আশাশুনি সংবাদ ॥ ২০২০ সালের নতুন বই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্রেরণ


186 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
আশাশুনি সংবাদ ॥ ২০২০ সালের নতুন বই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্রেরণ
নভেম্বর ৬, ২০১৯ আশাশুনি ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

এস,কে হাসান ::

আশাশুনি উপজেলার মাধ্যমিক স্কুল ও মাদরাসা সমূহের জন্য ২০২০ সালের নতুন পাঠ্য পুস্তক উপজেলা শিক্ষা অফিস হতে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্রেরন শুরু হয়েছে।
সরকার তথা শিক্ষা মন্ত্রণালয় বছরের শুরুতে (১ জানুয়ারি) শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন পাঠ্য পুস্তক তুলে দিতে সকল কার্যক্রম বাস্তবায়ন করে যাচ্ছেন। তারই ধারাবাহিকতায় ১ জানুয়ারি আসতে প্রায় ২ মাস বাকী থাকতেই নতুই বই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্রেরন করা হচ্ছে। উপজেলা পরিষদ চত্বরে উপজেলার সকল মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও মাদরাসায় নতুন বই পৌছে দিতে শিক্ষকদের হাতে বই তুলে দেওয়া হচ্ছে। উপজেলার ৫০ টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৬ষ্ঠ থেকে ১০ম শ্রেণি পর্যন্ত ১৯ হাজার ২৪৫ জন ছাত্রছাত্রী এবং মাদরাসায় ১ম থেকে ৫ম শ্রেণি পর্যন্ত ৩ হাজার ৬৪৯ ও দাখিল পর্যায়ে (৬ষ্ঠ থেকে ৯ম শ্রেণি) ৭ হাজার ৬০২ জন শিক্ষার্থী রয়েছে। এদের মধ্যে স্কুল পর্যায়ে ৬ষ্ঠ ও ৭ম শ্রেণির সকল বই এসেগেছে। ৬ষ্ঠ শ্রেণির ৮৪ হাজার ১০০ এবং ৭ম শ্রেণির ৭৭ হাজার ১০০ বই এসেছে। ৮ম শ্রেণির ৭৪ হাজার ৩০০ এর মধ্যে ৪২ হাজার ৫০০ বই এসেছে, বাকী রয়েছে ৩১ হাজার ৮০০ বই। ৯ম শ্রেণির ৮৬ হাজার ২০০ বইয়ের মধ্যে এসেছে ৭৩ হাজার ৭০০ বই। বাকী রয়েছে ১২ হাজার ৫০০ বই। মাদরাসায় ইবতেদায়ীর সকল বই এসেগেছে। যার মধ্যে ১ম শ্রেণিতে ৯৬০০, ২য় শ্রেণিতে ৯৬০০, ৩য় শ্রেণিতে ১২৮০০, ৪র্থ শ্রেণিতে ১২৮০০ ও ৫ম শ্রেনিতে ১৩৬০০ বই এসেছে। দাখিল পর্যায়ে ৬ষ্ঠ শ্রেণিতে ৩০৮০০ মধ্যে ১১০০০, ৭ম শ্রেণিতে ২৮০০০ এর সবগুলো, ৮ম শ্রেণিতে ২৮০০০ এর সবগুলো ও ৯ম শ্রেণিতে ২৬১০০ এর মধ্যে ২৪২০০ বই এসেছে। বাকী থাকা সামান্য বইগুলো খুব শীঘ্রই আশাশুনিতে পৌছবে বলে উপজেলা শিক্ষা অফিসার মোঃ বাকী বিল্লাহ জানান। এসে যাওয়া সমস্ত বই স্ব স্ব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্রেরণ করা হচ্ছে।

#

আশাশুনির ২১ প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নতুন ভবন নির্মান হচ্ছে

এস,কে হাসান ::

আশাশুনি উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে ২১ টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নতুন ভবন নির্মান ও উর্ধমূখী ভবন নির্মানের জন্য পিইডিপি-৪ অনুমোদন দিয়েছে।
উপজেলার বহু স্কুল রয়েছে, যা খুবই জীর্ণশীর্ণ। অনেক স্কুল রয়েছে যেখানে শিক্ষার্থীনুযায়ি আসন সংখ্যা অপ্রতুল। এমন কিছু বিদ্যালয় রয়েছে যেখানে যাতয়াত ব্যবস্থা খুবই নাজুক। এমন বিদ্যালয়গুলোর মধ্য হতে ১৬ টি নতুন ভবন নির্মান এবং ৬টি উর্ধমুখী সম্প্রসারণ ভবন নির্মানের জন্য পিইডিপি-৪ অনুমোদন প্রাপ্ত হয়েছে। নতুন ভবন নির্মানের জন্য অনুমোদিত স্কুল গুলোর মধ্যে ফকরাবাদ সরঃ প্রাথিমিক বিদ্যালয় (৩ কক্ষ বিশষ্ট), উত্তর বড়দল সঃ প্রাঃ বিদ্যালয় (৪ কক্ষ), শে^তপুর স/প্রা বিদ্যালয় (৪ কক্ষ), রামনগর স/প্রা বিদ্যালয় (৪ কক্ষ), নাকনা স/প্রা বিদ্যালয় (৫ কক্ষ), মধ্যম বেউলা স/প্রা বিদ্যালয় (৪ কক্ষ), কুঁন্দুড়িয়া স/প্রা বিদ্যালয় (৫ কক্ষ), কুল্যা বেনাডাঙ্গা স/প্রা বিদ্যালয় (৪ কক্ষ), উত্তর দাঁদপুর স/প্রা বিদ্যালয় (৭ কক্ষ), গুনাকরকাটি স/প্রা বিদ্যালয় (৪ কক্ষ), পাইথালী স/প্রা বিদ্যালয় (৫ কক্ষ), দুর্গাপুর স/প্রা বিদ্যালয় (৪ কক্ষ), বৈকরঝুটি স/প্রা বিদ্যালয় (৪ কক্ষ), বিল বকচর স/প্রা বিদ্যালয় (৩ কক্ষ), বড়দল মেছের আলি স/প্রা বিদ্যালয় (৪ কক্ষ) ও যদুয়ারডাঙ্গা স/প্রা বিদ্যালয় (৫ কক্ষ বিশিষ্ট) ভবন নির্মান করা হবে। এছাড়া উর্দ্ধমূখী সম্প্রসারনের আওতায় বদরতলা স/প্রা বিদ্যালয় (৭ কক্ষ), মাদিয়া স/প্রা বিদ্যালয় (৪ কক্ষ), কাদাকাটি স/প্রা বিদ্যালয় (৪ কক্ষ), সুভদ্রাকাটি স/প্রা বিদ্যালয় (৪ কক্ষ) ও তুয়ারডাঙ্গা স/প্রা বিদ্যালয় (৪ কক্ষ বিশিষ্ট) ভবন নির্মানের জন্য অনুমোদিত হয়েছে।
উপজেলা প্রকৌশলী মোঃ আক্তার হোসেন বলেন, পিইডিপি-৪ অনুমোদিত এসব বিদ্যালয়ের তালিকা তারা পেয়েছেন। পাওয়ার পর বিদ্যালয় নির্মানের জন্য সম্ভাব্য স্থানের সয়েল টেষ্ট করা হচ্ছে।

#

আশাশুনিতে গণধর্ষণের অভিযোগে মামলা

এস,কে হাসান ::

আশাশুনি উপজেলার শ্রীউলা ইউনিয়নে চার সন্তানের জননী ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এব্যাপারে ধর্ষিতা খালেদা খাতুন (৪০) বাদি হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছেন। ঘটনা ঘটেছে সোমবার (৪ নভেম্বর) গভীর রাতে ধর্ষিতার মৎস্য ঘেরের বাসায়।
মামলার বিবরণে জানাগেছে, শ্রীউলা ইউনিয়নের নাসিমাবাদ গ্রামের আশরাফ মোড়লের স্ত্রী খালেদা খাতুনের কাছে দোকানের বাকী ছিল। আনুমানিক এক মাস আগে একই গ্রামের গহর ফকিরের তিন ছেলে শহিদ, ছায়দুল ও সাইদ খালেদার স্বামী আশরাফকে পাওনা টাকা নিয়ে কথাকাকাটির এক পর্যায়ে মেরে হাত ভেঙ্গে দেয়। এনিয়ে আশাশুনি থানায় মামলা হয়। মামলায় একজন আসামী বাদে বাকি আসামীরা জামিনে মুক্তি পেয়ে মামলার বাদি খালেদাকে মামলা তুলে নিতে বিভিন্ন সময় হুমকি দিয়ে আসছিল। সোমবার (৪ নভেম্বর) রাতে চাকুরিজীবি স্বামী বাড়িতে না থাকায় প্রতিদিনের মত খালেদা নিজ মৎস্যঘের পাহারা দিতে যায়। ঘুমিয়ে পড়লে গভীর রাতে ঘেরের বাসার দরজায় ধাক্কা দিলে খালেদার ঘুম ভেঙ্গে যায়। এত রাতে কে জানতে চাইলে পূর্বের মামলার আসামী শহিদ বলে, তোকে মামলা তুলে নিতে বলেছি। তুই যখন মামলা তুলবিনা, আজ তোর জীবনের সব আশা মিটিয়ে দেব। বলা মাত্র বাসার দরজা ভেঙ্গে ভেতরে শহিদ ও অজ্ঞাতনামা আসামীরা তাকে জাপটে ধরে মুখ বেঁধে পরনে থাকা জামাকাপড় ছিড়ে পালাক্রমে ধর্ষন করে এবং শরীরের বিভিন্ন স্থানে কামড়ে রক্তাত্ব জখম করে। তার ডাক চিৎকারে পার্শ্ববর্তী তার বোন ময়না খাতুন, রাবেয়া ও সাকিলসহ অন্যরা ঘটনাস্থলে পৌছে তাকে রক্তাত্ব অবস্থায় উদ্ধার করে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে পরদিন সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। এব্যাপারে একজনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতনামা আসামী করে ৭(১১)১৯ নং মামলা রুজু করা হয়েছে।
পুলিশ পরিদর্শক (ওসি) মোঃ আব্দুস সালাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ধর্ষিতার অভিযোগ নিয়ে থানায় একটি ধর্ষণ মামলা রুজু করা হয়েছে। ধর্ষিতাকে মেডিকেল টেষ্টের জন্য জেলা সদরে প্রেরণ করা হয়েছে। আসামীদের গ্রেফতারে সর্বাত্মক চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

#

আশাশুনির ২ পরীক্ষা কেন্দ্র পরিদর্শন শিক্ষা কর্মকর্তার

এস,কে হাসান ::

আশাশুনি উপজেলার দু’টি পরীক্ষা কেন্দ্র পরিদর্শন করেছেন উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ বাকী বিল্লাহ। বুধবার তিনি পরীক্ষা কেন্দ্র পরিদর্শন করেন।
মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার বাকী বিল্লাহ প্রথমে গুনাকরকাটি কামিল মাদরাসায় জেডিসি পরীক্ষা কেন্দ্র পরিদর্শনে যান। এরপর বুধহাটা কওছারিয়া দাখিল মাদরাসা জেএসসি পরীক্ষার উপ-কেন্দ্র এবং সবশেষে বুধহাটা বিবিএম কলেজিয়েট স্কুলে জেএসসি পরীক্ষা কেন্দ্র পরিদর্শন করেন। সকল কেন্দ্রে শান্তিপূর্ণ ও নকলমুক্ত পরিবেশে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এসময় উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রতিনিধি ট্যাগ অফিসার দেবু বিশ^াস, সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার ইদ্রিস আলি, প্রধান শিক্ষক দাউদ হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

#

দরগাহপুরে ৩ টি ওয়ার্ডে আওয়ামীলীগ সদস্য যাচাই বাছাই সম্পন্ন

এস,কে হাসান ::

আশাশুনি উপজেলার দরগাহপুর ইউনিয়নে ৩টি ওয়ার্ডে (১, ২ ও ৩ নং) আওয়ামীলীগের সদস্য যাচাই বাছাই কার্যক্রম সম্পন্ন হয়েছে।
খরিয়াটিা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে, হোসেনপুর সবুজ প্রাণ প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ও খরিয়াটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত সভায় ডাঃ মোশাররফ হোসেন, সনি মোহন ও কায়ছেদ মলঙ্গীর সভাপতিত্ব পৃথক পৃথক সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন, উপজেলা আ’লীগ সহ-সভাপতি সদস্য পদ নবায়ন ও নতুন সদস্য সংগ্রহ কমিটির আহবায়ক রফিকুল ইসলাম মোল্যা। সদস্য সংগ্রহ আহবায়ক কমিটির উপজেলা আ’লীগ সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সামাদ বাচ্চুর পরিচালনায় সভায় বিশেষ ছিলেন, সহদপ্তর সম্পাদক রাজু আহম্মদ পিয়াল, চেয়ারম্যান শেখ মিরাজ আলি, আক্তারুজ্জামান, শেখ শামিনুর রহমান, জাকির হোসেন, শেখ মশিউর রহমানসহ ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড আ’লীগের নতৃবৃন্দ।

#