কলারোয়ায় জমি নিয়ে বিরোধে কৃষককে গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে বলে দাবী স্বজনদের


180 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কলারোয়ায় জমি নিয়ে বিরোধে কৃষককে গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে বলে দাবী স্বজনদের
নভেম্বর ২৬, ২০২০ কলারোয়া ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

আসাদুজ্জামান ::

জমি ও মাদ্রাসা নিয়ে বিরোধকে কেন্দ্র করে সাতক্ষীরার কলারোয়ায় কৃষক মোসলেম উদ্দীন বিশ্বাসকে গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারনা করছেন নিহতের স্বজনরা। বুধবার রাতে কলারোয়া উপজেলার দেয়াড়া গ্রামের বিশ্বাসপাড়া থেকে পুলিশ ওই কৃষকের লাশ উদ্ধার করে।
নিহত মোসলেম উদ্দীন বিশ্বাস (৬০) উপজেলার দেয়াড়া গ্রামের মৃত নঈম উদ্দীন বিশ্বাসের ছেলে।
নিহতের স্ত্রী আছিয়া খাতুন জানান, জমি নিয়ে বিরোধসহ দেয়াড়া দাখিল মাদ্রাসার সভাপতি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে স্থানীয় অহেদ আলীর সঙ্গে তার স্বামীর বিরোধ চলছিল। তিন বছর আগে তার স্বামীকে মারপিটও করে অহেদসহ তার লোকজন। আছিয়া খাতুন আরো জানান, তার দু’ ছেলের মধ্যে ছোট ছেলে বাচ্চু মালয়েশিয়ায় থাকে। বাচ্চুর টাকা দিয়ে কয়েক মাস আগে বাড়ি থেকে কয়েক’শ গজ দূরে নতুন বাড়ি তৈরী করা হয়। নতুন বাড়িতে তারা মাঝে মাঝে অবস্থান করতেন। মঙ্গলবার তিনি দুর্ঘটনায় আহত ভাই বাবুকে দেখতে বাপের বাড়ি সাতক্ষীরা শহরের সুলতানপুরে আসেন ছোট মেয়ে নার্গিসকে নিয়ে। নার্গিস বুধবার দুপুরে বাড়ি ফিরে যায়। মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে তার স্বামী ভাত খেয়ে নতুন বাড়িতে যায়। সকালে তিনি বাড়িতে আসেননি। বাড়ির লোকজন ওই বাড়িতে যেয়ে বাইরে থেকে তালাবদ্ধ অবস্থায় দেখতে পায়। ফলে তার স্বামীকে সম্ভাব্য সকল জায়গায় খোঁজ করে না পেয়ে বুধবার সন্ধ্যায় তালা ভেঙে গলাকাটা অবস্থায় লাশ দেখতে পায়। মাদ্রাসা ও জমি নিয়ে বিরোধকে কেন্দ্র করে তার স্বামীকে হত্যা করা হতে পারে বলে তিনি প্রাথমিকভাবে ধারনা করছেন বলে জানান।
কলারোয়া থানার ওসি (তদন্ত) হারান চন্দ্র পাল জানান, নিহতের মরদেহ ময়না তদন্ত শেষে বৃহষ্পতিবার বিকালে স্বজনদের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। তিনি আরো জানান, এ ঘটনায় নিহতের ছেলে মোস্তাফিজুর রহমান বাদি হয়ে কারো নাম উল্লেখ না করে বৃহস্পতিবার দুপুরে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

#