কলারোয়ায় শেখ হাসিনার গাড়ী বহরে হামলা মামলা : আসামীদের রিভিশন


520 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কলারোয়ায় শেখ হাসিনার গাড়ী বহরে হামলা মামলা : আসামীদের রিভিশন
অক্টোবর ১৬, ২০১৬ কলারোয়া ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

আদালত প্রতিবেদক :
প্রধানমন্ত্রীর গাড়ী বহরে হামলা মামলাটি বিলম্বিত করতে ষড়যন্ত্রমূলকভাবে আসামীরা একের পর এক মামলার বিরুদ্ধে রিভিশন করছে বলে জানা গেছে। সাতক্ষীরা জজ কোর্টের পাবলিক প্রসিকিউটর এড. ওসমান গনি জানায়, ২০০২ সালের ৩০ আগস্ট সকাল ১০টার দিকে তৎকালীন বিরোধী দলীয় নেত্রী ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কলারোয়া উপজেলার চন্দনপুর ইউনিয়নের হিজলদী গ্রামের এক মুক্তিযোদ্ধার ধর্ষিতা স্ত্রীকে দেখতে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে আসেন। সেখান থেকে যশোরে ফিরে যাওয়ার পথে বেলা সাড়ে ১১টার দিকে কলারোয়া উপজেলা বিএনপি অফিসের সামনে জেলা বিএনপি’র তৎকালীন সভাপতি ও সংসদ সদস্য হাবিবুল ইসলাম হাবিব ও বিএনপি নেতা রঞ্জুর নির্দেশে বিএনপি-যুবদল-ছাত্রদলে নেতা কর্মীরা দলীয় অফিসের সামনে একটি যাত্রীবাহী বাস (সাতক্ষীরা-জ-০৪-০০২৯) রাস্তার উপরে আড় করে দিয়ে তাঁর গাড়ি বহরে হামলা চালায়। দীর্ঘ ১৩ বছর পর গাড়ি বহরে হামলার ঘটনায় ২০১৪ সালের ১৫ অক্টোবর কলারোয়া থানায় ২৭ জনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেন। প্রধানমন্ত্রীর গাড়ি বহরে হামলার ঘটনায় অস্ত্র ও বিষ্ফোরক আইনে ৫০ জন বিএনপির নেতা কর্মীকে অভিযুক্ত করে আদালতে চাজর্শীট দাখিল করা হয়। যার আদালতের জিআর নং-২৫৯/১৪। এঘটনার পর আসামীরা নি¤œ আদালতে হাজির হলে তাদের জামিন নাকচ করে কারাগারে প্রেরণ করে। পরে আসামীরা একে একে হাইকোর্ট থেকে জামিন লাভ করে। এদিকে, প্রধানমন্ত্রীর গাড়ী বহরে হামলা মামলাটি বিলম্বিত ও বাধাগ্রস্থ করার উদ্দেশ্যে আসামী এড. আব্দুস সাত্তার চার্জের বিরুদ্ধে একটি রিভিশন দায়ের (যার নং-৪৩৬/১৫) করে। রিভিশন করার পর জেলা জজ আদালত রিভিশন শুনানীঅন্তে গত ২৪ মার্চ তা খারিজ করে দেয়। রিভিশন খারিজের বিরুদ্ধে ক্ষুদ্ধ হয়ে এড. আব্দুস সাত্তার হাইকোর্টের শরণাপন্ন হলে গত ১২জুলাই তাও খারিজ হয়ে যায়। বিভিন্ন ষড়যন্ত্র করে তারা প্রধানমন্ত্রীর গাড়ী বহরে হামলা মামলাটি পুনরায় বিলম্বিত করার উদ্দেশ্যে মামলার সিএস ভূক্ত ২৩নং আসামী জহুরুল ইসলাম জেলা জজ আদালতে আরো একটি ক্রিমিনাল রিভিশন (যার নং-১৩৮/১৬) করে। যার শুনানী গতকাল রবিবার জেলা জজ আদালতে শুনানী হয়েছে। জজ কোর্টের পাবলিক প্রসিকিউটর এড. ওসমান গণি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রীর গাড়ী বহরে হামলার মামলাটি সম্পুর্ন ষড়যন্ত্রমূলক ভাবে বিলম্বিত করার উদ্দেশ্যে আসামী পক্ষরা একের পর এক মামলার বিরুদ্ধে রিভিশনর দায়ের করছে। গত রবিবার আরো একটি রিভিশনের শুনানী হয়েছে। আদালত যদি ওই শুনানী খারিজ করে দেয় তাহলে আগামীকাল মঙ্গলবার স্বাক্ষীর দিন ধার্য হবে। মামলাটি যাতে সুষ্ঠভাবে বিচার কার্যক্রম চালিয়ে যেতে পারি এবং আসামীদের যাতে শাস্তি প্রদান করতে পারি এজন্য তিনি সকলের সহযোগীতা কামনা করেছেন।