিয়ে দুপুর তিনটার দিকে বাড়িতে ফিরছিলেন। এসময় মোজাহার উদ্দিন মাল্টি ক্রাফট সেন্টারের চিকিৎসক মহানন্দ মোহন কর্মস্থল থেকে মোটর সাইকেল চালিয়ে বাড়িতে ফিরছিলেন। ঘটনাস্থানে পৌছলে অসর্কতাবশতঃ ভ্যানের সাথে ধাক্কা লাগালে ভ্যান চালক রাস্তার উপর ছিটকে পড়েন। মুমূর্ষূ অবস্থায় তাকে আশাশুনি হাসপাতালে নেওয়ার পথে তিনি ইন্তেকাল করেন।

#

কাদাকাটিতে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত স্কুল ছাত্রী তনুশ্রী মারা গেছে

এস কে হাসান ::

আশাশুনি উপজেলার কাদাকাটিতে ইঞ্জিনভ্যানে চাপা পড়ে আহত ছাত্রী তনুশ্রী (৫) মারা গেছে। রবিবার দিবাগত রাত্র ৩.৩০ টার দিকে খুলনা ২৫০ শয্যা হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়
পূর্ব কাদাকাটি গ্রামের দীলিপ মন্ডলের কন্যা পূর্ব কাদাকাটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিশু শ্রেণির ছাত্রী তনুশ্রী শনিবার দুপুর ১২ টার দিকে স্কুল ছুটির পর বাড়িতে ফেরার জন্য স্কুল মাঠ থেকে রাস্তায় উঠছিল। এসময় ফকরাবাদ গ্রামের আমির গাজীর পুত্র আমিনুর তার ইঞ্জিন ভ্যান তনুশ্রীর উপর উঠিয়ে দিলে রক্তাক্ত অবস্থায় তাকে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়। অবস্থার অবনতি ঘটলে তাকে খুলনা হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রবিবার দিবাগত রাতে তার মৃত্যু। সোমবার তার মৃতদেহ বাড়িতে এনে সৎকার করা হয়েছে।
উল্লেখ্য, স্কুলের সামনে দিয়ে হলদেপোতা টু প্রতাপনগর রাস্তা চলে গেছে। ব্যস্ততম সড়কটিতে প্রতিনিয়ত শত শত ট্রাক, মাইক্রো, পিকআপ, মটর সাইকেল, ইঞ্জিন ভ্যান, চার্জার ভ্যানসহ বিভিন্ন যানবাহন চলাচল করে থাকে। একই স্থানে কাদাকাটি পূর্বপাড়া বালিকা বিদ্যালয় ও পূর্ব কাদাকাটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় অবস্থিত। এখানে সড়কের উপর কোন স্পীড ব্রেকার না থাকায় যানবাহন চালকরা দ্রুত গতিতে চলাচল করে থাকে। ফলে স্কুলের সামনে ছোট্ট বাজার থাকায় প্রতিনিয়ত দুর্ঘটনা ঘটে থাকে। ইতিমধ্যে ৭/৮টি মারাত্মক দুর্ঘটনা ঘটেছে। এলাকাবাসী স্কুলের সামনের সড়কে স্পীড ব্রেকারের জন্য লিখিত ও মৌখিক ভাবে বারবার উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন করলেও ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে দুর্ঘটনা রোধে আপাতত স্পীড ব্রেকার স্থাপনের ব্যবস্থা করতে এলাকাবাসী জোর দাবি জানিয়েছেন।

আশাশুনিতে জব্দকৃত মেয়াদোর্ত্তীর্ণ মালামাল বিনষ্ট

এস কে হাসান ::

আশাশুনির বিভিন্ন দোকানে ভেজাল ও মেয়াদোত্তীর্ণ মালামাল উদ্ধার অভিযান চালিয়ে জব্দকৃত বিপুল পরিমান মালামাল প্রকাশ্যে আগুনে জ¦ালিয়ে বিনষ্ট করা হয়েছে। সোমবার বেলা ১১ টার দিকে আশাশুনি উপজেলা ভূমি অফিসের সামনে বিনষ্ট করার কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়।
আশাশুনি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্যানেটারী ইন্সপেক্টর জি এম গোলাম মোস্তফার নেতৃত্বে উপজেলার বড়দল বাজারে অভিযান চালিয়ে পঞ্চানন রায়ের পঞ্চানন স্টোর, নারায়ন চন্দ্র মন্ডলের কৃষ্ণ স্টোর, সুশান্ত পালের ভাগ্যলক্ষী ভান্ডার, সুভাষ চন্দ্র ঢালীর বীণাপানি স্টোর, মেহের আলী সরদারের মুনিরা স্টোর, রণজিৎ ব্যানার্জীর রতন স্টোর থেকে বিপুল পরিমান মেয়াদ উত্তীর্ণ ঝালের গুড়া, মরিচের গুড়া, হলুদের গুড়া, সরিষার তেল, অলিভ ওয়েল, চানাচুর, বিস্কুট, কেকসহ বিভিন্ন ভাজা মালামাল জব্দ করা হয়। এসময় স্যানেটারী ইন্সপেক্টর সহকারী (এফএ) মোক্তারুজ্জামান স্বপন তার সাথে ছিলেন। সোমবার উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) ও বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পাপিয়া আক্তার জব্দকৃত মালামাল প্রকাশ্যে আগুন লাগিয়ে পুড়িয়ে দেওয়া হয়।

#

আশাশুনিতে জেলে কার্ডের চাউল বিতরণ

এস কে হাসান ::

আশাশুনিতে জেলে কার্ডের অধীন জেলেদের মাঝে বিনামূল্যে চাউল বিতরণ করা হয়েছে। সোমবার সকালে আশাশুনি সদর ইউনিয়ন পরিষদ হতে এ চাউল বিতরণ করা হয়।
সরকার নিষিদ্ধ সময়ে মাছ ধরতে না পারার কারণে সাগরে মাছ ধরা থেকে বিরত থাকা জেলেদের সংসার নির্বাহের জন্য খাদ্য সহায়তা প্রদান করে থাকে। এরই আওতায় আশাশুনি সদরের ৩১৪ জন জেলে কার্ডধারী জেলেদেরকে প্রত্যেককে ৪৫ কেজি করে চাউল প্রদান করা হয়। চাউল বিতরণ উদ্দোধন করেন সিনিঃ উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা সেলিম সুলতান ও সদর ইউপি চেয়ারম্যান স ম সেলিম রেজা মিলন। এসময় ইউনিয়ন পরিষদের সচিব প্রভাষ চন্দ্র মন্ডল, ইউপি সদস্য সন্তোষ কুমার মন্ডল, মিজানুর রহমান, তারক চন্দ্র মন্ডল, শাহিনুর আলম, সিরাজুল ইসলাম, মহিলা মেম্বার রোজিনা খাতুন ময়না, পারুল আক্তার, যুবলীগ নেতা পরেশ অধিকারী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

#

কুল্যায় ভিজিএফ এর চাউল বিতরণ

এস কে হাসান ::

আশাশুনি উপজেলার কুল্যা ইউনিয়ন পরিষদে অসহায় গরীব মানুষের মাঝে ভিজিএফ এর চাউল বিতরণ করা হয়েছে। সোমবার সকালে ইউনিয়ন পরিষদ চত্বরে বিতরণ অনুষ্ঠানের শুভ উদ্বোধন করা হয়।
সরকার প্রতি বছর ঈদ-উল-ফিতর ও ঈদ উল আজহা উপলক্ষে অসহায় গরীব পরিবারের মাঝে বিনামূল্যে চাউল বিতরন করে আসছেন। এরই আওতায় কুল্যা ইউনিয়নে ৫ হাজার পরিবারের মাঝে ১৫ কেজি করে চাউল বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। এসব কার্ডধারীদের মধ্যে সোমবার ৯টি ওয়ার্ডের একটি ওয়ার্ডের কার্ডধারীদের মাঝে চাউল বিতরনের মাধ্যমে চাউল বিতরণ কার্যক্রম উদ্বোধন করা হয়। আগামী বৃহস্পবিার পর্যন্ত বিতরন কার্যক্রম চলবে। বিতরণ কার্যক্রম উদ্বোধন করেন উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা ও ট্যাগ অফিসার এস এম আজিজুল হক। এসময় ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম পান্না, সচিব, মেম্বার আলমগীর হোসেন আঙ্গুর, নজরুল ইসলাম, উত্তম কুমার দাশ, বিশ^নাথ সরকার, ইব্রাহিম হোসেন, মহিলা মেম্বার বিউটি খাতুন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

#