করোনায় আরেক চিকিৎসকের মৃত্যু


170 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
করোনায় আরেক চিকিৎসকের মৃত্যু
মে ১৩, ২০২০ জাতীয় ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::

কিশোরগঞ্জের সন্তান দেশের অন্যতম প্রখ্যাত রেডিওলজিস্ট, ইবনে সিনা ডি.ল্যাব ধানমন্ডির চীফ রেডিওলজিস্ট বীর মুক্তিযোদ্ধা ডা. মেজর (অব.) আবুল মোকারিম করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন।

মঙ্গলবার রাত ১১টা ২০মিনিটে তিনি ঢাকার সিএমএইচএ চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। তিনি করোনায় আক্রান্ত হয়ে প্রথমে ইবনে সিনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ও পরে সিএমএইচ এর আইসিইউতে ভর্তি ছিলেন। এই নিয়ে দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে তিনজন চিকিৎসকের মৃত্যু হলো।

বুধবার জোহর নামাজের পর রাজধানীর বনানী কবরস্থানে জানাজা শেষে সেখানে তাকে দাফন করা হবে। বাংলাদেশের অন্যতম বিখ্যাত রেডিওলজিস্ট বীর মুক্তিযোদ্ধা ডা. মেজর (অব.) আবুল মোকারিমির বাড়ি কিশোরগঞ্জ জেলার পাকুন্দিয়া উপজেলার জাঙ্গালিয়া ইউনিয়নের চরটেকী গ্রামে। তার মৃত্যুতে পাকুন্দিয়াসহ সারা জেলা ও চিকিৎসকদের মধ্যে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

জেলা স্বাধীনতা চিকিৎসা পরিষদের সভাপতি ডা. দীন মোহাম্মদ জানান, ব্যক্তি জীবনে ডা. মোকারিম একজন সফল মানুষ ছিলেন। তারা ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে একই বর্ষের ছাত্র ছিলেন। ময়মনসিংহ মেডিকেলে এম-১১ নামে তাদের গ্রুপের বিশাল পরিচিত ছিল। প্রতি বছরের ২৫ ডিসেম্বর তারা একত্রিত হয়ে আড্ডা, সম্মৃতিচারণসহ মানবিক কাজে নিজেদের সম্পৃক্ত করতেন। সে না থাকায় তিনিসহ তার সহকর্মীরা দারুণভাবে মর্মাহত।

পাকুন্দিয়া চরটেকি স্কুল এন্ড কলেজের সিনিয়র শিক্ষক মোস্তাফিজুর রহমান চুন্নু জানান, ডা. মোকারিম ছিলেন জনদরদী একজন সাদা মনের মানুষ। প্রতি ঈদে তিনি গ্রামে এসে যাদের ঘরবাড়ি নেই, তাদেরকে ঘর-বাড়ি করার জন্য অনুদান প্রদান করতেন। প্রতি ঈদে তার মাধ্যমে এ এলাকার নিম্নবিত্ত লোকজন ঘর করার সুযোগ পেতেন। তার মৃত্যুতে পুরো গ্রামে স্তব্ধতা ও নিরবতা বিরাজ করছে।

গ্রামবাসীরা জানায়, তিনি এলাকার বিভিন্ন সেবামূলক কাজে নিবেদিত ছিলেন। নিজ জেলার মানুষের বিপদে-আপদে তিনি সর্বদা সাহায্য-সহযোগিতার হাত প্রসারিত রেখেছিলেন।

এর আগে করোনায় আক্রান্ত হয়ে গত ৩ মে সন্ধ্যায় ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে মারা যান হেমাটোলজিস্ট এবং ল্যাবরেটরি মেডিসিন স্পেশালিস্ট অধ্যাপক কর্নেল (অব.) মো. মনিরুজ্জামান। তিনি আনোয়ার খান মডার্ন মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের চিফ হেমোটোলজিস্ট ছিলেন।

তার আগে গত ১৫ এপ্রিল কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে মারা যান সিলেটের ওসমানী মেডিকেল কলেজের সহকারী অধ্যাপক ডা. মঈন উদ্দিন।