এক নজরে সাতক্ষীরার ভোটের ফলাফল


1402 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
এক নজরে সাতক্ষীরার ভোটের ফলাফল
মার্চ ২৪, ২০১৯ আশাশুনি কলারোয়া কালিগঞ্জ তালা দেবহাটা ফটো গ্যালারি শ্যামনগর সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

মনজুর কাদীর ::

সাতক্ষীরা ৭ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগের ৫ জন ও বিদ্রোহী প্রার্থী দুই জন এবং ভাইস চেয়ারম্যান পুরুষ ও মহিলা পদে ১৪ জন বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।

নির্বাচিতরা হলেন সাতক্ষীরা সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে নৌকা প্রতিকের প্রার্থী আলহাজ্ব আসাদুজ্জামান বাবু ৬২ হাজার ৭৭৩ ভোট পেয়ে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দী বিদ্রোহী প্রার্থী আনারস প্রতিকের এস.এম শওকত হোসেন পেয়েছেন ৩৪ হাজার ৩৫৮ ভোট। ভাইস চেয়ারম্যার পুরুষ ও মহিলা পদে বেসরকারীভাবে যারা নির্বাচিত হয়েছেন তারা হলেন, তানভির হোসেন সুজন ও কহিনুর ইসলাম।

কলারোয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আনারস প্রতিকের বিদ্রোহী প্রার্থী আমিনুল ইসলাম লাল্টু ৭১ হাজার ৭৯৭ ভোট পেয়ে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দী নৌকা প্রতিকের প্রার্থী ফিরোজ আহমেদ স্বপন পেয়েছেন মাত্র ৩৭ হাজার ২১১ ভোট। ভাইস চেয়ারম্যার পুরুষ ও মহিলা পদে বেসরকারীভাবে যারা নির্বাচিত হয়েছেন তারা হলেন, কাজী আসাদুজ্জামান শাহজাদা ও শাহনাজ নাজনীন খুকি।

আশাশুনি উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে নৌকা প্রতিকের প্রার্থী এ.বি.এম মোস্তাকিম ৭৫ হাজার ৫১৩ ভোট পেয়ে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দী আনারস প্রতিকের এড. শহিদুল ইসলাম পিন্টু পেয়েছেন ৪০ হাজার ১৪১ ভোট। ভাইস চেয়ারম্যার পুরুষ ও মহিলা পদে বে বেসরকারীভাবে যারা নির্বাচিত হয়েছেন তারা হলেন, অসিম বরন চক্রবর্তী ও মোসলেমা আক্তার মিলি।

দেবহাটা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে নৌকা প্রতিকের প্রার্থী মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব আব্দুল গণি ২৪ হাজার ৭৬৫ ভোট পেয়ে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দী আনারস প্রতিকের বিদ্রোহী প্রার্থী এড. গোলাম মোস্তফা পেয়েছেন ১৬ হাজার ২৯৫ ভোট। ভাইস চেয়ারম্যার পুরুষ ও মহিলা পদে বেসরকারীভাবে যারা নির্বাচিত হয়েছেন তারা হলেন, হাবিবুর রহমান ও জি.এম স্পর্শ।

তালা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে নৌকা প্রতিকের প্রার্থী ঘোষ সনদ কুমার ৫১ হাজার ২৭৬ ভোট পেয়ে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দী আনারস প্রতিকের এম.এম ফজলুল হক পেয়েছেন ৪৮ হাজার ৭০০ ভোট। ভাইস চেয়ারম্যার পুরুষ ও মহিলা পদে বেসরকারীভাবে যারা নির্বাচিত হয়েছেন তারা হলেন, সরদার মশিয়ার রহমান ও মুর্শিদা পারভীন পাপড়ি।

কালিগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে বিদ্রোহী প্রার্থী সাঈদ মেহেদী ঘোড়া প্রতিক নিয়ে ৫৬ হাজার ৮৩৮ ভোট বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দী আনারস প্রতিকের স্বতন্ত্র প্রার্থী শেখ মেহেদী হাসান পেয়েছেন ৩৪ হাজার ৭৬৬ ভোট। ভাইস চেয়ারম্যার পুরুষ ও মহিলা পদে বেসরকারীভাবে যারা নির্বাচিত হয়েছেন তারা হলেন, নাজমুল ইসলাম ও দিপালী রানী ঘোষ।

শ্যামনগর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে নৌকা প্রতিকের প্রার্থী আতাউল হক দোলন ৭২ হাজার ৫২৪ ভোট বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দী দোয়তকলম প্রতিকের প্রার্থী জি.এম ওসমান গনি পেয়েছেন ১০ হাজার ৯৬৮ ভোট। ভাইস চেয়ারম্যার পুরুষ ও মহিলা পদে বেসরকারীভাবে যারা নির্বাচিত হয়েছেন তারা হলেন, সাঈদুজ্জামান সাঈদ ও খালেদা আয়ুব জলি।

#