একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন : সাতক্ষীরা-১ অাসনে প্রার্থীর ছড়াছড়ি


865 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন : সাতক্ষীরা-১ অাসনে প্রার্থীর ছড়াছড়ি
নভেম্বর ১৭, ২০১৮ কলারোয়া তালা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

॥ মুজিবুর রহমান ॥

দেশের দক্ষিণাঞ্চলের একটি স্বনামধন্য জেলা সাতক্ষীরা। দুটি উপজেলা নিয়ে গঠিত সাতক্ষীরা-১ তালা-কলারোয়া আসন। দুটি উপজেলায় মোট ভোটার ৪লাখ ১৬ হাজার ৩৪৭। নির্বাচন কমিশন আগামী ৩০ ডিসেম্বর নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করেছে। যতই দিন ঘনিয়ে আসছে ততই প্রার্থী কর্মি সমর্থকদের মধ্যে উৎকণ্ঠা বেড়ে চলেছে। সবার প্রশ্ন কে হবেন তালা-কলারোয়া আসনে নৌকার মাঝি? সর্বত্রই চলছে জল্পনা কল্পনা। আসনটিতে আওয়ামী লীগ বিএনপি, জামাতের সাংগঠনিক অবস্থান বেশ মজবুত। জাতীয়পার্টি, ওয়ার্কার্স পার্টি ও জাসদের অবস্থান তেমন সুদৃঢ় নয়।

 

১৯৭১ সালে দেশ স্বাধীনের পর তালা কলারোয়া আসনটির ১৯৭৩, ১৯৮৬, ১৯৯৬ ও ২০০৮সালে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, ১৯৯৬ সালে ১৫ ফেব্রয়ারি নির্বাচনে বিএনপি ও ২০০১ সালে বিএনপি, ১৯৯১ সালে বাংলাদেশ জামাত, ১৯৮৮ সালে জাতীয়পার্টি ও ২০১৪ সালে ১৪ দলীয় জোট সমর্থিত ওয়ার্কার্স পার্টি জয়লাভ করে। পরিসংখ্যানে আওয়ামী লীগ অধিকসময় ক্ষমতায়, আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে ঘিরে সাতক্ষীরায় বিএনপি, জামাত প্রকাশ্য কোন তৎপরতা দেখা না গেলেও আওয়ামী লীগ, জাতীয়পার্টি, পাটির সাংগঠনিক তৎপরতা বেশ জোরেসোরে দেখা যাচ্ছে। দলীয় নেতা-কর্মীরাও বেশ উজ্জীবিত হয়ে উঠেছে। নির্বাচনকে ঘিরে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের প্রায় একডজনেরও বেশি নেতা মনোনয়নের আশায় শেষ মুহূর্তে ঢাকায় জোর লবিং চালিয়ে যাচ্ছেন। তবে জাতীয় সংসদের সাতক্ষীরা-১ আসনে তৃণমূলে দলীয় কর্মী, সমর্থক থেকে শুরু করে সর্বমহলে কে হবেন দলের প্রার্থী তা নিয়ে আলোচনা সমালোচনা বেশ জোরেসোরে চলছে। সবমিলিয়ে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগে রয়েছে প্রার্থী জট সেক্ষেত্রে বিএনপি রয়েছে সুবিধাজনক স্থানে। এদিকে শরীকদের চাপে আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা কোণঠাসা হয়ে পড়েছে। তবে তালা কলারোয়ার একাধিক ভোটার কর্মি সমর্থকদের সাথে আলাপকালে জানা গেছে, তারা সৎ যোগ্য ত্যাগী প্রার্থীকে মনোনয়নের জন্য জোর দাবি জানিয়েছেন।
তালা ও কলারোয়া উপজেলা নিয়ে গঠিত সাতক্ষীরা-১ আসন। এ আসন থেকে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ওয়ার্কার্স পার্টির প্রার্থী এড. মোস্তফা লুৎফুল্লাহ মনোনয়ন পেয়ে নৌকা প্রতীক নিয়ে জয়যুক্ত হন। এবারও তিনি ওয়ার্কার্স পার্টির হয়ে ১৪ দলগতভাবে মনোনয়ন চাচ্ছেন। তবে এ আসনটি ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ নিজের দলের করে নিতে শেষ মুহূর্তে তৃণমুলের নেতাকর্মীরা আন্দোলন সংগ্রাম চালিয়ে যাচ্ছেন।

 

এখানে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে মাঠে কাজ করছেন এবং মনোনয়ন কিনেছেন ১৮ জন। তারা হলেন, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি ও সাবেক এমপি ইঞ্জিনিয়ার শেখ মুজিবুর রহমান, একমাত্র সর্বকনিষ্ঠ নারী প্রার্থী হিসেবে বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ স ম আলাউদ্দীনের কন্যা জেলা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের সাধারণ সম্পাদক জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক লায়লা পারভিন সেঁজুতি, সাবেক এমপি বিএম নজরুল ইসলাম, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ফিরোজ কামাল শুভ্র, তালা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ নুরুল ইসলাম, জেলা কৃষকলীগের সভাপতি বিশ্বজিৎ সাধু, কলারোয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ফিরোজ আহমেদ স্বপন, জেলা আওয়ামী লীগের কৃষি বিষয়ক সম্পাদক সরদার মুজিব, এড. অনিত কুমার মুখার্জি, স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা এসএম আমজাদ হোসেন, যুবলীগের কেন্দ্রীয় নেতা সরদার রফিকুল ইসলাম, মন্ময় মনির, শেখ আমজাদ হোসেন, কামরুজ্জামান সোহাগ, মনোয়ারা ফারুক, অহিদুল ইসলাম সজিব, আহসান কবির টুটুল ও এড. মোহাম্মদ হোসেন মনোনয়ন প্রত্যাশী। বিএনপি থেকে মনোনয়নে বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ও জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি সাবেক এমপি হাবিবুল ইসলাম হাবিব। এড. ওয়াছেল উদ্দীন, জাতীয় পার্টি থেকে জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় নেতা সাবেক তথ্য প্রতিমন্ত্রী সৈয়দ দিদার বখ্ত ও এম মুনসুর আলি। এছাড়া রয়েছেন জাসদের প্রার্থী হিসেবে রয়েছেন কেন্দ্রীয় জাসদের যুগ্ম সম্পাদক শেখ ওবায়েদুস সুলতান বাবলু।

তবে সকল নেতা কর্মিদের দৃষ্টি কেন্দ্রের দিকে কে পাচ্ছেন সেই নৌকার টিকিট নাকি আবারও শরীক দল পাবে নৌকার টিকিট তার জন্য আরও দু’একদিন তালা-কলারোয়াবাসিকে অপেক্ষা করতে হবে।

 

##