কলারোয়ায় চিকিৎসক সংকটে স্বাস্থ্যসেবায় দুরবস্থা !


204 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কলারোয়ায় চিকিৎসক সংকটে স্বাস্থ্যসেবায় দুরবস্থা !
জানুয়ারি ১৩, ২০২২ কলারোয়া ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত সাধারণ মানুষ

১২ জন মেডিকেল অফিসারের স্থলে আছে মাত্র ১জন

ডেস্ক রিপোর্ট ::

কলারোয়া উপজেলার ১২টি ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রের বেহাল অবস্থা বিরাজ করছে। মূলত জনবল সংকটের কারণে মা ও শিশু ইউনিয়ন স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্রে মানুষ সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

যুগিখালী গ্রামের খাদিজা খাতুন, পাইকপাড়া গ্রামের সাবিনা খাতুন, কুশোডাঙ্গা গ্রামের রোজিনা বেগমসহ অনেকেই জানান, বর্তমানে ইউনিয়ন স্বাস্থ্য কেন্দ্রগুলোতে তেমন কোন স্বাস্থ্য সেবা নেই বললেই চলে। কেন্দ্রগুলোতে কিছু পরিবার পরিকল্পনা বিষয়ক সাতটি পদ্ধতির বিনামূল্যের সেবা পাওয়া গেলেও ডাক্তারদের সেবা পাওয়া কষ্টকর হয়ে পড়েছে। স্বাস্থ্য কেন্দ্রগুলোতে গিয়ে কোন কর্মরত উপ-সহকারি কমিউিনিটি মেডিকেল অফিসারদেরকে দেখতে পাওয়া যায় না। কিছু জায়গায় পরিবার কল্যাণ পরিদার্শিকাদের দেখতে পাওয়া গেলেও সময়মত তাদের সেবা পাওয়া যায় না। কারণ তারা সময়মত অফিস করেন না।

অপরদিকে ১২টি স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রের মধ্যে ১২টি পদের মধ্যে ১০টিতে কোন উপ-সহকারি কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার নেই। বাকী দুটিতে থাকলেও একজন ম্যাটারনিটি ছুটিতে আর একজন ডেপুটেশনে সপ্তাহে একদিন ‘নামকাওয়াস্তে’ অফিস করেন বলে জানা যায়। পরিবার কল্যাণ পরিদার্শিকার ১৩টি পদ থাকলেও সেখানে কর্মরত আছেন ১০জন। যারা সরকারের জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণের জন্য তৃণমূলে সেবা প্রদান করে সরকারের লক্ষ্য বাস্তবায়ন করছে। সেই পদেও ৪৫জন পরিবার কল্যাণ সহকারির স্থলে আছে মাত্র ২১জন। এই ২১জন কলারোয়া উপজেলার প্রায় ৬০হাজার দম্পত্তির সেবা দিয়ে যাচ্ছেন। যেটা তাদের জন্য খুব দুরূহ হয়ে যাচ্ছে। জনবল সংকটের বিষয়ে সাতক্ষীরা জেলা পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক রওশন আরা জামানের কাছে মুঠোফোনে জানতে চাইলে তিনি জানান, ইতোমধ্যে আমরা পরিবার কল্যাণ সহকারি পদের নিয়োগ প্রক্রিয়ার মধ্যেই আছি। বাকী পদগুলোই দ্রুত নিয়োগের জন্য অধিদপ্তরকে জানানো হয়েছে এবং অতি দ্রুত শুন্য পদগুলোতে নিয়োগের ব্যবস্থা করা হবে।