কলারোয়ায় ভোট কারচুপি : উপজেলা আ’লীগের সভাপতি স্বপনের বহিষ্কার দাবি


598 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কলারোয়ায় ভোট কারচুপি : উপজেলা আ’লীগের সভাপতি স্বপনের বহিষ্কার দাবি
মার্চ ২৫, ২০১৬ কলারোয়া ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

স্টাফ রিপোর্টার :
সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলার কেরালকাতা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের বিরুদ্ধে কাজ করার অভিযোগে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ফিরোজ আহমেদ স্বপনকে দল থেকে বহিষ্কার ও ভোটের দিন কারচুপির অভিযোগে স্থগিত হওয়া কেন্দ্রে সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবি জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী মোরশেদ আলী। শুক্রবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে তিনি এই দাবি জানান। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের সভানেত্রী শেখ হাসিনা ইউপি নির্বাচনে আমাকে মনোনয়ন দেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ফিরোজ আহমেদ স্বপন বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে ফারুক হোসেন অভিকে দাড় করিয়ে দেন। শুধু তাই নয়, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি প্রকাশ্যে নৌকা প্রতীকের বিরোধিতা করে বিদ্রোহী প্রার্থীর পক্ষে কাজ করেছেন, ভোট চেয়েছেন। ফিরোজ আহমেদ স্বপন হুলহুলিয়া এলাকায় টানানো নৌকা প্রতীক নামিয়ে আনারস প্রতীক উত্তোলন করেন। তিনি অভিযোগ করে বলেন, ২২ মার্চের নির্বাচনে বলিয়ানপুর কেন্দ্রে আমার বিরুদ্ধে কারচুপির যে অভিযোগ আনা হয়েছে তা মিথ্যা, বানোয়াট ও ভিত্তিহীন। বরং উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতির সরাসরি হস্তক্ষেপের মাধ্যমে বিদ্রোহী প্রার্থী বালট বাক্স ছিনতাই করে পুড়িয়ে দেয়। এ কারণে প্রিসাইডিং অফিসার ভোট গ্রহণ স্থগিত করেন। শুধু তাই নয়, এর আগেও তিনি বলিয়ানপুর ও বহুড়া কেন্দ্রে নৌকা প্রতীকে ভোট না দেওয়ার জন্য আওয়ামী লীগের কর্মীদের ভয়ভীতি দেখান। এবং নির্বাচনের পরে এখনো ক্ষয়ক্ষতির হুমকি দিচ্ছেন।
সংবাদ সম্মেলনে তিনি নৌকা প্রতীকের বিরুদ্ধে কাজ করার অভিযোগে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ফিরোজ আহমেদ স্বপনকে দল থেকে বহিষ্কার ও ভোটের দিন কারচুপির অভিযোগে স্থগিত হওয়া কেন্দ্রে সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবি জানিয়েছেন। ##