আশাশুনি সংবাদ ॥ মেরুদন্ডের শল্যচিকিৎসা বিষয়ক সাইন্টিফিক সেমিনার


124 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
আশাশুনি সংবাদ ॥ মেরুদন্ডের শল্যচিকিৎসা বিষয়ক সাইন্টিফিক সেমিনার
জানুয়ারি ২২, ২০২৩ আশাশুনি ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

এস কে হাসান ::

আশাশুনিতে জেলা পর্যায়ের হাসপাতালে মেরুদন্ডের শল্যচিকিৎসা বিষয়ক সাইন্টিফিক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। রবিবার (২২ জানুয়ারি) বেলা ১১ টায় আশাশুনি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স মিলনায়তনে এ সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়।
উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আয়োজনে সেমিনারে সভাপতিত্ব করেন, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ মিজানুল হক। সেমিনারে মাল্টিমিডিয়াপ প্রজেক্টরের মাধ্যমে মূল বক্তব্য উপস্থাপন করেন, সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের অর্থোপেডিকস কনসালট্যাণ্ট ডাঃ মাহমুদুল হাসান পলাশ। আশাশুনি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডাঃ শহিদ উল্লাহর সঞ্চালনায় সেমিনারে অন্যদের মধ্যে আলোচনা রাখেন, সাইন্টিফিক পার্টনার ইউনিমেড ইউনিহেলথ এর প্রতিনিধি নূর মোহাম্মদ, সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজের ইন্টার্নি চিকিৎসক ও কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি ডাঃ আজমল হোসেন প্রমুখ। সেমিনারে মেরুদন্ডের পরীক্ষা নীরিক্ষা ও অপারেশন সম্পর্কে তথ্য সমৃদ্ধ ও হাতে কলমে সচিত্র প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়। সকল পর্যায়ের চিকিৎসক, নার্স ও সিএইচসিপিদেরকে ন্যুনতম ধারনা থাকার প্রয়োজনীয়তার কথা উল্লেখ করে, মেরুদ-ের অপারেশন ও চিকিৎসা ঢাকা বা বিদেশ নির্ভরতা কাটিয়ে তুলতে সকলের প্রস্তুতি নেওয়ার বার্তা দেওয়া হয়। ডাঃ মাহমুদুল হাসান পলাশের নেতৃত্বে এখন সাতক্ষীরাতে এ অপারেশ সফল ভাবে এবং কম খরচে করা হচ্ছে উল্লেখ করে ইতিমধ্যে অনেকগুলো অপারেশ সফল ভাবে সম্পন্ন হয়েছে বলে সচিত্র প্রতিবেদন প্রদর্শন করা হয়। চিসিৎসকদেরকে যে যে বিভাগের হোন না কেন অধিকাংশ রোগি আপনাদের স্মরণাপন্ন হয়ে থাকে। তাই চিকিৎসক হিসাবে সকল বিষয়ে ন্যুনতম ধারনা ও অভিজ্ঞতা অর্জন করা আবশ্যক উল্লেখ করে সেমিনারে বিশেষ অভিজ্ঞতা বিনিময় ও আলোচনা করা হয়। সবশেষে ডাঃ মাহমুদুল হাসান পলাশ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মিজানুল হকসহ অন্য কর্মকর্তাদের সাথে সম্প্রতি উন্নয়নমূলক কর্মকা- পরিদর্শন করেন।

#

আশাশুনিতে পিতার বিক্রয়কৃত জমি দু’যুগ পরে ছেলেদের দাবী

এস কে হাসান ::

আশাশুনিতে পিতার বিক্রয়কৃত জমি ক্রেতারা প্রায় দু’যুগ ভোগদখলে থাকার পর পিতার মৃত্যুান্তে ছেলেরা মালিকানা দাবি করে বিক্রয় করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এব্যাপরে প্রশাসন ও ভূমি কর্মকর্তাদের সহযোগিতা কামনা করা হয়েছে।
চক বাউশুলি গ্রামের আঃ খালেক গাইনের ছেলে সাইফুল ইসলাম দিং জানান, তার পিতা ২২/০৪/২০০২ তাং সোদকনা গ্রামের মোজাহার গাইনের ছেলে গফুর গাইনের কাছ থেকে ১৭৯৩ নং কোবালা দলিলে মাধ্যমে চক বাউশুলী মৌজায় এসএ ৪ ও ১১ খতিয়ানে ১২ দাগসহ ৩ দাগে ৩০ শতক জমি ক্রয় করেন। এছাড়া ১০/০৪/৯৬ তাং এসএ ৯, ৪ ও ১৫ খতিয়ানে ১৯, ২০ ও ১৮ দাগে ৮ শতক জমি ১৪৭৩ নং দলিলে ও একই দাগ খতিয়ানে একই তারিখে একই দ্বাতার কাছ থেকে শাহাবুদ্দিন গাইন ১৪৭২ নং দলিলে ৮ শতক জমি ক্রয় করেন। মোট ৪৬ শতক জমিতে তারা সেই থেকে শান্তিপূর্ণ ভাবে ভোগ দখলিকার আছেন। চেক দাখিলা কেটেছেন। সেটেলমেন্ট চলাকালে জমি রেজিষ্ট্রী হওয়ায় জমি মালিক গফুর গাইনের নামে রেকর্ডভুক্ত হয়। যে কারনে জমি গ্রহিতা ও দখলে থাকা মালিকগণ রেকর্ড সংশোধনের জন্য যথারীতি মামলা করেছেন। এছাড়া মিউটিশানের জন্য কার্যক্রম শুরু করেছেন। জমি দ্বাতা গফুর গাইন জীবিত থাকা কালীন হতে তারা জমিতে দখলে আছেন। তার মৃত্যুান্তে ওয়ারেশরা ষড়যন্ত্রমূলকভাবে বিক্রয়কৃত জমি অন্যত্র বিক্রয় ও মিউটিশানের জন্য আবেদন করেছেন। তাদের ষড়যন্ত্র ও মালিকানা স্বত্ব না থাকার পরও জমি বিক্রয় ও মিউটিশানের আবেদন তাদেরকে হয়রানীর শামিল। এব্যাপারে তারা ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) সহ উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা কলেছেন। আশাশুনি সদর ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা সাংবাদিকদের জানান, দু’পক্ষের মিউটিশান আবেদন পাওয়া গেছে। জমি পিতা বিক্রয় করে থাকলে সন্তানরা দাবীদার থাকতে পারেনা। উভয় পক্ষের কাগজপত্র দেখে সঠিকতার ভিত্তিতে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে তিনি জানান।

#

বুধহাটায় বাবলা স্মৃতি ফুটবল টুর্ণামেন্টের ১ম রাউন্ডের ২য় খেলা অনুষ্ঠিত

এস কে হাসান ::

আশাশুনি উপজেলার বুধহাটায় ৮দলীয় বাবলা স্মৃতি ফুটবল টুর্ণামেন্টের ১ম রাউন্ডের ২য় খেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। রবিবার বিকাল ৩টায় বুধহাটা বিবিএম কলেজিয়েট স্কুল মাঠে ফ্রেন্ডস স্পোটিং ক্লাবের আয়োজনে এ খেলার উদ্বোধন করা হয়। ফ্রেন্ডস স্পোটিং ক্লাবের সভাপতি ও যুবলীগ সহ সভাপতি সাদ্দাম হোসেনের সভাপতিত্বে খেলার উদ্বোধন করেন বুধহাটা বাজার বণিক সমিতির সভাপতি মঞ্জুরুল ইসলাম মহিদ ও সাধারণ সম্পাদক ফারুক ঢালী। ১ম রাউন্ডের ২য় খেলার এক দিকে ছিলেন আনুলিয়া ফুটবল একাদশ ও অপর দিকে ছিলেন জিফুলবাড়ী ফুটবল একাদশ। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে আনুলিয়া ফুটবল দলকে ১-০গোলে পরাজিত করে বিজয় অর্জন করে জিফুলবাড়ী ফুটবল একাদশ। উত্তেজনা পূর্ণ খেলাটি অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে উপভোগ করেন পাইথালী মিলন মহল সংঘের সভাপতি এড. জাকারিয়া, আশাশুনি প্রেসক্লাব সদস্য শেখ বাদশা প্রমুখ। উক্ত খেলার সার্বিক ব্যবস্থাপনায় ছিলেন, শ্রমিকলীগ সভাপতি হাতেম আলী, সাবেক ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক ইমন হোসেন, আব্দুল মান্নান, আলমগীর কবির, শামছুজ্জামান, বিল্লাল হোসেন প্রমুখ। খেলায় রেফারির দায়িত্বে ছিলেন ইয়ামিন হোসেন এবং ধারাভাষ্যে ছিলেন স্বাস্থ্য পরিদর্শক আবু মুছা ও বিল্লাল হোসেন।

বুধহাটায় এমপ্লয়ী এসোসিয়েশানের সভা

এস কে হাসান ::

আশাশুনি উপজেলার বুধহাটায় এমপ্লয়ী এসোসিয়েশানের এক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার কবির সুপার মার্কেটের দ্বিতীয় তলায় এসোসিয়েশানের কার্যালয়ে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।
এসোসিয়েশানের উপদেষ্টা অধ্যাপক মহসীন আলীর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক শেখ হেদায়েতুল ইসলামের সঞ্চালনায় সভায় প্রধান শিক্ষক রবীন্দ্র নাথ পাড়, সহকারী অধ্যাপক সজল আঢ্য, প্রভাষক মোখলেছুর রহমান, প্রধান শিক্ষক আরিফুল ইসলাম, সহকারী প্রধান শিক্ষক আহসান হাবিব, শিক্ষক হাসান ইকবাল মামুন, প্রধান শিক্ষক সিফাতুল্লাহ, নিতাই সরকার, হিমাংশু কুমার দাশ, আলমিন হোসেন ছোট্টু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। সভায় বার্ষিক কর্ম পরিকল্পনা গ্রহনসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হয়।

বড়দলে স্বাস্থ্য বিভাগের অভিযানে মালামাল বিনষ্ট

এস কে হাসান ::

আশাশুনি উপজেলার বড়দল ইউনিয়নে স্বাস্থ্য বিভাগের পক্ষ থেকে অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। রবিবার (২২ জানুয়ারি) ইউনিয়নের বিভিন্ন বাজারে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়।
আশাশুনি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্যানিটারী ইন্সপেক্টর জি এম গোলাম মোস্তফার নেতৃত্বে বড়দল বাজারে কেনা সরদারের ছেলে বদরুলের দোকানে অভিযান চালিয়ে ৫ কেজি ভেজাল ধনের গুড়া জব্দ করা হয়। পরে গুড়াগুলো প্রকাশ্যে বিনষ্ট করা হয়। এছাড়া বুড়িয়া গ্রামে কমল সরকারের ছেলে বিশ্বজিৎ সরকারের দোকানের ফ্রিজে এক সাথে কাচা মাছ ও খাদ্যদ্রব্য পাওয়ায় মাছ অপসারণ ও সতর্ক করে দেওয়া হয়। সাথে সাথে বিভিন্ন দোকানে নিরাপদ খাদ্য আইন সম্পর্কে অবহিত করে সচেতনা সৃষ্টিতে প্রচারনা চালান হয়।

#