কলারোয়ার আলেয়ার জমি দখলের অভিযোগ


143 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কলারোয়ার আলেয়ার জমি দখলের অভিযোগ
অক্টোবর ১, ২০১৯ কলারোয়া ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

কলারোয়ার তুলশীডাঙা মৌজায় দুই শতক জমি কিনে তিন সন্তানকে নিয়ে বসবাস করছেন ওই গ্রামের রেজাউল করিমের স্ত্রী আলেয়া খাতুন। তার জমির চারপাশে রয়েছে সরকারের খাস জমি। নিয়ম অনুযায়ী ওই জমির ওপর দিয়েই তার চলাচলের কথা। অথচ এলাকার ভূমিদস্যু আনিছুর রহমান আলেয়ার সম্পত্তি জোর করে দখলের ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছে।

মঙ্গলবার দুপুরে প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলন করে একথা বলেন আলেয়া খাতুন। তিনি বলেন তার স্বামী তাকে দেখেন না এই সুযোগ নিয়ে ফজর আলির ছেলে আনিছুর আলেয়ার জমিতে ঢুকে ঘর নির্মান শুরু করে। এতে বাধা দিয়ে তিনি বিষয়টি কলারোয়া থানা পুলিশকে জানান। পুলিশ কাজ বন্ধ করে দিলেও অদৃশ্য কারণে আনিছুর ফের আলেয়ার জমিতে ঘর নির্মান চালাতে থাকে। তিনি এ ব্যাপারে সাতক্ষীরার অতিরিক্ত ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে একটি মামলা করেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে আনিছুর উল্টো কলারোয়া থানায় আলেয়া ও তার ছেলে সুজনের বিরুদ্ধে মামলা করে। পুলিশ তাদের আটক করলেও জনগনের সুপারিশে পরে ছেড়ে দেয়। আলেয়া অভিযোগ করে বলেন এ ঘটনার পর আনিছুর তাকে ও তার ছেলেকে মারপিট করে। এ বিষয়ে তিনি জেলা প্রশাসকের গলশুনানিতে উপিস্থত হয়ে অভিযোগ তুলে ধরেন। গণশুনানি করায় ভূমিদস্যু আনিছুর ক্ষিপ্ত হয়ে আনিছুর নিজে তার ভাই তছিরউদ্দিন, নাছিরউদ্দিন, শরিফউদ্দিন, ঝর্ণা খাতুন, আবারও আলেয়া ও তার ছেলে সুজনকে মারপিট করে। তারা খুন জখমের হুমকি দিয়ে মামলা তুলে না নিলে বিপদ আছে বলে শাসায়।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন মামলাবাজ আনিছুর চাপ প্রয়োগ করে বলছে ৫০ হাজার টাকা দিচ্ছি মামলা তুলে নে। অন্যথায় তোদের আরও জটিল মামলায় জড়িয়ে দেবো। আলেয়া জানান এরই মধ্যে আনিছুর আলেয়ার যাতায়াতের পথ বন্ধ করে দিয়েছে। তার উঠোনে লাগানো গাছপালা কেটে সাবাড় করার নির্দেশ দিয়েছে। আনিছুর ও তার সহযোগী সিরাজুলের উদ্দেশ্য আলেয়ার সব জমি গ্রাস করা। এরই মধ্যে কয়েকটি মেহগনি গাছ কেটেও নিয়েছে তারা। এতে বাধা দিতে গেলেই তারা আলেয়া ও তার পরিবারের সদস্যদের খুন করার হুমকি দিয়েই চলেছে।

আলেয়া এর প্রতিকার ও আনিছুর এবং সিরাজুলের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের সহযোগিতা চেয়েছেন।