কচুয়ায় দীর্ঘ ২৫ বছর পর রাস্তা উন্মুক্ত


82 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কচুয়ায় দীর্ঘ ২৫ বছর পর রাস্তা উন্মুক্ত
নভেম্বর ২২, ২০২২ আশাশুনি ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

এস কে হাসান ::

আশাশুনি উপজেলার কুল্যা ইউনিয়নে এলাকাবাসীর দাবীর প্রতিফলন হিসাবে ২৫ বছর পর একটি রাস্তা উন্মুক্ত ও মাটির কাজের মাধ্যমে ব্যবহার যোগ্য করে তোলা হয়েছে। ইউনিয়নের কচুয়া ঋষি পাড়ায় সকল বাধা বিপত্তিকে টপকে রাস্তার কাজ করা হয়েছে।
কচুয়া গ্রামের সন্তোষ ও সুকুমার ঋষির বাড়ি হতে কচুয়া-জামালনগর ইটের সোলিং রাস্তা পর্যন্ত রাস্তা উন্মুক্ত করে মাটির কাজের মাধ্যমে পাড়া ও এলাকাবাসীর চলাচলেরর পথ করে দেওয়ার দাবী ছিল প্রায় ২৫ বছর আগে থেকে। এনিয়ে গ্রাম্য ভাবে, ইউনিয়ন পরিষদের মাধ্যমে অসংখ্যবার চেষ্টা করা হলেও শেষ পর্যন্ত হয়ে ওঠেনি। স্থানীয় ইউপি সদস্য আঃ কাদের সানা নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে পাড়ার অবহেলিত ও বঞ্চিত মানুষ যাতয়াতের পথ উন্মুক্ত করার দাবী জোরালো ভাবে তুলতে থাকেন। মেম্বার আঃ কাদের সানা পাড়ার লোকদের নিয়ে স্থানীয় ভাবে চেষ্টা করে সম্ভব না হওয়ায় আদালতের স্মরনাপন্ন হন। মেম্বারের সহযোগিতায় অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের আদালস সাতক্ষীরায় পি-১০১৬/২১ (আশাঃ) নং মামলা করেন সন্তোষ কুমার ও গোপাল দাশ। বিজ্ঞ আদালত এসি ল্যান্ডের প্রতিবেদন ও উভয় পক্ষের শুনানি শেষে ২৫/১০/২২ তাং “উভয় পক্ষ পথ উন্মুক্ত রাখতে প্রস্তুত আদালতে সম্মতি প্রকাশ করেন। ওসি আশাশুনি থানা পরবর্তীতে উক্ত পথ উন্মুক্ত রাখা নিশ্চিত করবেন।” মর্মে রায় প্রদান করেন। ইউপি চেয়ারম্যান ওমর ছাকি পলাশ ও মেম্বার আঃ কাদের সানা থানা পুলিশের সহযোগিতা ও গ্রাম পুলিশ নিয়ে পাড়ার লোকজনের উপস্থিতিতে সন্তোষ ও সুকুমার ঋষির বাড়ি হতে কার্তিক ঋষির বাড়ির উপর দিয়ে পরিতোষ, প্রভাষ, দুলাল ও বল্লভের বাড়ির পাশ দিয়ে যতিনের ঘরের পাশ দিয়ে কচুয়া-জামালনগর ইটের সোলিং রাস্তা পর্যন্ত পথ উন্মুক্ত করেন। সাথে সাথে পথে মাটির কাজ করে চলাচল উপযোগি করেছেন।
রাস্তাটি উন্মুক্ত ও মাটির কাজ সম্পন্ন হওয়ায় পাড়ার শতাধিক পরিবার বাড়ি থেকে নির্বিঘেœ যাতয়াত ও বিভিন্ন গ্রামের মানুষ রাস্তা দিয়ে বিলে যাতয়াত করতে পারবে। ফলে এলাকাবাসীর মধ্যে স্বস্তি দেখা দিয়েছে। তবে পথ উন্মুক্তে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টিকারীরা এখনো ঘড়যন্ত্রে লিপ্ত থাকতে পারে এবং মিথ্যা অভিযোগ এনে হয়রানী করার মত কাজ করতে পারে বলে শঙ্কা প্রকাশ করা হয়েছে। এব্যাপারে এলাকাবাসী, জন প্রতিনিধি, প্রশাসন ও আইন প্রয়োগকারী সংস্থার সহযোগিতা অব্যাহত রাখতে অনুরোধ জানানো হয়েছে।