ওজন নিয়ন্ত্রণে কুমড়া


361 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
ওজন নিয়ন্ত্রণে কুমড়া
নভেম্বর ২৪, ২০১৫ ফটো গ্যালারি স্বাস্থ্য
Print Friendly, PDF & Email

ভয়েস অব সাতক্ষীরা ডটকম ডেস্ক :
মিষ্টি কুমড়া অনেকেরই খুব প্রিয় সবজি। ভিটামিন-এ তে ভরপুর এই ধরণের কুমড়া মানবদেহের জন্যও উপকারী। মিষ্টি কুমড়া দিয়ে ভাজি থেকে শুরু করে আচার, নিরামিষ, মাংস রান্না সব কিছুই করা হয়ে থাকে। কুমড়োতে ভিটামিন-এ, বি-কমপ্লেক্স, সি, ই, পটাশিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, আয়রন, জিংক, ফ্লেভনয়েড পলি-ফেনলিক, অ্যান্টিঅক্সিডেণ্ট উপাদান সমূহ যেমন লিউটিন, জ্যানথিন এবং আরও অনেক উপাদান আছে। কুমড়াতে ক্যালোরিও বেশ কম থাকে। কিন্তু অনেকের জানা নেই, এসব ছাড়াও কুমড়ার এমন কিছু গুণাগুণ আছে যা অবাক করার মতো। চলুন এবার জেনে নেওয়া যাক এর পুষ্টিগুণ।

১. মিষ্টি কুমড়ার ভিটামিন-এ উপাদান চোখের জন্য উপকারী। বিশেষ করে যারা কম বা অস্পষ্ট আলোর মধ্যে থাকে, তাদের চোখকে কর্ণিয়া থেকে রক্ষা করে থাকে।

২. কুমড়ার বিশেষ উপাদান বিটা-ক্যারোটিন মানবদেহের রোগ-প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে।

৩. মিষ্টি কুমড়ায় ফাইবার ও পটাশিয়াম আছে প্রচুর পরিমানে। ফাইবার উপাদান দেহের ক্ষুধা নিয়ন্ত্রণ করে থাকে। আর পটাশিয়াম দেহ থেকে অপ্রয়োজনীয় জল ও লবণ বের করে ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে।

৪. পুষ্টি ও ফাইবারে ভরপুর কুমড়া খেলে দেহের হজম শক্তি বৃদ্ধি পায়।

৫. কুমড়ার আসল উপাদান ভিটামিন-এ ও বিটা ক্যারোটিন মানবদেহের ত্বক খুব ভালো রাখতে সাহায্য করে এবং দেখতে কম বয়স্ক লাগে।

৬. কুমড়ার এর বীজে আছে ভিটামিন বি কমপ্লেক্স। যা মানবদেহের উর্বরতা বৃদ্ধি করতে সহায়তা করে।

৭. মিষ্টি কুমড়াতে আছে প্রচুর পরিমানে পটাশিয়াম উপাদান। যা মানবশরীরে উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে থাকে।