কপিলমুনিতে রায় সাহেব’র মৃত্যু বার্ষিকীতে আলোচনা সভা


111 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কপিলমুনিতে রায় সাহেব’র মৃত্যু বার্ষিকীতে আলোচনা সভা
জানুয়ারি ১৮, ২০২১ খুলনা বিভাগ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

পলাশ কর্মকার ::

কপিলমুনিতে দানবীর স্বর্গীয় রায় সাহেব বিনোদ বিহারী সাধু’র ৮৭ তম তিরোধন দিবস উপলক্ষ্যে বিনোদ বিহারী সাধু স্মৃতি সংরক্ষণ পরিষদের উদ্যোগে আলোচনা সভা ও র‌্যালী অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার সকাল ৯ টায় র‌্যালী বের হয়, র‌্যালীটি কপিলমুনি বাজারের প্রধান সড়কগুলো প্রদক্ষিণ করে বেদ মন্দিরে গিয়ে শেষ হয়। সকাল ১০ টায় সংগঠনটির সভাপতি ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ কওছার আলী জোয়ার্দারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় সম্মানীত অতিথি ছিলেন উপজেলা আ’লীগের যুগ্ম সাঃ সম্পাদক আনন্দ মোহন বিশ্বাস, উপাধ্যক্ষ ত্রিদিব কান্তি মন্ডল, সহচরী বিদ্যামন্দির স্কুল এন্ড কলেজের প্রধান শিক্ষক মোঃ কবীর আহম্মেদ, ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি যুগোল কিশোর দে, সাঃ সম্পাদক শেখ ইকবাল হোসেন খোকন, প্রেসক্লাবের সাঃ সম্পাদক গাজী আঃ রাজ্জাক রাজু, সহকারী অধ্যাপক রেজাউল করিম, বিনোদ বিহারী শিশু বিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ মোঃ মুজিবর রহমান, সাধন চন্দ্র ভদ্র, চম্পক পাল, জি এম হেদায়েত আলী টুকু, রামপ্রসাদ পাল, অনুপম সাধু, সন্দীপ সাধু প্রমূখ। বক্তারা বলেন, ‘রায় সাহেব বিনোদ বিহারী সাধু মাত্র ১৩ বছর বয়সে শুরু করেন। তাঁর ব্যবসায়ীক উপার্জনের পয়সা দিয়ে বৃহত্তর কপিলমুনির মানুষের শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থা করেছেন। মায়ের নামে সহচরী বিদ্যামন্দির (বর্তমানে স্কুল এন্ড কলেজ), ২০ শয্যা বিশিষ্ট ভরত চন্দ্র হাসপাতাল, অমৃতময়ী টেকনিক্যাল স্কুলপ্রতিষ্ঠা করেন। তাঁর সমাজ সেবার পুরস্কার হিসেবে তৎকালীন সরকার তাঁকে রায় সাহেব উপাধিতে ভূষিত করেন। রায় সাহেবের মত গুণীজন বর্তমান সমাজে অনেকটা বিরল, তাঁর কর্মময় জীবন সম্পর্কে নতুন প্রজন্মের কাছে তুলে ধরতে হবে।’
প্রসংগত এই দানবীবের মৃত্যু বার্ষিকীতে সোমবার সারাদিন কপিলমুনি বাজারের সকল দোকান পাট বন্ধ রাখা হয়েছিল।

#