এবার কি মোদির নজরে ‘ভিকি ডোনার’


269 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
এবার কি মোদির নজরে ‘ভিকি ডোনার’
আগস্ট ২৭, ২০১৬ প্রবাস ভাবনা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক :
বিতর্কিত ‘সারোগেসি বিল’ পাশ হওয়ার পর এবার ‘ভিকি ডোনার’দের উপর নজর দিতে পারে ভারতের নরেন্দ্র মোদির সরকার। সংবাদসংস্থা পিটিআইয়ের খবর, ‘অ্যাসিস্টেড রিপ্রোডাকটিভ টেকনোলজি’ (এআরটি) বিল তৈরির কাজ শেষ পর্যায়ে। ওই বিলে আইভিএফ (ইন-ভিট্রো ফার্টিলাইজেশন) প্রক্রিয়া, শুক্রাণু এবং ডিম্বাণু ব্যাংকগুলিতে নজরদারির প্রস্তাব থাকবে। জাতীয় এবং রাজ্য পর্যায়ে বোর্ড গড়ে আইভিএফ ক্লিনিকে নজর রাখা হবে বলে দেশটির কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী জে পি নড্ডা জানিয়েছেন।

পাশাপাশি সমালোচনা যতই হোক না কেন, বাণিজ্যিক গর্ভভাড়া নিষিদ্ধ করার ব্যাপারে কার্যত অনড় কেন্দ্র। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, ওই বিলের বিষয়ে বিভিন্ন পরামর্শ তারা অবশ্যই শুনবেন। কিন্তু সন্তান পরিত্যাগ বা মহিলাদের গর্ভ বাণিজ্যিকভাবে ব্যবহার প্রতিরোধের ক্ষেত্রে বিলে কোন সংশোধন করা হবে না।

দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘‘আমরা বাণিজ্যিকভাবে গর্ভভাড়া দেওয়া বন্ধ করতে চাইছি। মায়েদের নিপীড়ন এবং শোষণ বন্ধ করা আমাদের দায়িত্ব। বিলটি এবার সংসদীয় কমিটিতে যাবে। তখন সব পরামর্শ শোনা হবে।’’ একক অভিভাবকেরা কেন গর্ভদাত্রী মায়ের সাহায্যে সন্তানলাভ করতে পারবেন না এমন প্রশ্নের উত্তরে নড্ডা জানিয়েছেন, সে ক্ষেত্রে সন্তানের উপরে অত্যাচারের সম্ভাবনা থেকে যায়!

সম্প্রতি দেশটির মন্ত্রিসভায় ‘সারোগেসি (রেগুলেশন) বিল, ২০১৬’ অনুমোদিত হয়েছে। অভিযোগ উঠেছে, কেন্দ্র জোর করে কিছু ‘মূল্যবোধ’ চাপিয়ে দিতে চাইছে। স্বাস্থ্যমন্ত্রী নড্ডার দাবি, ‘‘কিছুই চাপিয়ে দেওয়া হচ্ছে না। অনেকেই সন্তান পরিত্যাগ করেন। তা বন্ধ করতে চেষ্টা করেছি মাত্র।’’ স্বাস্থ্যমন্ত্রীর দাবি, বিজ্ঞানের অগ্রগতি যাতে নিঃসন্তান দম্পতিদের সন্তানলাভে সহায় হয়, সেজন্যও তারা চেষ্টা করবেন।

এই ‘সারোগেসি বিল’ তৈরির দায়িত্বপ্রাপ্ত কমিটির প্রধান ছিলেন বিদেশ বিষয়ক মন্ত্রী সুষমা স্বরাজ। তাকে কটাক্ষ করেছেন সমকামী অধিকার আন্দোলনের কর্মী হরিশ আয়ার। ভারত থেকে তাকে উদ্ধার করার জন্য সুষমাকে অনুরোধ করে হরিশের টুইট, ‘আমি এমন দেশে বাস করি, যেখানে সব আইনই আমার বিরুদ্ধে। ৩৭৭ নম্বর ধারার কারণে আমি প্রিয় মানুষের সঙ্গে থাকতে পারব না। দত্তক নিতে পারব না। এবার গর্ভদাত্রীর সাহায্যে সন্তানলাভের অধিকারও কেড়ে নেওয়া হল। আমাকে বাঁচান’! প্রসঙ্গত, বিদেশে বিপদগ্রস্ত ভারতীয়দের উদ্ধার করার ব্যবস্থা করে ইদানীং জনপ্রিয় হয়েছেন সুষমা।