কলারোয়ায়র কেরালকাতা ইউনিয়নে উপ-নির্বাচন : কেন্দ্রে পৌঁছেছে উপকরণ


170 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কলারোয়ায়র কেরালকাতা ইউনিয়নে উপ-নির্বাচন : কেন্দ্রে পৌঁছেছে উপকরণ
অক্টোবর ১৯, ২০২০ কলারোয়া ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

কে এম আনিছুর রহমান,কলারোয়া(সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি ॥

সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলার কেরালকাতা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচন আজ মঙ্গলবার। এ উপলক্ষে সোমবার (১৯ অক্টোবর) দুপুরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মৌসুমী জেরীন কান্তা প্রিজাইডিং অফিসার ও সহকারী প্রিজাইডিং অফিসারদের কাছে ব্যালট বাক্স, অমোচনীয় কালি, সিল, কলমসহ অন্যান্য উপকরণ হস্তান্তর করেছেন। পরে কঠোর নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে তা ভোট কেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হয়।
তবে, ব্যালট পেপার ভোট কেন্দ্রে পাঠানো হবে ভোট গ্রহণ শুরুর পূর্ব মুহূর্তে অর্থ্যাৎ আজ সকালে।
এ উপ-নির্বাচনে তিনজন প্রার্থী অংশগ্রহণ করছেন। এরা হলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও নৌকা প্রতীকের স. ম মোরশেদ, প্রয়াত ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল হামিদের ভাই ও আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুর রউফ এবং আনসার আলী।
এদিকে, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট গ্রহণের লক্ষ্যে প্রশাসনের তরফ থেকে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।
অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের স্বার্থে মোতায়েন করা হয়েছে পুলিশ, আনসার ও বিজিবি। এছাড়া নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে একাধিক টিম মাঠে কাজ করবে বলেও জানা গেছে।
উপজেলা নির্বাচন অফিসার মনোরঞ্জন বিশ্বাস জানান, কেরালকাতা ইউনিয়নে মোট ভোটকেন্দ্র রয়েছে ৯টি। এর মধ্যে চারটি কেন্দ্র গুরুত্বপূর্ণ কেন্দ্র হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। মোট ভোটার ১৭ হাজার ৪৪৫ জন। প্রসঙ্গত, কেরালকাতা ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল হামিদ এর মৃত্যুজনিত কারণে পদটি শূন্য হয়।

#

কলারোয়ায় ফোর মার্ডারের ঘটনাস্থল পরিদর্শন করলেন সিআইডির এডিশনাল ডিআইজি

কে এম আনিছুর রহমান,কলারোয়া(সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি ॥
সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলার হেলাতলা ইউনিয়নের খলসি গ্রামে একই পরিবারের ৪ জনকে গলা কেটে হত্যার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করলেন সিআইডির এডিশনাল ডিআইজি ওমর ফারুক।
সোমবার (১৯ অক্টোবর) বিকালে তিনি এ পরিদর্শন করেন। এ সময় তার সাথে উপস্থিত ছিলেন সাতক্ষীরা সিআইডির বিশেষ এসপি আনিসুর রহমান, সাতক্ষীরা সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মির্জা সালাউদ্দিনসহ অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ।
এ সময় এডিশনাল ডিআইজি ওমর ফারুক নিহত শাহিনুর রহমানকে যে কক্ষে পা বেঁধে হত্যা করে উপুড় করে রাখা হয়েছিল এবং ২ শিশুসহ শাহিনুরের স্ত্রী সাবিনাকে যে কক্ষে হত্যা করা হয়েছিল তা পরিদর্শন করেন। এছাড়াও ঘটনার প্রথমদিন যারা উপস্থিত ছিলেন সে সব সাধারণ মানুষের বলেন। এ ছাড়া তিনি বাড়ি আঙ্গিনাসহ ও গুরুত্বপূর্ণ স্থান সরেজমিনে পরিদর্শন করেন।
সিআইডির এডিশনাল ডিআইজি ওমর ফারুক সাংবাদিকদের বলেন, একই পরিবারের ৪ সদস্যকে গভীর রাতে হত্যা মামলাটি সিআইডি তদন্ত করছে। তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত নিশ্চিত করে কিছু বলা যাচ্ছে না। হত্যার রহস্য উন্মোচনে বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে কাজ করা হচ্ছে। নিহত শাহিনুরের ছোট ভাই রায়হানুলকে পাঁচ দিনের রিমান্ড নেয়া হয়েছে। গুরুত্বপূর্ণ তথ্য উন্মোচন হলে প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে সাংবাদিকদের জানানো হবে।
এদিকে, ঘটনার প্রথমদিন উপস্থিত থাকা সিআইডির জিজ্ঞাসাবাদে হায়দার সাহাজীর ছেলে আনিসুর রহমান বলেন, ঘটনার দিন ভোররাতে নিহত শাহিনুরের ছোট ভাই রায়হানুর হঠাৎ আমার বাড়িতে যায়। তখন আমি নামাজের জন্য দাঁত ব্রাশ করছিলাম। রায়হানুর বলে বাড়িতে মারিয়া খুব কান্না কান্নাকাটি করছে। ভাই শাহিনুরের ঘরে যেন কি হয়েছে। ভাই ভাবি কেউ উত্তর দিচ্ছে, অনেকবার ডাকাডাকি করলেও। একথা শুনে আমি ও আমার বড় ভাই শামসুর ছুটে গিয়ে দেখি ঘর তালা বদ্ধ ও চিলেকোঠার দরজা খোলা। এ অবস্থায় তালা খুলতে চাবি চাইলে দূর থেকে রায়হানুল চাবিটি দেখিয়ে দেয়। ঘরে প্রবেশ করে দেখি মা, মেয়ে ও ছেলে যে ঘরে ছিল সেটি খোলা, রুমের মেঝেতে নিহত অবস্থায় মা সাবিনা ও শিশু বাচ্চা দুটি রক্ত মাখা অবস্থায় পড়ে আছে। মারিয়া কান্নাকাটি করছে। শাহিনুর অন্য ঘরে পা বাঁধা অবস্থায় নিহত অবস্থায় পড়ে আছে। তখন আমরা শিশু বাচ্চাটিকে উদ্ধার করে নিয়ে আসি।
এ সময় তিনি আরো বলেন, নিহতের ছোট ভাই রায়হানুল বা অন্য কেউ মৃতদেহে কোন কিছুতে স্পর্শ করেনি।
এ বিষয়ে ইউপি চেয়ারম্যান মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, এ হত্যাকান্ড মাদক ব্যবসা না সম্পত্তির কারণে হয়েছে তা এখনো আমাদের অজানা। তবে এ হত্যাকান্ড পরিকল্পিত ভাবেই করা হয়েছে। এ সময় তিনি হত্যাকান্ডের সাথে জড়িতদের অতি দ্রুত গ্রেফতার করে আইনের আওতায় এনে দৃস্টান্তমূলক শান্তির দাবি করেন।

#

কলারোয়ায় পূঁজা মন্ডপে ঢেউ টিন দিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান

কে এম আনিছুর রহমান,কলারোয়া(সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি ॥
২২ অক্টোবর মহাষষ্টির মধ্য দিয়ে শুরু হতে যাচ্ছে হিন্দু ধর্মাবলম্বিদের শারদীয় দূর্গা পূঁজা। এ উপলক্ষে সনাতন ধর্মাবলম্বিদের পূঁজোর শুভেচ্ছা জানিয়েছেন কলারোয়া উপজেলা চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম লাল্টু। সেই সাথে তিনি উৎসবের সফলতাও কামনা করেন। এবারকার পূঁজা মন্ডপগুলোয় সরকারি অনুদানের পাশাপাশি ব্যক্তিগত উদ্যোগেও অনেকের পক্ষ থেকে অনুদান দিতে দেখা গেছে। এরই অংশ হিসেবে উপজেলা চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম লাল্টু নিজ উদ্যোগে ও নিজ অর্থায়নে সোমবার (১৯ অক্টোবর) সকালে সোনাবাড়িয়া ইউনিয়নের বেলীদাস পাড়া পূঁজা মন্ডপে দুই বান ঢেউ টিন বিতরণ করেন। কলারোয়া উপজেলা প্রাঙ্গন থেকে চেয়ারম্যানের কাছ থেকে টিনগুলো গ্রহন করেন সোনাবাড়িয়ার বেলীদাস পাড়া পূঁজা মন্ডপের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকসহ নেতৃবৃন্দ। উল্লেখ্য, বেলীদাস পাড়া পূঁজা মন্ডপটি অর্থায়নের অভাবে খোলামেলা জায়গায় পূঁজার অর্চনার কাজ চলে আসছিল। রোদ-বৃষ্টির কারণে পুঁজা মন্ডপটি ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ায় কমিটির পক্ষ থেকে উপজেলা চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম লাল্টুর নিকট আবেদন করলে তিনি নিজ উদ্যোগে ওই পূঁজা মন্ডপের জন্য দুই বান ঢেউ টিন বিতরণের ব্যবস্থা নেন।

#

কলারোয়ার কেরালকাতা ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচন কাল মঙ্গলবার

কে এম আনিছুর রহমান,সাতক্ষীরার প্রতিনিধি ॥
সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলার ৮ নং কেরালকাতা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদের উপ-নির্বাচন কাল মঙ্গলবার। অনুষ্ঠেয় এ নির্বাচনে ৩ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দিতা করছেন। তবে নির্বাচনী লড়াই হবে মূলত: দ্বিমুখী বলে শোনা যাচ্ছে। মুল প্রতিদ্বন্দি এই দুই প্রার্থী হলেন: নৌকা প্রতীকের সম মোরশেদ আলী ও মোটর সাইকেল প্রতীকের আব্দুর রউফ সরদার। অপর প্রার্থী হলেন আনারস প্রতীকের নেছার আলি। মোটর সাইকেল ও আনারস প্রতীকের প্রার্থীও আওয়ামী লীগ ঘরানার মানুষ। নৌকা প্রতীকে নির্বাচন করছেন ওই ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান সম মোরশেদ আলি। তিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও কলারোয়া সরকারি কলেজ ছাত্র সংসদের সাবেক ভিপি। তাঁর মূল প্রতিদ্বন্দি আব্দুর রউফ সরদার সদ্য প্রয়াত কেরালকাতা ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আব্দুল হামিদ সরদারের সহোদর ভাই।
উপ-নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মনোরঞ্জন বিশ্বাস জানান, আজ মঙ্গলবার এই উপ-নির্বাচন সকাল ৯ টা থেকে বিরতিহীনভাবে বিকাল ৫ টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ চলবে। শান্তিপূর্ণ পরিবেশ নিশ্চিত ও আইন-শৃঙ্খলা সমুন্নত রাখতে সব ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। উপজেলা নির্বাচন অফিসার মনোরঞ্জন বিশ্বাস আরো জানান, এবার কেরালকাতা ইউনিয়নে মোট ১৭ হাজার ৪৪৫ জন ভোটাধিকার প্রয়োগ করার অনুমতি লাভ করেছেন। এরমধ্যে পুরুষ ভোটার ৮ হাজার ৭৬১ জন ও মহিলা ৮ হাজার ৬৮৪ জন। কেন্দ্রের সংখ্যা ৯ টি, আর ভোট গ্রহণ কক্ষের সংখ্যা ৪২টি। তিনি আরও জানান, কঠোর নিরাপত্তা ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট গ্রহণের জন্য সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। প্রসঙ্গত: উল্লেখ্য, গত ৩০ জুন ঢাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালে দুরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসারত অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন কেরালকাতা ইউনিয়নের ৩ বার নির্বাচিত চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আলহাজ্ব আব্দুল হামিদ সরদার।

#

কলারোয়ায় ওয়াশ ফান্ড বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত

কে এম আনিছুর রহমান,কলারোয়া(সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি ॥
সাতক্ষীরার কলারোয়া গালর্স পাইলট হাইস্কুলের ঢাকা আহছানিয়া মিশন আয়োজিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ওয়াশ ফান্ড বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার স্কুলের অফিস কক্ষে ওই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সে সময় কোভিড-১৯ করোনা ভাইরাসের সুরক্ষা সামগ্রী প্রদান করা হয়।

প্রধান শিক্ষক বদরুজ্জামান বিপ্লবের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আবদুল হামিদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন সহকারি মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার হারুন অর রশিদ ও মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি মো.আমানুল্লাহ আমান। ঢাকা আহছানিয়া মিশনের প্রতিনিধি বিপ্লব হোসেন স্বাগত বক্তব্য রাখেন।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন প্রধান শিক্ষক রুহুল আমিন, শেখ কামরুল হাসান, শিক্ষক মোস্তাফিজুর রহমান, নাজনীন খাতুন, শেখ শাহাজাহান আলী শাহিন প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে ঢাকা আহছানিয়া মিশনের প্রতিনিধি বিপ্লব হোসেন কলারোয়া থেকে বদলি হয়ে যাওয়ায় তাকে বিদায়ী উপহার তুলে দেন অতিথিবৃন্দ। এছাড়া কোভিড-১৯ করোনাভাইরাসের সুরক্ষা সামগ্রী কলারোয়া গালর্স হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক বদরুজ্জামান বিপ্লব ও কলারোয়া আলিয়া মাদ্রাসার সহকারী শিক্ষক শেখ শাহাজাহান আলী শাহিনের হাতে তুলে দেয় হয়।

ঢাকা আহছানিয়া মিশনের প্রতিনিধি বিপ্লব হোসেন জানান, করোনাভাইরাসের সুরক্ষা সামগ্রী পর্যায়ক্রমে অন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্রদান করা হবে।

প্রধান অতিথি আবদুল হামিদ বলেন, ‘কোভিড-১৯ সম্পর্কে সকলে সচেতন হতে হবে, স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলতে হবে

#

সাতক্ষীরা বেসিক ক্রিকেট একাডেমিকে হারিয়েছে কলারোয়া ক্রিকেট একাডেমি

কে এম আনিছুর রহমান,কলারোয়া(সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি ॥
সাতক্ষীরার কলারোয়ায় প্রীতি ক্রিকেট ম্যাচে সাতক্ষীরার বেসিক ক্রিকেট একাডেমিকে ১৪৬ রানে হারিয়েছে স্বাগতিক কলারোয়া ক্রিকেট একাডেমি। সোমবার (১৯অক্টোবর) সকালে কলারোয়া সরকারি পাইলট হাইস্কুল মাঠে অনুষ্ঠিত খেলায় টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সির্ধান্ত নেয় কলারোয়া ক্রিকেট একাডেমি। নির্ধারিত ৪০ ওভারের খেলায় ৩৪ ওভার ৪বল খেলে সবকটি উইকেট হারিয়ে ২৯২রান করতে সক্ষম হয়। দলের পক্ষে সাঈদ ৯৮বলে ১৬৭রান, মিরাজ ১৫বলে ২৭রান ও আকতার ৩৩বলে ১৯রান করেন। বোলিংয়ে সাতক্ষীরা বেসিক ক্রিকেট একাডেমির পক্ষে রুপম ৬ ওভারে ৩৯রান দিয়ে ২ উইকেট ও সাব্বির ৪ ওভারে ৩৪রান দিয়ে ২টি উইকেট লাভ করেন। সাতক্ষীরা বেসিক ক্রিকেট একাডেমি ২৯৩রানের টার্গেটে ব্যাটিংয়ে নেমে ২৯ ওভার ৩বল খেলে সবকটি উইকেট হারিয়ে ১৪৬রান করতে সক্ষম হয়। ফলে কলারোয়া ক্রিকেট একাডেমি ১৪৬রানের বিশাল জয় পায়। দলের পক্ষে জাহিদ ৩৯বলে ৪১রান করে ও অন্তর ৩৪ বলে ২৩রান করেন। বোলিংয়ে কলারোয়ার পক্ষে সাকিব ৬ ওভারে ২৭রান দিয়ে ৩টি উইকেট ও শাহ আলম ও
আবির ২টি করে উইকেট লাভ করেন। ম্যাচটি পরিচালনা করেন রায়হান ও আশিক।

#