কলারোয়ায় খাস জমি বন্দোবস্তের ২৬ বছরেও দখল না পেয়ে সংবাদ সম্মেলন


287 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কলারোয়ায় খাস জমি বন্দোবস্তের ২৬ বছরেও দখল না পেয়ে সংবাদ সম্মেলন
মার্চ ২৯, ২০১৬ কলারোয়া ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

কে এম আনিছুর রহমান,কলারোয়া :
সাতক্ষীরার কলারোয়ায় খাস জমি বন্দোবস্তের ২৬ বছরেও দখল না পেয়ে দুই দাস পরিবার সংবাদ সম্মেলন করেছেন। মঙ্গলবার বিকালে কলারোয়া প্রেসক্লাবে ওই দুই দাস পরিবারের পক্ষে সুবল দাস এ সংবাদ সম্মেলন করেন। সংবাদ সম্মেলনে তিনি তার লিখিত বক্তব্যে বলেন,তারা উপজেলার জয়নগর এলাকার গরিব, অসহায় ভূমিহীন ছিন্নমূল পরিবারের সদস্য। সেই বিবেচনায় সদাশয় সরকার বাহাদুর ১৯৮৯ সালের ২৫ জুলাই তাদের দুই পরিবারের ৪ জনের (স্বামী-স্ত্রী) নামে জয়নগর মৌজার ৮৩৮, ২৫১ নং দাগে জমির পরিমাণ ৫০ শতক, অপর পরিবারের ৭৭৭, ৭৭৫ নং দাগে জমির পরিমাণ ৪১ শতক মোট ৯১ শতক খাস জমি বিধি মোতাবেক বন্দোবস্ত দেন। এর মধ্যে এক তার ও তার স্ত্রী রুপভান দাসের নামে দেওয়া ৪১ শতক জমির নাম পত্তনও সম্পন্ন হয়েছে। অপর পরিবারের ভগীরথ দাস ও তার স্ত্রী রানী দাসের জমি আজও নাম পত্তন হয়নি। অতিব দু:খের বিষয় দীর্ঘদিন অতিবাহিত হলেও বন্দোবস্তকৃত জমির মধ্যে মাত্র ১৪ শতক জমির দখল পেলেও বাকী জমির দখল ও নাম পত্তন করতে প্রশাসনের সংশ্লিষ্ট দপ্তরের দ্বারে দ্বারে ঘুরে কোন কাজ হয়নি। মাসের পর মাস বছরের পর বছর সংশ্লিষ্ট অফিসে গেলে এ অফিস দেখায় ওই অফিসে যাও, আর ওই অফিস দেখায় ওখানে যাও। এখানে ওখানে সবখানে ঘুরে আজ তারা ক্লান্ত, পরিশ্রান্ত। এখন তারা দুই পরিবারের ১৭জন সদস্য নিয়ে দিন রাত কেউ রাস্তায় টোঙ বেধে আবার কেউ অন্যের জায়গায় বাস করে কোন রকমে বেঁচে আছে।
তাই জীবনের শেষ সময়ে উপনিত হয়ে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে সদাশয় সরকার বাহাদুর,মাননীয় সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, সহকারী কমিশনার ভূমি কলারোয়াসহ স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিদের নিকট কামনা করে আরো বলেন, তাঁরা যেন অচিরেই তাদের নামে বন্দোবস্ত দেওয়া জমির দখল পেতে পারে তার জরুরী কার্যকরী ব্যবস্থা নিতে সু-দৃষ্ঠি কামনা করেন।