কপিলমুনি সংবাদ ॥ শাপলা চত্ত্বরে আবারও দুর্ধর্ষ গাড়ী ডাকাতি : সড়কে আতংক


212 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কপিলমুনি সংবাদ ॥ শাপলা চত্ত্বরে আবারও দুর্ধর্ষ গাড়ী ডাকাতি : সড়কে আতংক
জানুয়ারি ৩১, ২০১৯ খুলনা বিভাগ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

পলাশ কর্মকার, কপিলমুনি ::

কপিলমুনি-তালা সীমান্ত ডেঞ্জার জোন শাপলা চত্ত্বর এলাকায় বুধবার গভীর রাতে আবারও দুধর্ষ গাড়ী ডাকাতি সংঘঠিত হয়েছে। ডাকাতরা ৬ টি ট্রাক ১ টি প্রাইভেট ও একটি চিংড়ি মাছের পিকআপ গতি রোধ করে ডাকাতি করে। জানাযায়, ১৫/২০ জনের সংগবদ্ধ একদল মুখোশধারী ডাকাত তালা থানার আওতাধীন শাপলা গেটের পাশেই গংগারামপুর এলাকায় খুলনা কপিলমুনি প্রধান সড়কের উপর কাঠের গুড়ি ফেলে ৮ টি গাড়ীর গতি রোধ করে। এ সময় ডাকাতরা অস্ত্র ঠেকিয়ে ৬ টি ট্রাকের ড্রাইভারদের নিকট থেকে নগদ টাকা ও তাদের মোবাইল ফোন নিয়ে নেয়। এছাড়া খুলনা থেকে চিংড়ি মাছ বিক্রি করে আসবার সময় কপিলমুনি বাজারের বিশিষ্ট মাছ ব্যবসায়ী ও হরিঢালী ইউনিয়নের শেখ রফিকুল ইসলামের মাছের পিকাপের গতি রোধ করে তার নিকট থেকে নগদ এক লক্ষ টাকা ও তার মোবাইল ফোন নিয়ে নেয়। এ ছাড়া একই সময়ে আসা আরেকটি প্রাইভেটকারের গতি রোধ করে এক মহিলার কাছ থেকে ডাকাতরা নগত টাকা মোবাইল ফোন ও স্বর্নালংকার নিয়ে যায়। তবে গাড়ী ডাকাতির ঘটনা জানতে পেরে কপিলমুনি পুলিশ ফাড়ির টহল দল ঘটনা স্থলে পৌছানোর আগেই ডাকাতরা ২ টি শক্তিশালী বোমা ফাটিয়ে চলে যায়।
কপিলমুনি পুলিশ ফাড়ির ইনচার্জ ইন্সপেক্টর সঞ্জয় দাশ জানান, আমাদের ওসি সাহেব এবং আমি ঘটনা স্থল পরিদর্শন করেছি। ডাকাতির ঘটনাস্থল তালা থানা এলাকায় বলে আমরা তালা থানার ওসিকে ঘটনাটি অবহিত করেছি। তা ছাড়া পাইকগাছার মুচির পুকুর এলাকায় গত ২৮ জানুয়ারী রাত ২ টায় পাইকগাছা শাফলা ক্লিনিকের নিজস্ব একটি মোটর সাইকেল ছিনতাই হয়।
এলাকাবাসী জানান, আঠারো মাইল থেকে তালার সীমান্ত এলাকা কাশিমনগর শাপলা গেট পর্যন্ত এ সড়টি ডেঞ্জার জোন হিসাবে পরিচিত। ২০০৮ থেকে ২০১৫ পর্যন্ত প্রায়ই এ সড়কে ডাকাতি ও ছিনতাই হতো। ২০১৫ সালের পর এ জোনে ডাকাতি ছিনতাই রোধ হলেও বর্তমান আবারও পূর্বের অবস্থায় ফিরে যাচ্ছে। চলতি মাসে একাধিক ডাকাতির ঘটনায় ব্যবসায়ী যাত্রীসহ পথচারীরা চরম আতংকিত হয়ে পড়েছেন।

#

কপিলমুনিতে এমপি বাবুর পক্ষে দুস্থ্যদের মাঝে কম্বল বিতারণ

পলাশ কর্মকার, কপিলমুনি ::

খুলনা-৬ আসনের এমপি আলহাজ্ব আকতারুজ্জামান বাবু’র পক্ষে কম্বল বিতারণ করা হয়েছে। বুধবার বিকাল সন্ধ্যায় কপিলমুনি প্রেসক্লাব মিলনায়তনে উপজেলার কপিলমুনি ইউনিয়নের দুস্থ্য, অসহায়দের মাঝে ১০০ টি কম্বল বিতারণ করা হয়। কম্বল বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতথি ছিলেন কপিলমুনি ফাঁড়ি ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক সঞ্জয় দাশ। প্রেসক্লাবের সভাপতি শেখ শামছুল আলম পিন্টুর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক রাজুর পরিচালনায় উপস্থিত ছিলেন, প্রেসক্লাবের সহ- সভাপতি মুন্সি রেজাউল করিম মহব্বত, কোষাধ্যক্ষ এ কে আজাদ, ক্রীড়া সম্পাদক এইচ এম শফিউল ইসলাম, দপ্তর সম্পাদক জি এম হাসান ইমাম, এস এম লোকমান হেকিম, সাবেক সভাপতি শেখ আব্দুল গফুর, চম্পক কুমার পাল, মহাদেব সাধু প্রমুখ।

#