কম্বোডিয়ায় চলছে বাংলাদেশ বাণিজ্য-বিনিয়োগ কনফারেন্স


309 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কম্বোডিয়ায় চলছে বাংলাদেশ বাণিজ্য-বিনিয়োগ কনফারেন্স
জানুয়ারি ২৪, ২০১৭ জাতীয় ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::
এশিয়ার দেশ কম্বোডিয়ায় বাংলাদেশের বাণিজ্য-বিনিয়োগ বাড়ানোর পদক্ষেপ হিসেবে রাজধানী নমপেনে মঙ্গলবার সকালে শুরু হয়েছে ট্রেড অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট কনফারেন্স ২০১৭। কম্বােডিয়ার দায়িত্বে থাকা থাইল্যান্ড বাংলাদেশ দূতাবাসের আয়োজনে নমপেনের সোখা হোটেলে বিভিন্ন সেশনে বাংলাদেশর পণ্য ও বিনিয়োগের পরিবেশ তুলে ধরা হচ্ছে।

কম্বোডিয়ার বাণিজ্য মন্ত্রী চুয়োন দারা সকালের উদ্বোধনী সেশনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশের বাণিজ্য সচিব হেদায়েতুল্লাহ আল মামুন, কম্বোডিয়ার দায়িত্বে থাকা বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত সাইদা মুনা তাসনীম, বাংলাদেশের বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের কাজী আমিনুল ইসলাম, এফবিসিসিআইর সভাপতি আবদুল মাতলুব আহমেদ এবং কম্বোডিয়ার চেম্বার অব কমার্সের প্রেসিডেন্ট নেইক ওখা কিথ মিংসহ ব্যবসায়ী প্রতিনিধিরা।

কনফারেন্স উপলক্ষে সোখা হোটেলের বলরুমে সকাল থেকেই কম্বােডিয়া প্রবাসীদের এক ধরনের মিলন মেলা শুরু হয়েছে। দিনভর বিভিন্ন সেশনে বাংলাদেশের ওষুধ, পাট, গার্মেন্ট, প্লাস্টিক, লেদার, সিরামিক, চা, স্টিল, বেভারেজ ও জনশক্তি সম্পর্কে আলাদা আলাদা প্রবন্ধ উপস্থাপনা করা হবে।

কনফারেন্সের প্রথম প্যানেল আলোচনায় ফার্মাসিউটিক্যাল সেক্টর সম্পর্কে জানাবেন ওয়ান ফার্মার এমডি কে এস এম মুস্তাফিজুর রহমান, পাট পণ্য সম্পর্কে জানাবেন জুট জেডিপিসির ইডি নাসিমা বেগম, গার্মেন্ট সম্পর্কে জানাবেন মেহমুদ ইন্ডাস্ট্রিজের আবদুল ওয়াদুদ।

দ্বিতীয় প্যানেল আলোচনায় বেঙ্গল পলিমারের পক্ষ থেকে আনোয়ার হোসেন প্লাস্টিক পণ্য, দূতাবাসের ফার্স্ট সেক্রেটারি কাজী মুনতাসির মোর্শেদ সিরামিক পণ্য, ট্যানারি অ্যাসোসিয়েশনের সেক্রেটারি নুরুল ইসলাম চামড়াজাত পণ্য সম্পর্কে এবং বেজার নির্বাহী সদস্য মুহাম্মদ আবদুস সামাদ জানাবেন বাংলাদেশের বিনিয়োগ কর্তৃপক্ষের সুবিধাদি সম্পর্কে।

তৃতীয় প্যানেল আলোচনায় চা শিল্পের বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা করবেন কাজী অ্যান্ড কাজী টির পরিচালক কাজী এনাম আহমেদ, বেভারেজ অংশ সম্পর্কে তুলে ধরবেন গ্লোব ড্রিঙ্কসের রহিমুল ইসলাম ভূঁইয়া, স্টিল সেক্টরের বিভিন্ন দিক তুলে ধরবেন বিএসআরএমের মোহাম্মদ মনির হোসাইন এবং বাংলাদেশের জনশক্তি কম্বোডিয়ায় কীভাবে ব্যবহৃত হতে পারে তা সম্পর্কে প্রতিবেদন উপস্থাপন করবেন দূতাবাসে শ্রম সচিব এ কে এম মনিরুজ্জামান।