কলারোয়ায় সরকারী নৌ-খাল জোরপূর্বক দখল করে আরসিসি পিলার দিয়ে ঘর নির্মান শুরু


447 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কলারোয়ায় সরকারী নৌ-খাল জোরপূর্বক দখল করে আরসিসি পিলার দিয়ে ঘর নির্মান শুরু
এপ্রিল ২৯, ২০১৬ কলারোয়া ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

এম আনিছুর রহমান (কলারোয়া) সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলার কাজীরহাট বাজার সংলগ্ন উত্তর রঘুনাথপুর এলাকায় সরকারী নৌ-খাল জোরপূর্বক দখল করে আরসিসি পিলার দিয়ে ঘর নির্মান করা হচ্ছে। উত্তর রঘুনাথপুর গ্রামের শামসুর রহমান সরদারের ছেলে কবিরুল ইসলাম এ ঘর নির্মান করছেন। স্থানীয় কতিপয় শাসকদলের নেতাকর্মীদের ম্যানেজ করে এ ঘর নির্মান করা হচ্ছে বলে এলাকাবাসির অভিযোগ। শুক্রবার সকালে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বেত্রবতী নদীর মুখ থেকে উপজেলার ভিখালী থেকে শুরু করে এ খালটি কাজীরহাট বাজার,দমদম বাজার,হঠাৎগঞ্জ ও কেঁড়াগাছি হয়ে দীর্ঘ ৩৫-৪০ কিলোমিটার পাড়ি দিয়ে সাতক্ষীরা সদর থানার কদমতলা খালে গিয়ে মিশে গেছে। যার দু’ধারে উপজেলার কেরালকাতা, কুশোডাঙ্গা, হেলাতলা ও কেঁড়াগাছি ইউনিয়নের প্রায় লক্ষাধিক লোকের বসবাস। বর্ষা মৌসুমে এই খাল দিয়ে ওই সব এলাকার বিল খালের পানি বের হয়ে যায়। খালটি অত্যন্ত জনগুরুত্বপূর্ণ। অথচ ওই ভুমিদস্যু কবিরুল ইসলাম খালটির মাঝখান বরাবর দখল করে লোহার রড দিয়ে আরসিসি পিলার জামিয়ে ঘর নির্মান করছেন। যাতে গরুর খামার করা হবে বলে তার পরিবারের লোকজন জানান। এলাকাবাসির অভিযোগ এভাবে যদি খাল দখল করে ঘর নির্মান করেন তাহলে বর্ষা মৌসুমে তাদের ওই এলাকা সবই পানিতে ডুবে যাবে এবং বসবাসের অনুপযোগি হয়ে পড়বে। তাই ওই খালের উপর যাতে ঘর নির্মান না করতে পারে সেজন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসার উত্তম কুমার রায়,অবদা কর্তৃপক্ষসহ সংশ্লিষ্ঠ কর্তৃপক্ষের সু-দৃষ্টি কামনা করেন।

এ ব্যাপারে ঘর নির্মানকারী কবিরুল ইসলাম খাল দখল করে ঘর নির্মান করার কথা স্বীকার করে বলেন,বর্ষা মৌসুমে পানি যাতে বাধার সৃষ্টি না হয় সে কারণে তিনি আরসিসি পিলার জামিয়েছেন। তার উপর ছাদ দিয়ে তিনি ঘর নির্মান করে গরুর খামার তৈরী করবেন বলে জানান। তিনি আরো জানান, স্থানীয় ইউপি বিষয়টি জানেন।
স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মোয়াজ্জেম,হোসেন জানান,তিনি বিষয়টি সম্পর্কে কিছুই জানেন না। সাংবাদিকদের মুখে বিষয়টি প্রথমে শুনলেন বলে জানান।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার উত্তম কুমার রায় জানান,তিনিও বিষয়টি শুনেছেন,সরকারী খালের উপর যদি ঘরটি নির্মান করা হয় তাহলে অবশ্যই বন্ধ করে দেয়া হবে।