আশাশুনি সংবাদ ॥ সিপিপি’র স্বেচ্ছাসবেক প্রশিক্ষণ উদ্বোধন


77 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
আশাশুনি সংবাদ ॥ সিপিপি’র স্বেচ্ছাসবেক প্রশিক্ষণ উদ্বোধন
এপ্রিল ২০, ২০১৯ আশাশুনি ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

এস কে হাসান ::

আশাশুনি উপজেলার কুল্যায় ঘূর্ণিঝড় প্রস্তুতি কর্মসূচি (সিপিপি) এর স্বেচ্ছাসবেক প্রশিক্ষণ উদ্বোধন করা হয়েছে। শনিবার সকাল ১০ টায় কুল্যা ইউনিয়ন পরিষদ মিলনায়তনে এ প্রশিক্ষণের আয়োজন করা হয়।
গণ প্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের ঘূর্ণিঝড় প্রস্তুতি কর্মসূচি (সিপিপি) এর আয়োজনে দু’দিনের এ প্রশিক্ষণের শুভ উদ্বোধন করেন, সিপিপি’র উপ-পরিচালক গোলাম কিবরিয়া। এলাকার ৪৫ জন স্বেচ্ছাসেবকের অংশ গ্রহনে প্রশিক্ষণ পরিচালনা করেন, উপ-পরিচালক গোলাম কিবরিয়া, সিপিপি উপজেলা টীম লিডার আঃ জলিল ও ইউনিয়ন টীম লিডার কাজিউল ইসলাম। অনুষ্ঠানে দুর্যোগ সংকেৎ প্রচার, ভূমিকম্প, জলোচ্ছ্বাস, সাড়া প্রদানসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হচ্ছে। প্রশিক্ষণ শেষে প্রশিক্ষণার্থীদের মাঝে সিপিপি ভেষ্ট বিতরণ করা হবে।

#

আশাশুনিতে স্বাস্থ্যসেবা সপ্তাহের সমাপনী অনুষ্ঠান

এস কে হাসান ::

আশাশুনিতে স্বাস্থ্য সেবা সপ্তাহ-২০১৯ সমাপনী অনুষ্ঠান সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও পুরস্কার বিতরণের মাধ্যমে শেষ হয়েছে। বৃহস্পতিবার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স মিলনায়তনে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।
দিবসের সমাপনী দিনে অটিজম ও মানসিক স্বাস্থ্য সম্পর্কে আলোচনা সভা, স্বেচ্ছায় রক্তদানে উদ্বুদ্ধকরণ, স্কুল হেলথ প্রোগ্রাম, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও পুরস্কার বিতরণ করা হয়। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ অরুন কুমার ব্যানার্জী সভাপতিত্ব আলোচনা সভায় পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলম, ডাঃ সউদ বিন খায়রুল আনাম, ডাঃ আশিকুর রহমান, ডাঃ মনিরুল ইসলাম, ডাঃ সাইফুল আলম, ডাঃ সাইফুল ইসলাম, সেনেটারী ইন্সপেক্টর জি এম গোলাম মোস্তফা, সিনিঃ স্টাফ নার্স কল্পনা রানী মন্ডল, শীলা বর্ধন প্রমুখ বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে ভালো সার্ভিসের জন্য নার্স মৌসুমী, কল্পনা রানী, রমা বিশ^াসকে, শ্রেষ্ঠ সিএইচসিপি রবিউল, হরিদাশ ও আলিম আল রাজীকে, নেট কানেকশানের জন্য সেনেটারী ইন্সপেক্টর সহকারী মোক্তারুজ্জামান স্বপনকে, এসএএমও ডাঃ ফাহাদ বিন সাদ, পরিস্কার পরিচ্ছন্নতার জন্য ইব্রাহিম হোসেন, সুকুমার, আলতাফ, ধনীরাম ও মনিরুলকে এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠাতে বিজয়ীদের মধ্যে আলতাফ, ফাহাদ বিন সাদ ও হাসিনারা খাতুনকে পুরস্কৃত করা হয়। বিদ্যালয় স্বাস্থ্যসেবা পরিদর্শন করেন, ডাঃ সাইফুল আলম, সেনেটারী ইন্সপেক্টর জি এম গোলাম মোস্তফা ও সহকারী মোক্তারুজ্জামান স্বপন।

#

কুল্যা মোহনা সমিতির টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ

এস কে হাসান ::

আশাশুনি উপজেলার কুল্যা মোহনা সার্বিক গ্রাম উন্নয়ন সমবায় সমিতি লিঃ এর লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেওয়ায় সমিতিটি ভেঙ্গে যেতে বসেছে। সদস্যরা সঞ্চয় ও শেয়ার আমানতের টাকা না পেয়ে চরম বিপাকে পড়েছে।
সমবায় অধিদপ্তরের রেজিষ্ট্রেশন (নং ৯৯/সাতঃ) নিয়ে সমিতিটি বেশ ভালভাবে চলে আসছিল। ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ আশাশুনি এডিপি/এপি’র সার্বিক তত্ত্বাবধানে সমিতির প্রতিষ্ঠা হয়। তাদের দিক নির্দেশনা ও সমবায় বিভাগের তদারকিতে প্রথম দিকে বেশ সুনামের সাথে সমিতি চালান হচ্ছিল। লাখ লাখ টাকা সঞ্চয় ও শেয়ার আমানতের পাশাপাশি ঋণ প্রদান, ছোট খাট কাজে বিনিয়োগ করে সমিতির যেমন অগ্রগতি হয়েছিল, তেমনি সদস্যরাও লাভের মুখ দেখছিল। ওয়ার্ল্ড ভিশন সমিতিটিকে দাড় করিয়ে দিয়ে এবং কমিটি গঠন ও পরিচালনা সম্পর্কে প্রশিক্ষণ শেষে তাদেরকে নিজেদের দায়িত্বে চলার জন্য তাদের হাতে ছেড়ে দেয়। এরপর থেকে সমবায় দপ্তরের ভিজিট, পরিদর্শন ও নীরিক্ষার মাধ্যমে কমিটি সমিতি পরিচালনা করে আসছে। কিন্তু যথাযথ তদারকি, সমিতির মিটিং, ঋণ বিতরণ ও আদায়সহ সঠিক কার্যক্রমে ভাটা পড়ে যায়। কারো না কারো গাফিলতি ও সুযোগ লাভের লোভের কারণে সমিতি গতি হারাতে বসে। তখন দেখাদেয় অনিয়মের চিত্র। সমিতির অর্থে একটি মালবাহী ট্রলি ক্রয় করা হয় ৮০ হাজার টাকা দিয়ে। ট্রলিটি প্রতিমাসে ২১০০ টাকা ভাড়া চুক্তিতে বাহাদুরপুর গ্রামের ছোলায়মান সরদারের পুত্র বাকি বিল্লাহর কাছে চুক্তিনামা করে নিয়ে ৬/৯/১৪ তাং ভাড়া প্রদান করা হয়। কিন্তু তিনি বিগত ৪ বছরে মাত্র ২০০০ টাকা দিয়ে আর টাকা দেয়নি। ট্রলিটি গোপনে বিক্রয় করে দিয়ে টাকা আত্মসাৎ করেছেন। ৬৪৫ জন সদস্যের মধ্যে থেকে ক্রমে ক্রমে সদস্যরা হিসেব গুটিয়ে নিতে শুরু করেছে। বর্তমানে ৩৫৩ জন সদস্য রয়েছে, তারাও গুটিয়ে নিতে পারছেনা সমিতি তাদের টাকা ফেরৎ দেয়নি তাই। এদিকে সমিতির সাধারণ সম্পাদক মৃত কেরামত হোসেন ২০১৮ সালের শেষের দিকে মৃত্যুবরণ করার আগ পর্যন্ত নিজের নামে এবং গোপনে সদস্যদের নামে ঋণ উঠিয়ে সর্বমোট ১ লক্ষ ৭২ হাজার ৭৯৬ টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন বলে অডিট রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়েছে। ঋণ গ্রহনকারীদের অনেকেই টাকা পরিশোধ না করায় সমিতি প্রায় অচল হতে চলেছে। অডিট রিপোর্টে দেখা যায়, সমিতিতে সঞ্চয় আমানত আদায় আছে ৬ লক্ষ ৩১ হাজার ৪২৪ টাকা, শেয়ার আদায় ১ লক্ষ ৮৪ হাজার ৪০০ টাকা। ব্যাংকে জমা আছে মাত্র ৫ হাজার ১৩০ টাকা। বাকী টাকা ঋণ প্রদান করা হলেও এখন অধিকাংশ ঋণ গ্রহিতারা টাকা না দেওয়ায় চরম বিপাকে রয়েছেন সদস্য ও কমিটির সদস্যবৃন্দ। দীর্ঘদিন ধরে অনিয়ম চলছে, ট্রলি ভাড়ায় নিয়ে বিক্রয় করে আত্মসাৎ করা হয়েছে, সম্পাদক নিয়মকে তুয়াক্কা না করে সদস্যদের নামে টাকা উঠিয়ে আত্মসাৎ করেছেন, কিন্তু তাদের বিরুদ্ধে কোন আইনগত কোন পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি। কমিটিও এ পর্যন্ত কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি। ফলে সদস্যদের মধ্যে ব্যাপক ক্ষোভ ও অশান্তির সৃষ্টি হয়েছে। এব্যাপারে সমবায় বিভাগ, উপজেলা প্রশাসন ও আইন প্রয়োগকারী সংস্থার আশু হস্তক্ষেপ কামনা করা হয়েছে। অন্যথায় যেকোন সময় চরম আইন ভঙ্গের সম্ভাবনা বিরাজ করছে।

খরিয়াটিতে মাদক ব্যবসা ও জুয়ার আসারের অভিযোগ

এস কে হাসান ::

আশাশুনি উপজেলার দরগাহপুর ইউনিয়নের খরিয়াটিতে মাদকের কারবার বেশ জোরেশোরে শুরু হয়েছে। পাশাপাশি গোপনে গোপনে জুয়ার আসর বসায় এলাকাবাসীর মধ্যে বিরূপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে।
আশাশুনি উপজেলা থেকে মাদকের কারবার ও জুয়া নির্মূলে পুলিশ প্রশাসন ব্যাপক তৎপরতা শুরু করেছে। ফলে প্রতি নিয়ত জুয়াড়ী গ্রেফতার ও মাদক ক্রেতা-বিক্রেতাকে আটকের ঘটনা ঘটছে। কিন্তু পরবর্তীতে জামিনে মুক্ত হয়ে আবারও তারা স্বকর্মে লিপ্ত হচ্ছে। এমনই একটি জনপথ খরিয়াটি গ্রাম। এটি আশাশুনি, তালা ও পাইকগাছা উপজেলার সংযোগ স্থল। ফলে বর্ডার এলাকা হওয়ায় বিভিন্ন উপজেলার মাদক কারবারী, মাদক সেবনকারী ও জুয়াড়ীদের ব্যাপক সমাগম ঘটে এখানে। খরিয়াটি গ্রামের কেরামত মোড়লের পুত্র ইমদাদুল, ছাবের গাজীর পুত্র সিরাজুল, মৃত সুলতান গাজীর পুত্র রবিউল, মৃত অছের খানের পুত্র মালেক, মালেকের স্ত্রী রুপা, রউফ গাজীর পুত্র ময়নদ্দিন,মালেক গাজীর পুত্র ইমদাদুল, ইনছাফ গাজীর পুত্র এখলাছসহ এলাকার বড় একটি গোষ্ঠি মদ, গাঁজা ও ইয়াবাসহ মাদকের কারবার বেশ জোরে শোরে চালিয়ে আসছেন। প্রতিদিন এদের আড্ডায় বহু মাদত সেবনকারী ও ছোট বিক্রেতাদের আগমন ঘটে থাকে। কেউ কেউ পুলিশে ধরা খাওয়ার পর জামিন পেয়ে আবার কারবার চালিয়ে যাচ্ছে। একই ভাবে খরিয়াটিতে ময়নদ্দিন, ছানার, আছাফুর, ফিরোজ, সাইদ জুয়ার আসর বসাতে সিদ্ধহস্ত। পুলিশ তাদের বআখড়ায় হানা দিয়ে গ্রেফতারের পর কিছুদিন বন্ধ রেখে আবারও কারবার শুরুর পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে তারা। এব্যাপারে এলাকার শান্তিপ্রিয় মানুষ চরম বিপাকে রয়েছে। তাদের দাবী মাদক ও জুয়া নির্মূলে কঠোর পদক্ষেপ নেওয়া হোক। দরগাহপুর ইউপি চেয়ারম্যান শেখ মিরাজ আলি জানান, মাদক ও জুয়া নির্মূলে কঠিন ভাবে কাজ করছি। যে কোন মূল্যে এগুলো ঠেকাতে জোর তৎপরতা চালান হচ্ছে। তিনি প্রশাসনের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

#

নওয়াপাগায় এনপিএল ক্রিকেট ফাইনাল অনুষ্ঠিত

এস কে হাসান ::

আশাশুনি উপজেলার বুধহাটা ইউনিয়নের নওয়াপাড়া জগদ্ধাত্রী ফুটবল মাঠে এনপিএল ক্রিকেট ফাইনাল অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার বিকালে অনুষ্ঠিত খেলায় টুফ্রেন্ড ক্রিকেট একাদশ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করে।
বেতনা যুব কিশোর সংস্থার আয়োজনে খেলায় টু-ফ্রেন্ড ক্রিকেট একাদশ ও এমবি ক্রিকেট একাদশ মুখোমুখি হয়। টুফ্রেন্ড প্রথমে ব্যাট হাতে মাঠে নেমে নির্ধারিত ১২ ওভারে ৭ উইকেটে ১৩৮ রান সংগ্রহ করে। জবাবে এমবি ক্রিকেট একাদশ ৬ উইকেট হারিয়ে শেষ বলে জয়ের লক্ষ্যে পৌছে যায়। ম্যান অব দ্যা ম্যাচ ও সিরিজ হন বিজয়ী দলের আছাফুর। সর্বাপেক্ষা উইকেট পান শাহিন। আম্পায়ার ছিলেন জয়দেব দাশ ও আমির হোসেন। অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, অবঃ সেনা কর্মকর্তা ওয়ারেন্ট অফিসার (ইয়ার ক্রাফট) আনিছুর রহমান, মুজিবুল হক, বিকাশ চন্দ্র বাছাড়, হাসান ইকবাল মামুন, গোলাম হোসেন। সবশেষে বিজয়ী ও রানার আপ দলের ক্যাপটেনদের হাতে ট্রফি তুলে দেন অতিথিবৃন্দ।

#