আশাশুনি সংবাদ ॥ মহিলাদের ক্ষুদ্র ও যুবদের যুব ঋণ প্রদান


321 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
আশাশুনি সংবাদ ॥ মহিলাদের ক্ষুদ্র ও যুবদের যুব ঋণ প্রদান
আগস্ট ১৭, ২০১৮ আশাশুনি ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

এস কে হাসান ::
আশাশুনিতে মহিলাদের আত্মকর্ম সংস্থানের জন্য ক্ষুদ্র ঋণ ও যুবদের যুব ঋণ প্রদান করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষে এ ঋণ বিতরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।
মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর ও যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের আয়োজনে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে ঋণের চেক বিতরণ করেন, সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি অধ্যাপক ডাঃ আ ফ ম রুহুল হক এমপি। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাফফারা তাসনীনের সভাপতিত্বে ও মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা ফাতেমা জোহরার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা এস এম আজিজুল হকসহ বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে ২০ জন যুবকে আত্মকর্ম সংস্থানের লক্ষ্যে ৯ লক্ষ ৬৫ হাজার টাকার ক্ষুদ্র যুব ঋণের চেক প্রদান করা হয়।
##

আশাশুনির বিভিন্ন পয়েন্টে মহিলাদের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

নিজস্ব প্রতিনিধি ::
আশাশুনি উপজেলা সদরসহ সকল ইউনিয়নে মহিলাদের নিয়ে আলোচনা সভা ও বিশেষ দোয়ানুষ্ঠান করা হয়েছে।
জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৩ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে সকাল ১১.৩০ টায় উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। ইউএনও মাফফারা তাসনীনের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান এবিএম মোস্তাকিম। মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা ফাতেমা জোহরার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিভিন্ন মহিলা সংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ বিভিন্ন দপ্তরের সরকারি কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া ১১ ইউনিয়ন পরিষদে একই দিন ভিজিডি উপকারভোগি, মাতৃত্বকাল ভাতাভোগি ও ক্ষুদ্রঋণ গ্রহিতাদের নিয়ে পৃথক পৃথক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। স্ব স্ব ইউনিয়নের স্বেচ্ছাসেবী মহিলা সংগঠন এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। অনুষ্ঠানে আলোচনা সভার পাশাপাশি কুইজ ও বিশেষ দোয়া ও প্রার্থনার আয়োজন করা হয়।
##

আশাশুনির সাংবাদিক ফারুকের মায়ের দোয়ানুষ্ঠান অনুষ্ঠিত

নিজস্ব প্রতিনিধি ::
আশাশুনি প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক দৈনিক দৃষ্টিপাতের উপজেলা ব্যুরো প্রধান জি এম আল-ফারুকের মাতা শাহিদা বেগম এর রূহের মাগফেরাত কামনা করে দোয়া ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার বাদ জুম্মা একযোগে ৯ মসজিদ ও ১ মাদারাসায় এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।
আশাশুনি উপজেলা পরিষদ জামে মসজিদে ইমাম হাফেজ মাওঃ আঃ গফফার, বাজার জামে মসজিদের ইমাম প্রভাষক মাওঃ বাকী বিল্লাহ, আশাশুনি পুরাতন জামে মসজিদে ইমাম হাফেজ আবুযর গিফারী, সানাবাড়ী জামে মসজিদের ইমাম আলহাজ¦ মাওঃ আবুল কাশেম, ওয়াপদা জামে মসজিদের ইমাম মাওঃ আঃ রউফ এবং চৌরাস্তা জামে মসজিদ, কলেজ জামে মসজিদ ও গুচ্ছগ্রাম জামে মসজিদে ইমামগণ দোয়ানুষ্ঠান মিলাদ মাহফিল পরিচালনা করেন। এছাড়া হাফিজিয়া মাদরাসায় হাফেজ মাওঃ জায়েদ আব্দুল্লাহ দোয়ানুষ্ঠানর পরিচালনা করেন। মসজিদে তাবারকের ব্যবস্থা করা হয়। মরহুমের বাসভবনের আত্মীয়-স্বজনের জন্য পৃথক তাবারকের ব্যবস্থা করা হয়।

##

আশাশুনিতে মৎস্য ঘেরের বাধ কেটে ৫ লক্ষ টাকার মাছ ও মালামাল লুট ॥ আহত-৬
নিজস্ব প্রতিনিধি ::

আশাশুনি উপজেলার গাবতলা গ্রামে মৎস্য ঘেরের বাঁধকেটে ৫লক্ষ টাকার মাছ ও মালামাল লুটপাটের অভিযোগ পাওয়াগেছে। এব্যাপারে থানায় লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে।
অভিযোগে জনাগেছে, গাবতলা গ্রামের মৃত রাজেন্দ্র নাথ দাশের পুত্র কালিপদ দাশ সহ ৫জন ওয়াপদা একোয়ারভুক্ত নদীর চরের সাড়ে ৭বিঘা জমি পাউবো’র কাছ থেকে বন্দোবস্ত নিয়ে শান্তিপূর্নভাবে চিংড়ি চাষ করে আসছেন। কিন্তু এ বছর প্রতিপক্ষ একই গ্রামের নিতাই সরকারের পত্র দেবব্রত সরকারসহ তার সহযোগীরা নদীর চরের জমি তারা বন্দোবস্ত নিয়েছেন প্রচার দিয়ে কালিপদ গংদের জমি ছেড়েদিতে হুমকী দিয়ে আসছিল। এতে কাজ না হওয়ায় একই গ্রামের উপেন্দ্র নাথ দাশের পুত্র মেম্বর উত্তম কুমার দাশের নেতৃত্বে নিতাই চন্দ্র সরকারের পুত্র দেবব্রত সরকার, রামপদ দাশের পুত্র রাজ্যেশ্বর দাশ, চন্ডি চরন সানার পুত্র শ্রীকান্ত সানা, হাজারী দাশের পুত্র অনির্বান দাশসহ ১০/১২জন দেশীয় অস্ত্র শস্ত্রে সজ্জিত হয়ে উক্ত চিংড়ি ঘেরে প্রবেশ করে কর্মচারী আমের আলী সানাকে মারপিট করে ঘেরের বাঁধ কেটে ও জালটেনে কয়েক মন মাছ ধরে নেয়। এবং ক্যাশ বাক্স ভেঙ্গে মাছ বিক্রির নগদ ৪৫ হাজার টাকা, ৪টি খেওলা জাল, ৩টি টর্চ লাইটসহ প্রয়োজীনয় জিনিশ পত্র লুট করে নিয়ে যায়। যার আনুমানিক মূল্য ৪/৫ লক্ষাধিক টাকা। খবর পেয়ে ঘের মালিকসহ তার লোকজন ঘটনাস্থলে গেলে প্রতিপক্ষ ঘের মালিক কালিপদ, স্ত্রী ময়না রানী দাশ, পুত্র সন্দিপ কুমার দাশকে মারপিট করে। তাদের ডাক চিৎকারে আশপাশের লোকজন ঠেকাতে আসলে মাছুম বিল্লাহ গাজী, হামিদ গাজীকেও মারপিট করে।
##