কলারেয়া ভাদিয়ালী গ্রামে সন্ত্রাসী মুজিবরের ক্ষমতার দাপট


388 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কলারেয়া ভাদিয়ালী গ্রামে সন্ত্রাসী মুজিবরের ক্ষমতার দাপট
নভেম্বর ২০, ২০১৬ কলারোয়া ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

স্টাফ রিপোর্টার :

সাতক্ষীরা কলারোয়া থানার ভাদিয়ালী গ্রামে মোঃ আঃ রকিব ২ দাগে ২৮ শতক জমি ক্রয় করে বসবাস করে আসছে দির্ঘ ২৮/২৯ বছর যাবত। প্রতিবেশি মুজিবর হঠাৎ ২৫ বছর পর পাকিস্তান থেকে এসে রকিবের জমির ফলন্ত নারিকেল গাছ কেটে দিয়েছে।

প্রতিবাদ করায় মুজিবর ও তার বাহিনি জমির মালিক রকিব ও তার পরিবারের উপর বার বার হামলা করতে থাকলে রকিবের স্ত্রী বাদি হয়ে থানা মামলা দিতে গেলে থানা মামলা না নিলে কোটে মামলা দায়ের করেন, যা বর্তমানে বিচারধীন।

এলাকা বাসি সুত্রে যানা যায়, ভাদিয়ালী গ্রামের মোঃ আঃ রকিব, দুই ভাই এক বোন এর নিকট থেকে ২৮ শতক জমি ক্রয় করে বসবাস করছে বলে এলাকার একাধিক সুত্র থেকে যানা যায়।

বর্তমান চেয়ারম্যান জোর পূর্বক ফলন্ত নারিকেল গাছ কাটার ঘটনা সত্য বলে প্রত্যয়ন পত্র দিলেও, থানার দারেvগা মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে তদন্ত প্রতিবেদনে লিখিত ভাবে জানান যে সরেজমিনে কোনে গাছ কাটার সত্যতা পাওয়া যায়নী।

এমন ঘটনায় এলাকায় চায়ো দোকান থেকে শুরু করে বিভিন্ন স্থানে শোনা যায় আলাপ আলোচনার ঝড়,যা এলাকা বাসি সহ সংশ্লিষ্ঠি মহলে উঠে নানা ধরনের প্রশ্ন ? নাম প্রকাশ না করা শর্তে বলেন মুজিবরের কোনে জমি নাই রকিবের জমির পাশে যে জমি সে জমি হল আয়জুল, জয়নাল,মহিবরদের জমি।

যে ২৮ শতক জমি নিয়ে বার বার মুজিবর বাহিনি রকিবের পরিবারের উপর হামলা করে সে জমি মালিক রকিব। এ জমি নিয়ে মারামারি হওয়ার কারনে এলাকা বাসি কয়েক বার মাপ জোক করে জমির সিমানা দেখিয়ে দিলেও মাপ না মেনে ক্ষমতার ও টাকার গরমে থানা পুলিশ কে হাত করে

রকিবের ফলন্ত নারিকেল গাছ গুলি কেটে দিয়েছে মুজিবর ও তার বাহিনিরা বলে জানান এলাকার একাধিক ব্যক্তিরা।

##