কলারোয়ার বাওড় এলাকা অতিথি পাখির আনাগোনায় মুখোরিত


737 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কলারোয়ার বাওড় এলাকা অতিথি পাখির আনাগোনায় মুখোরিত
জানুয়ারি ১৪, ২০১৯ কলারোয়া ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

ডেস্ক রিপোর্ট ::
শীত মৌসুমে কিচির-মিচির ডাকে অতিথি পাখির আনাগোনায় মুখোরিত কলারোয়ার বাওড় এলাকা। উপজেলা দেয়াড়ার দলুইপুরের বিশাল বাওড়ে অতিথি পাখির অভয়াশ্রমে চোখ-প্রাণ জুড়িয়ে যায়। এছাড়া পার্শ্ববর্তী মনিরামপুর ও কেশবপুরের বিভিন্ন বিল ও হাওড়-বাওড়েও দেখ মিলছে অতিথি পাখি। শীতের এ মৌসুমে পানকৌড়ি, বক, বালিহাঁসসহ নাম না জানা বিভিন্ন প্রজাতির অতিথি পাখিরা এসেছে এ অঞ্চলের বাওড় এলাকায়। বাওড়ের কিছুটা দূরে অবস্থিত মিরডাঙ্গা গ্রামের বহু বছরের পুরোনো বটগাছ ও বাওড়েরর আশপাশে অবস্থানরত ঘন বাশঁ গাছে আশ্রয় নিয়েছে ঝাঁকে ঝাঁকে পানকৌড়ি ও সাদাবকসহ অন্যান্য পাখি। নিরাপদ আশ্রয়স্থল হিসেবে পাখিগুলো প্রতিবারের ন্যায় এবারও এখানে আশ্রয় নিয়েছে। সকাল হওয়ার সাথে সাথে তারা আহারের খোঁজে যে যার মতো বেরিয়ে পড়ে নদী-নালা, হাওড়-বাওড় এলাকায়। আহার শেষে আবার ফিরে বিশালাকার বটগাছসহ অন্যান্য এলাকার বাগানের ঝোপঝাড়ে ছোট বড় গাছে। গ্রাম এলাকায় সবসময় লোক সমাগম হলেও তাদের প্রিয় এবং অতি পরিচিত জায়গায় খুঁজে নেয় আশ্রয়স্থলগুলো। এখানকার মানুষের সাথে তাদের যেন খানিকটা আত্মার মিল হয়ে গেছে। মনে হয় আত্মীয়-স্বজনের মতো চেনা জানা এখানকার মানুষগুলো।
উপজেলার দলুইপুর-খোরদো বাওড়েরর চারপাশে অবস্থিত মিরডাঙ্গা, দলুইপুর, দেয়াড়া, পাকুড়িয়াসহ বিভিন্ন গ্রামের অনেকেই জানান- ‘প্রতিবছর শীতের শুরুতেই পাখিগুলো আমাদের এলাকার হাওড়-বাওড় ও নদী এলাকায় এসে আশ্রয় নিতে দেখা যায়। বসন্তের পাখিগুলোকে দেখতেও দারুণ লাগে। ঝাঁকে ঝাঁকে পাখি উড়া আর পানিতে ভাসতে দেখার দৃশ্যও চমৎকার। তবে কেউ কেউ পাখি শিকারও করে থাকে।
রবিবার (১৩ই জানুয়ারি) সরেজমিনে দেখা যায়, দলুইপুর-খোরদোর বৃহত্তম বাওড়েরর মাঝখানে ভাসছে শত শত বিভিন্ন প্রজাতির পাখি। বাওড়ে পানি বেশি থাকায় দূর থেকে অস্পষ্ট পাখিদের ঝাঁকের ছবি ফুটে উঠেছে। পানির উপরে বিভিন্ন স্থানে ভাসছে পাখিগুলো। আবার পাশের কপোতাক্ষ নদের আশপাশ ও নদীর শ্যাওলার উপর ঝাঁকে ঝাঁকে বালিহাঁস এসে ভিড় জমাচ্ছে। এলাকার বড় বড় পুকুর ও ঘেরেও দেখা মিলছে এসব পাখিদের আনাগোনা। এলাকার মানুষের পাশাপাশি অপরূপ এ দৃশ্য দেখতে রীতিমত দর্শনার্থীরা ভিড়ও করছেন।