উত্তরপ্রদেশে বন্যায় চারদিনে ৭৩ জনের মৃত্যু


97 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
উত্তরপ্রদেশে বন্যায় চারদিনে ৭৩ জনের মৃত্যু
সেপ্টেম্বর ২৯, ২০১৯ প্রবাস ভাবনা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::

ভারতের উত্তরপ্রদেশে ভারী বর্ষণে সৃষ্ট বন্যায় গত চারদিনে ৭৩ জনের মৃত্যু হয়েছে।

উত্তরপ্রদেশের পূর্বাঞ্চলে আবহাওয়া দফতর ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছে।

শুক্রবার স্বাভাবিকের থেকে ১৭০০ শতাংশ বেশি রেকর্ড পরিমাণ বৃষ্টিপাত হয়েছে উত্তরপ্রদেশে। রাজ্যের পূর্বাঞ্চল সবথেকে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। খবর এনডিটিভির।

শনিবার প্রয়াগরাজে ১০২ দশমিক ১ মিলিমিটার ও বারাণসীতে ৮৪ দশমিক ২ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হয়েছে। এই বছরের গড় বৃষ্টিপাতের তুলনায় যা অনেক বেশি।

শনিবার উত্তরপ্রদেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে ২৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। তার আগে বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার ৪৭ জনের মৃত্যু হয়। লখনউ, আমেঠী, হরদৈ ও আরও অন্যান্য জেলায় প্রবল বর্ষণের কারণে স্কুল বন্ধ রয়েছে।

উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ প্রয়োজনীয় পদক্ষেপের জন্য জেলা ম্যাজেস্ট্রেট ও ডিভিশনাল কমিশনারদের নির্দেশ দিয়েছেন।

মৃতদের পরিবারকে অর্থ সাহায্য বাড়িয়ে ৪ লাখ টাকা করারও নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

শুক্রবার থেকে বিহারে প্রবল বর্ষণের ফলে স্বাভাবিক জনজীবন বিপর্যস্ত হয়েছে। রেল চলাচলে বিঘ্ন ঘটার পাশাপাশি স্কুলও বন্ধ রয়েছে।

রোববার সকালে ১৩টি ট্রেন বাতিল হয়েছে। অন্যান্য ট্রেন চলাচলও বিলম্বিত হচ্ছে।

৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত প্রবল বর্ষণের পূর্বাভাস রয়েছে পাটনায়। জেলা প্রশাসন সমস্ত স্কুল বন্ধ রাখার নির্দেশ জারি করেছে মঙ্গলবার পর্যন্ত।

বিহারের যে জেলাদগুলিতে বন্যার পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে, সেখানে উদ্ধারকারী দল কাজ করছে। জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী জানিয়েছে তাদের ১৮টি দল সেখানে কাজ করছে।

গত দু’দিনে রাজস্থান ও মধ্যপ্রদেশেও বৃষ্টিতে ছয়জনের মৃত্যু হয়েছে। একজনের মৃত্যু হয়েছে জম্মু ও কাশ্মীরে। রাজস্থানের উদয়পুরের থোবওয়ারাতে সরকারি স্কুলের দেওয়াল ভেঙে পড়ে তিন ছাত্রের মৃত্যু হয়েছে।

শুক্রবার মধ্যপ্রদেশে একটি সরোবরের জলে ভেসে গিয়ে এক পুলিশ কনস্টেবলসহ তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে এক কিলোমিটার দূরে তাদের দেহ উদ্ধার করা হয়েছে। গত দুই সপ্তাহ ধরে মধ্যপ্রদেশেও প্রবল বর্ষণ চলছে।