কমিটি ভেঙে দেওয়ায় বিএনপি কার্যালয়ে ছাত্রদলের তালা


98 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কমিটি ভেঙে দেওয়ায় বিএনপি কার্যালয়ে ছাত্রদলের তালা
জুন ১১, ২০১৯ জাতীয় ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::

মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটি ভেঙে দেওয়ার প্রতিবাদে নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে তালা ঝুলিয়ে দিয়েছে ছাত্রদলের বিক্ষুব্ধ নেতা-কর্মীরা। মঙ্গলবার সকাল ১১টার দিকে কার্যালয়ের গেটে তালা দিয়ে সামনে অবস্থান নেন তারা।

ছাত্রদলের বিক্ষুব্ধ নেতা-কর্মীরা মধ্যে কয়েকজন কার্যালয়ের নিচতলায় অনশনে বসেছেন। তারা বলেন, ছাত্রদলের কমিটি ভেঙে দেওয়ার ঘোষণা প্রত্যহার করে তিনটি প্রস্তাবের ভিত্তিতে নতুন কমিটি করতে হবে। সেগুলো হলো- বয়সের সীমারেখা না রাখা, স্বল্পমেয়াদী কমিটি গঠন এবং কেন্দ্রীয়, বিশ্ববিদ্যালয়, মহানগর ও কলেজের সমন্বয়ে কেন্দ্রীয় কমিটি গঠন।

২০১৪ সালের ১৪ অক্টোবর ছাত্রদলের সর্বশেষ কমিটি গঠন করা হয়। রাজীব আহসানকে সভাপতি ও আকরামুল হাসানকে সাধারণ সম্পাদক করে গঠিত ওই আংশিক কমিটিতে ১৫৩ জন সদস্য ছিলেন। দীর্ঘদিন পর সেই কমিটি পূর্ণাঙ্গ করে ৭৩৬ জনকে পদ দেওয়া হয়। ওই কমিটি নিয়েও ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছিল।

এরপর গত ৬ জুন ছাত্রদলের ওই মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটি ভেঙে দেয় বিএনপি। একই সঙ্গে নতুন কাউন্সিলে প্রার্থিতার জন্য তিনটি যোগ্যতা নির্ধারণ করে দেওয়া হয়। সেগুলো হলো- প্রার্থীকে ছাত্রদলের প্রাথমিক সদস্য হতে হবে, তাকে অবশ্যই বাংলাদেশের কোনো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী হতে হবে। ২০০০ সালের পরে এসএসসি/সমমানের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে। নতুন কাউন্সিল গঠনের জন্য সংগঠনটির সাবেক নেতাদের নিয়ে সোমবার তিনটি কমিটিও করে দেয় বিএনপি।

কিন্তু কমিটি ভেঙে দেওয়া ও প্রার্থিতার জন্য বয়সের শর্ত দেওয়ার প্রতিবাদে মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে বিএনপি অফিসের সামনে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ শুরু করেন ছাত্রদলের বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা। এর কিছুক্ষণ পর কার্যালয়ের সামনে আসেন- ছাত্রদলের সাবেক নেতা শামসুজ্জামান দুদু, আমানউল্লাহ আমান, ফজলুল হক মিলন, শহীদউদ্দিন চৌধুরী এ্যানি, এবিএম মোশাররফ হোসেন, শফিউল বারী বাবু, আবদুল কাদের ভুঁইয়া জুয়েল। কিন্তু বিক্ষোভের মধ্যে তারা অফিসে প্রবেশ করতে পারেননি। পরে তাদের নয়া পল্টনে হোটেল ভিক্টোরিয়া সামনে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায়।

বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী অসুস্থ অবস্থায় কার্যালয়ের ভেতরে আছেন। সেখানে গত কয়েকদিন ধরে তার চিকিৎসা চলছে। এছাড়া বিক্ষোভ শুরুর আগে কার্যালয়ে প্রবেশ করেন ছাত্রদলের সাবেক নেতা খায়রুল কবির খোকন ও আজিজুল বারী হেলাল।